১৯ মে ২০২২, ০৫ জৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩
`

বুরকিনা ফাসোতে সামরিক ব্যারাকে গোলাগুলি, কারফিউ জারি

বিদ্রোহী এক সৈন্য আকাশে গুলি ছুড়ছে - ছবি : আলজাজিরা/এপি

বুরকিনা ফাসোর রাজধানী ওয়াগাদোগুতে প্রেসিডেন্ট প্রাসাদের কাছে অবস্থিত সামরিক ব্যারাক থেকে প্রচণ্ড গোলাগুলির শব্দ শোনা গেছে। রোববার বিকেলে এই গোলাগুলির শব্দ শোনা যায়।

এর জেরে দেশটিতে সামরিক বাহিনীর নিয়ন্ত্রণ গ্রহণের গুজব ছড়িয়ে পড়েছে।

তবে সরকারের পক্ষ থেকে সামরিক বাহিনীর দেশের নিয়ন্ত্রণ গ্রহণের খবর অস্বীকার করা হয়েছে।

এর আগে রোববার স্থানীয় সময় ভোর ৫টায় ওয়াগাদোগুর সানগুলে লামিজানা সামরিক ব্যারাক নিয়ন্ত্রণে নেয় বিদ্রোহী সৈন্যরা। সামরিক কর্মকর্তাদের বরখাস্ত এবং দেশটিতে উগ্রবাদীদের বিরুদ্ধে চলমান লড়াইয়ে ‘পর্যাপ্ত সম্পদ’ বরাদ্দের দাবিতে তারা বিদ্রোহ করে।

একইভাবে দেশটির আরো বেশ কিছু সামরিক ব্যারাকেও বিদ্রোহের খবর পাওয়া যায়।

রোববার দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেনারেল বাথেলেমি সিমপুর এক ভাষণে পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকার কথা জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘রাষ্ট্রপ্রধানকে বন্দি করা হয়নি, দেশের কোনো প্রতিষ্ঠানই হুমকিতে নেই।’

সরকারের মুখপাত্র আলকাসুম মাইগা এক বিবৃতিতে বলেন, ‘সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এমন কিছু তথ্য ছড়িয়ে পড়েছে যাতে জনগণ মনে করছে যে সামরিক বাহিনী দেশের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে। কিছু ব্যরাকাকে গোলাগুলির কথা স্বীকার করেই সরকার ওই তথ্যকে প্রত্যাখ্যান করছে এবং জনগণকে শান্ত থাকার আহ্বান জানাচ্ছে।’

এদিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পরবর্তী আদেশ দেয়া না পর্যন্ত সারাদেশে প্রতিদিন রাত ৮টা থেকে রাতজুড়ে কারফিউর ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ।

অপরদিকে দেশটির শিক্ষা মন্ত্রণালয় সোম ও মঙ্গলবার সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার আদেশ দিয়েছে।

এদিকে বিদ্রোহী সৈন্যরা এক অডিও বার্তায় জানিয়েছে, দেশটিতে উগ্রবাদীদের বিরুদ্ধে চলমান যুদ্ধে তারা পর্যাপ্ত সম্পদ চান। একইসাথে শীর্ষ কর্মকর্তাদের বরখাস্ত, আহত সৈন্যদের যথার্থ সেবা ও নিহতদের পরিবারকে প্রয়োজনীয় সাহায্য দেয়ার দাবিও অডিও বার্তায় জানানো হয়।

সূত্র : আলজাজিরা ও ফ্রান্স টোয়েন্টি ফোর


আরো সংবাদ


premium cement