২৪ জুলাই ২০২১
`

এক বার্গারের দাম ৫ লাখ, কী আছে তাতে?

এক বার্গারের দাম ৫ লাখ, কী আছে তাতে? - ছবি- সংগৃহীত

পৃথিবীর সবচেয়ে দামি বার্গারটি বানিয়েছেন ইউরোপের এক রন্ধনশিল্পী। দাম ৫,০০০ ইউরো। বাংলাদেশী মুদ্রায় যার দাম পাঁচ লাখ টাকারও বেশি। কিন্তু কেন এত দাম একটি বার্গারের? কী এমন আছে তাতে? আর এত দাম দিয়ে একটি বার্গারই খেতে যাবেন কেন?

নেদারল্যান্ডসের রবার্ট জান দে ভিন এই বার্গারটি তৈরি করেছেন। এক নামি দামি রেস্তরাঁর রন্ধনশিল্পী রবার্ট জানিয়েছেন, তার প্রাথমিক উদ্দেশ্য ছিল প্রতিদিন যে সাধারণ বার্গার সকলে খান, তাকেই একটু অন্য রকম চেহারা দেয়ার। আর সেটি করতে গিয়ে এই বার্গারে ভিন্ন কিছু উপকরণ ব্যবহার করেছেন তিনি। এর মধ্যে আছে বেলুগা ক্যাভিয়া, কাঁকড়া, স্প্যানিশ পলেতা ইবেরিকো (বিশেষ উপায়ে প্রস্তুত করা গোশত), সাদা ট্রাফল, ইংল্যান্ডের বিশেষ চিজ, সবচেয়ে দামি কফি দানা থেকে বানানো বার্বিকিউ সস ও অত্যন্ত দামি শ্যাম্পেন।

কিন্তু দাম তো না হয় পাঁচ লাখ টাকার ওপর। তাহলে কিনবেন কে? না, সেই টেনশনও করতে হয়নি এই রন্ধনশিল্পীর জন্য। ক্রেতাও জুটে গিয়েছে সহজেই। ওই দেশেরই রেমিয়া ইন্টারন্যাশনাল নামের সংস্থা কিনে নিয়েছে ওই দামি বার্গারটি। এটি খেয়েছেন ‘রয়্যাল ডাচ ফুড’ সংস্থার সভাপতি রোবের উইলেমস। বার্গার বিক্রি থেকে আয় করা টাকাটি দান করা হয়েছে এক স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠানকে।

কেন এই বার্গার বানালেন? রবার্ট জান দে ভিন নিজের ইনস্ট্রাগ্রামে বার্গারসহ ছবি দিয়ে লিখেছেন, ‘মহামারীর কারণে সব রন্ধন প্রতিযোগিতা বন্ধ। এই সময় মনমেজাজ বেশ খারাপ ছিল। নতুন কিছু একটা করতে চাচ্ছিলাম। তাই এই বার্গার তৈরি।’

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা



আরো সংবাদ