২৮ অক্টোবর ২০২০
কা শ ফু লে র ঋ তু

সাদা মেঘের দিন

-

শরতের নীল আকাশ আমাকে মুগ্ধ করে। এমন মায়াবী আকাশ আমাকে উদাস করে। আমি শরতের আকাশের প্রেমে মজে যাই। কাজকর্মের ফাঁকে আমি সারাদিন আকাশ দেখি। নীল আকাশে ভেসে চলে শিমুল তুলার মতো মেঘের ভেলা। এই ভেলাগুলো যেন আবার পাল তোলা! আশ্চর্য সুন্দর এমন আকাশ দেখলে মন ভালো হয়। তবে এবারের শরৎ মনে হয় কিছুটা নিজের বৈশিষ্ট্য হারিয়েছে। শরতের আকাশে মাঝে মধ্যে কালো মেঘ দেখা যাচ্ছে। আবার নিয়মিত বৃষ্টিপাত হচ্ছে। ভাদ্র-আশ্বিন এ দুই মাস নীল আকাশ, নদীর পাড় আর বাতাসের সুগন্ধে ছড়িয়ে যাবে শরৎ ঋতু। তবে শরৎ নিয়ে মানুষের এমন মুগ্ধতা কয়েক বছরের নয়, এ মুগ্ধতা হাজার হাজার বছরের। শরতের স্নিগ্ধতা চোখে জড়িয়ে তাই মহাকবি কালিদাস বলে ওঠেনÑ
‘প্রিয়তম আমার ঐ চেয়ে দেখ
নববধূর ন্যায় সুসজ্জিত শরৎকাল সমাগত।’
কালিদাসের দৃষ্টিতে শরৎকাল নববধূর মতো, এ যেন কবির আরেক প্রিয়া। অন্য দিকে মধ্যযুগের কবি আলাওল শরৎকালে দেখেছেন দম্পতিদের সুখের প্লাবন। ‘পদ্মাবতী’ কাব্যে তিনি লিখেছেনÑ
আইল শরৎ ঋতু নির্মল আকাশ
দোলায় চামর কাশকুসুম বিকাশ।
নবীন খঞ্জন দেখি বড়ই কৌতুক
উপজিত থামিনি দম্পতি মনে সুখ।
এই শরতের আকাশ দেখতে দেখতে আমার নিজের ভেতরেও কবি সত্তা জেগে উঠে। তবে আমি খ্যাতিমান কবিদের মতো কবিতা লিখতে পারি না। আমার মনের ভাব অপ্রকাশিতই থেকে যায়। তবুও আমি এই শরতের অপরূপ আকাশ দেখতে দেখতে পথ চলতে থাকি। মনের গহিনে কোনো এক অজানা সুখের শিহরণ এসে ভর করতে থাকে।
Ñ পূর্ব শিলুয়া, ছাগলনাইয়া, ফেনী


আরো সংবাদ