১৪ জুলাই ২০২০

করোনার ভেতরেই কিমের ভয়াবহ শাস্তি

কিম জং উন - ছবি : সংগৃহীত

অধিকাংশ দেশে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস সংক্রমণ। তবে এখনো উত্তর কোরিয়া দাবি দেশটিতে করোনা ভাইরাস হানা দেয়নি। করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন ইতোমধ্যে কঠোর আইন জারি করেছেন। আর এমন পরিস্থিতিতে কোয়ারেন্টাইন অমান্য করায় উত্তর কোরিয়ায় এক দম্পতিকে গুলি করে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে কিম প্রশাসন।

ফ্রী রেডিও এশিয়া তথ্য অনুসারে, ওই দম্পতি চীনের সীমান্তবর্তী উত্তর কোরিয়ার রিয়াংগাং প্রদেশে বাস করতেন। এই মাসের শুরুতে তারা কোয়ারেন্টাইন অমান্য করে সীমান্ত দিয়ে দেশ ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় তার ভাতিজাসহ ধরা পড়ে। তাদের ইচ্ছা ছিল সীমান্ত অতিক্রম করে চীনের ওপর দিয়ে দক্ষিণ কোরিয়ায় চলে যাওয়া।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৫০ বছরের ওই দম্পতি তাদের ১৪ বছর বয়সী কিশোর ভাতিজাকে দক্ষিণ কোরিয়ায় থাকা বাবা-মায়ের কাছে ফিরিয়ে দেয়ার জন্যই দেশ ছাড়তে চেয়েছিলেন। এ বিষয়ে রিয়াংগিয়াং'র এক বাসিন্দা বলেন, ওই ছেলের বাবা দক্ষিণ কোরিয়ায় পালিয়ে যান। পরে কিশোর বয়সী ছেলেকে ফিরিয়ে দেয়ার জন্য তিনি তার বোনকে বলেন।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয় যে, ধরা পড়ার পর ওই দম্পতির ওপর নির্মম নির্যাতন চালানো হয়। নির্যাতনের এক পর্যায়ে তারা পালানোর কথা স্বীকার করে নিলে তাদেরকে গুলি করে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরা করা হয়। তবে বয়সে ছোট হওয়ায় ওই দম্পতির ভাতিজাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

এদিকে আরেকটি সূত্র বলছে, ওই দম্পতির মৃত্যুর ঘটনা রিয়াংগিয়াং প্রদেশে ছড়িয়ে যাওয়ার পর সেখানকার জনগণ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। করোনা ভাইরাসের কারণে অর্থনৈতিক মন্দা দেখা দেয়ায় উত্তর কোরিয়া থেকে দক্ষিণ কোরিয়া পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকে স্বাভাবিক হিসেবেই দেখছেন সেখানকার বাসিন্দারা।

সূত্র : এক্সপ্রেস


আরো সংবাদ