১৮ এপ্রিল ২০২১
`

জাতিসঙ্ঘে মিয়ানমারের দূতকে বরখাস্ত সামরিক বাহিনীর, আত্মগোপনে পরিবার

ক্যাও মোয়ে তুন - ছবি : সংগৃহীত

জাতিসঙ্ঘে মিয়ানমারের দূত ক্যাও মোয়ে তুনকে বরখাস্ত করেছে দেশটির সামরিক সরকার। শনিবার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে তাকে বরখাস্ত করার ঘোষণা করা হয়। এদিকে জাতিসঙ্ঘে দূতের সামরিক সরকারবিরোধী বক্তব্যের পর থেকে মিয়ানমারে তার পরিবার আত্মগোপনে রয়েছেন।

এর আগে শুক্রবার জাতিসঙ্ঘ সাধারণ পরিষদে মিয়ানমারের সামরিক অভ্যুত্থানকে অসাংবিধানিক ও মানবতাবিরোধী উল্লেখ করে তা প্রতিহত করতে ’প্রয়োজনীয় যেকোনো পদক্ষেপ’ ব্যবহারের জন্য সংস্থাটির কাছে আহ্বান জানান ক্যাও মোয়ে তুন।

শনিবার মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন এমআরটিভিতে এক বার্তায় বলা হয়, জাতিসঙ্ঘে মিয়ানমারের দূত দেশের সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন এবং সরকারি নয়, এমন এক সংগঠনের পক্ষে কথা বলেছেন, যারা দেশের প্রতিনিধিত্ব করে না। একজন দূতের ক্ষমতা ও মর্যাদার অপব্যবহার করেছেন তিনি।

এদিকে মিয়ানমার বিষয়ক জাতিসঙ্ঘের বিশেষ প্রতিনিধি টম অ্যান্ড্রুস জানিয়েছেন, জাতিসঙ্ঘে মিয়ানমারের দূতের ‘সাহসিকতায়’ তিনি অভিভূত।

শনিবার এক টুইট বার্তায় তিনি আরো বলেন, ‘বিশ্বের জন্য এখনোই সময় সাহসিক এই আহ্বানে কাজের মাধ্যমে সাড়া দেয়ার।’

ব্যাংকক থেকে আলজাজিরার প্রতিবেদক জানান, মিয়ানমারে ক্যাও মোয়ে তুনের পরিবার প্রকাশ্যে আসা থেকে বিরত আছেন।

তিনি বলেন, ‘আমি ইয়াঙ্গুনে কিছু সূত্রের সাথে কথা বলেছি যারা বলছেন, বর্ধিত এই পরিবার প্রকাশ্যে আসা থেকে বিরত আছেন।’

তিনি আরো জানান, পরিবারের সদস্যদের ব্যবহার করে বিদেশে থাকা টার্গেট করা ব্যক্তিদের প্রভাবিত করায় মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর ইতিহাস আছে।

সূত্র : আলজাজিরা



আরো সংবাদ