০৫ এপ্রিল ২০২০

সেই স্বপ্নগুলো

-

বহু দিন পর তোমার সাথে দেখা হবে। এই দিনটার অপেক্ষায় যেন কয়েকটা বছর কেটে যাবে পড়াশোনা আর কাজের ব্যস্ততায়। তুমি আমাকে না জানিয়ে হঠাৎ একদিন ইউনিভার্সিটির গেটের সামনে দাঁড়াবে আর আমি তোমার ফেরার খবর পেয়ে রোকেয়া হল থেকে কাঁটাবনের সেই শেষ না হওয়া লম্বা রাস্তায় ছুটে আসব। সেদিন সেই শেষ না হওয়া রাস্তাটা নিমেষেই শেষ হয়ে যাবে। শেষ হবে হবে মুহূর্তে অনেক দূর থেকেও আবছা তোমাকে দেখা যাবে। শেষ যেদিন দেখেছিলাম তোমার হাসিমাখা সেই মুখখানা, আবারো দুই চোখে ভেসে উঠবে। এতটা বছরের সব দুঃখ, শেষ হবে সব ক্লান্তি। তোমার সবচেয়ে কাছে পৌঁছে গেছি আমি। আমার দুই পা যেন আটকে যাবে। আমার সামনে তুমি আমার সেই আপন ছায়া। হয়তো বিশ্বাস করাতে পারব না নিজেকে। আমার হাত তোমাকে স্পর্শ করবে। তারপর তুমি আর আমি সেই কাঁটাবনের রাস্তা দিয়ে শহীদ মিনারের দিকে যাবো। হাজারো তরুণ-তরুণী ভিড় জমিয়ে গানের আসর জমাবে। যে গান সবার মন স্পর্শ করে। এরপর হাঁটতে হাঁটতে যাবো ইউনিভার্সিটির বড় লাইব্রেরি ঘরটায়। ভালোবাসার আদান-প্রদান যাকে দিয়ে শুরু সেই বই নিয়ে যাবো জানালার সবচেয়ে নিকটবর্তী টেবিলটায় যেখানে বসে হাজারো পাতা লিখেছি। তোমাকে ভালোবেসে নিজেকে বুঝতে শিখেছি, কঠিন কিছু স্বপ্ন বুনেছিÑ সেই স্বপ্নগুলো হয়তো সত্যি হতে পারত। হয়তো আমার খালি পা, নীল শাড়ির সেই আঁচল কাঁটাবনের সেই রাস্তাটাকে স্পর্শ করত। হয়তো লাইব্রেরির সেই জানালার পাশের একলা টেবিলে কাগজ-কলম আর বইয়ের ভিড়ে আমাকেও দেখা যেত। হয়তো দেখা সেই কঠিন স্বপ্নগুলো সত্যিও হতে পারত।
টমছম ব্রিজ, কুমিল্লা।


আরো সংবাদ

আত্মহত্যার আগে মায়ের কাছে স্কুলছাত্রীর আবেগঘন চিঠি (১৩৫৩০)সিসিকের খাদ্য ফান্ডে খালেদা জিয়ার অনুদান (১২৬০৬)করোনা নিয়ে উদ্বিগ্ন খালেদা জিয়া, শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল (৯৩১৫)ভারতে তাবলিগিদের 'মানবতার শত্রু ' অভিহিত করে জাতীয় নিরাপত্তা আইন প্রয়োগ (৮৪৯০)করোনায় নিশ্চিহ্ন হয়ে গেল ইতালির একটি পরিবার (৭৮৬৪)করোনার মধ্যেও ইরান-যুক্তরাষ্ট্র আরেক যুদ্ধ (৭১৪০)করোনায় আটকে গেছে সাড়ে চার লাখ শিক্ষকের বেতন (৬৯৩১)ইসরাইলে গোঁড়া ইহুদির শহরে সবচেয়ে বেশি করোনার সংক্রমণ (৬৮৯০)ঢাকায় টিভি সাংবাদিক আক্রান্ত, একই চ্যানেলের ৪৭ জন কোয়ারান্টাইনে (৬৭৬১)করোনাভাইরাস ভয় : ইতালিতে প্রেমিকাকে হত্যা করল প্রেমিক (৬২৯৬)