২২ মে ২০২২
`

নতুন প্রেসিডেন্টের শপথ নেয়ার আগে হন্ডুরাসের কংগ্রেসে হাতাহাতি

নতুন প্রেসিডেন্টের শপথ নেয়ার আগে হন্ডুরাসের কংগ্রেসে হাতাহাতি - ছবি : সংগৃহীত

নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জিওমারা ক্যাস্ট্রোর দলের সদস্যদের মধ্যে বিরোধ সহিংস রূপ ধারণ করায় শুক্রবার হন্ডুরাসের কংগ্রেসে আইনপ্রণেতারা ঘুসাঘুসি শুরু করেন।

২০ জন বিদ্রোহী সদস্য তাদের সহযোগীদের মধ্যে একজন হোর্হে ক্যালিক্সকে অস্থায়ী কংগ্রেস সভাপতি হিসেবে প্রস্তাব করার পর তার বামপন্থী লিবার পার্টির বিধায়করা প্রতিবাদে শুরু করেন।

ক্যাস্ট্রোর অনুগতরা দাবি করেছেন, এটি লিবার জোটের অংশীদারের সাথে সম্পাদিত চুক্তির সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

ক্যালিক্সের শপথ নেয়ার সময় ক্ষুব্ধ লিবার বিধায়করা ‘বিশ্বাসঘাতক’ এবং ‘জিওমারা’ স্লোগান দিতে দিতে জোর করে পোডিয়ামের দিকে অগ্রসর হন, এরপর কিল ঘুষি এবং ধাক্কাধাক্কি শুরু হলে তিনি পালিয়ে যান।

গত নভেম্বরে নির্বাচিত হওয়ার পর এটি ছিল ১২৮ সদস্যের কংগ্রেসের প্রথম অধিবেশন।

বৃহস্পতিবার দিন শেষে সঙ্কট শুরু হয়, যখন ক্যাস্ট্রো তার দলের ৫০ জন বিধায়ককে একটি বৈঠকে ডেকে নেন, এবং তাদের হন্ডুরাসের সালভাদর পার্টির (পিএসএইচ) লুইস রেডন্ডোকে কংগ্রেসের সভাপতি হিসাবে সমর্থন করতে বলেন।

ওই ২০ জন বিদ্রোহী সদস্য তাতে যোগ দেননি।

শুক্রবার লিবার নেতা গিলবার্তো রিওস বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, ওই ২০ জনকে তারাই সমর্থন করছে, যারা ক্যাস্ট্রোর প্রতিশ্রুত দুর্নীতিবিরোধী অভিযান বন্ধ করতে চায়। তাদের মধ্যে সংগঠিত অপরাধ ও মাদক পাচারের সাথে জড়িত লোকজনও রয়েছে।

ক্যাস্ট্রো হন্ডুরাসের ইতিহাসে প্রথম মহিলা প্রেসিডেন্ট, যিনি গত ১২ বছরের ন্যাশনাল পার্টির শাসনের অবসান ঘটিয়ে গত ২৮ নভেম্বর নির্বাচনে বিজয়ী হন।

ক্যাস্ট্রো সাংবিধানিক চুক্তির সাথে বিশ্বাসঘাতকতা এবং সংগঠিত অপরাধ, দুর্নীতি এবং মাদক পাচারের প্রতিনিধিদের সাথে জোট করার অভিযোগে ভিন্ন মতাবলম্বীদেরকে অভিযুক্ত করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট কামালা হ্যারিসসহ আন্তর্জাতিক অতিথিদের উপস্থিতিতে একটি অনুষ্ঠানে কংগ্রেস সভাপতিসহ অন্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে আগামী ২৭ জানুয়ারি ক্যাস্ট্রোর শপথ নেয়ার কথা রয়েছে।
সূত্র : ভয়েস অফ আমেরিকা


আরো সংবাদ


premium cement