৩১ মার্চ ২০২০

সড়ক দুর্ঘটনায় শিক্ষকের হাত বিচ্ছিন্ন

সড়ক দুর্ঘটনায় শিক্ষকের হাত বিচ্ছিন্ন - ছবি : সংগৃহীত

শিক্ষাসফরে যাওয়ার পথে দাড়িয়ে থাকা একটি ট্রাকের পেছনে ধাক্কা দেয় বাস। এতে বাসের আরোহী ফাহিমা বেগম (৫০) নামের এক শিক্ষকের বাঁ হাতে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এছাড়া আহত হয়েছে অন্তত ১৫ শিক্ষার্থী। আহত ব্যক্তিরা ঢাকার কাকরাইলের উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজের কলেজ শাখার শিক্ষক ও শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে ১০ জনকে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার ঘোনাপাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। হাত বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া ওই শিক্ষককে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে বলে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক অসিত কুমার মল্লিক জানিয়েছেন।

ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা নুর মোহাম্মদ সিকদার জানিয়েছেন, ঢাকার কাকরাইলের উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজের কলেজ শাখার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানে সমাধিসৌধে শিক্ষাসফরে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার ঘোনাপাড়া এলাকায় বাসচালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা একটি ট্রাকের পেছনে ধাক্কা দেন। এতে উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজের পৌরনীতি বিভাগের শিক্ষক ফাহিমা বেগমের বাঁ হাত শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় এবং ১৫ শিক্ষার্থী আহত হয়।

জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা ও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে যান এবং হাসপাতালের আহত রোগীদের খোঁজখবর নেন।


আরো সংবাদ