২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ন ১৪২৯, ২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

গোসল নয়, এক বিশেষ পদ্ধতিতে পরিচ্ছন্ন থাকেন এই জনগোষ্ঠীর মানুষ

নামিবিয়ার উত্তর প্রান্তে কুনেন অঞ্চলে বাস করে ওমুহিম্বা বা ওভাহিম্বা জনগোষ্ঠী। - ছবি : সংগৃহীত

আফ্রিকার জঙ্গল যেমন ভয়াবহ, ঠিক তেমনই এই মহাদেশের বিভিন্ন প্রান্তে লুকিয়ে রয়েছে আশ্চর্য সব জিনিস। আফ্রিকা মহাদেশের দক্ষিণ প্রান্তে রয়েছে নামিবিয়া। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের পাশাপাশি এখানে বিভিন্ন জনগোষ্ঠীর বাস করে।

নামিবিয়ার উত্তর প্রান্তে কুনেন অঞ্চলে বাস করে ওমুহিম্বা বা ওভাহিম্বা জনগোষ্ঠী। এখানকার আদিবাসীরা অন্য জনগোষ্ঠীদের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রাখলেও নিজেরা আলাদা থাকতেই পছন্দ করেন।

পশুপালন ও চাষবাস করে দিনযাপন করেন তারা। ছাগল, ভেড়া, গরু পালন করেন তারা।

নারীদের কাজও বাঁধাধরা। শুধু জ্বালানির কাঠ সংগ্রহ করে রান্নাবান্না করে দিন অতিবাহিত করেন তারা। পুরুষরা একাধিক বিয়ে করতে পারেন। এমনই নিয়ম রয়েছে তাদের।

তবে, এক অদ্ভুত নিয়ম মেনে চলেন তারা যা শুনলে সত্যিই অবাক হতে হয়। এই জনগোষ্ঠীর সকলে সারা জীবনে একবারও পানি দিয়ে গোসল করেন না।

কেন এই অদ্ভুত নিয়ম? এটা কি কোনো প্রাচীন প্রথা? আসলে তা কিছুই নয়। এই জনগোষ্ঠীর মানুষ যে অঞ্চলে বাস করেন তার পুরোটাই মরুভূমি। ফলে গোসলের জন্য পানি পাওয়া কষ্টসাধ্য।

তাহলে কী সারা জীবন তারা নোংরা অবস্থাতেই থাকেন? না। পরিচ্ছন্ন থাকার জন্য অন্য পন্থা অবলম্বন করছেন তারা। পানির পরিবর্তে তারা ধূম গোসল (স্মোক বাথ) করে নিজেদের পরিষ্কার রাখেন।

ধূম গোসল করার আগে তারা নিজেদের শরীরে লাল মাটি মেখে রাখেন।

তারপর একটি পাত্রে ডালপালার সাথে কয়লা মিশিয়ে নেন। এ ক্ষেত্রে কমিফোরা গাছের ডাল ও পাতাই বেছে নেন তারা।

দক্ষিণ আফ্রিকার এই কমিফোরা গাছের পাতা থেকে সুগন্ধি বের হয়। তাই মিশ্রণ তৈরিতে কয়লার সাথে এই গাছের অংশ মেশান।

তারপর শরীরে একটি কাপড় জড়িয়ে তারা এই ফুটন্ত পাত্রের সামনে বসে পড়েন।

যতক্ষণ না শরীর থেকে ঘাম পড়ছে ততক্ষণ পর্যন্ত তারা এই বিশেষ পদ্ধতিতে স্নান করেন।

এভাবেই চলছে এ জনগোষ্ঠীর প্রায় ৫০ হাজার মানুষের জীবন।


আরো সংবাদ


premium cement