২৫ আগস্ট ২০১৯

ব্যবসার সফলতা নির্ভর করে পণ্যের গুণগত মান বিচারে : রোডান ও ফিল্ডস

ভিন দেশ
-

ক্যাটি রোডান ও ক্যাথি ফিল্ডস। তারা দুইজনেই ত্বকবিশারদ। তারা সারাবিশ্বে পরিচিতি পান তিন স্তরের ব্রণের চিকিৎসাপদ্ধতি তৈরির জন্য। আর তাদের এই পদ্ধতির নাম প্রো-অ্যাকটিভ। এর মানে সক্রিয়তা বা কার্যকারিতার পক্ষে। ক্যাটি রোডান ও ক্যাথি ফিল্ডসের কার্যক্রমে পারস্পরিক এতটাই মিল যে, বিশেষজ্ঞরা এখন তাদের এ দুই নামকে একত্রে রোডান+ফিল্ডস হিসেবে বোঝেন। স্ট্যানফোর্ড মেডিক্যাল স্কুলে শিক্ষকতা করেন দুইজনেই। তারা ত্বকবিশারদ হিসেবে কাজ করেন সপ্তাহে দুই দিন। তারা শুরুতে মানুষের, বিশেষ করে কিশোর-কিশোরীদের বয়স ধরে রাখার ক্রিম তৈরি করেন। এর মধ্য দিয়েই তাদের এ সংক্রান্ত কার্যক্রমের শুরু। তা তৈরি করে বাজারজাতও করেন। অনেক ব্যবহারকারী জানিয়েছেন, এ ক্রিম ব্যবহার করে কাক্সিক্ষত ফল পাওয়া গেছে। এমন মন্তব্য ছড়িয়ে পড়ে প্রায় সবখানে। এরপর থেকেই বিশ্বে তাদের পরিচিতি যেমন বাড়তে থাকে, তেমনি ক্রিম বিক্রিও বেড়ে যায় অনেক বেশি। তারা বেশি জনপ্রিয় হয়েছেন কিশোর-কিশোরীদের কাছেই।
এক পর্যায়ে রোডান+ফিল্ডস তাদের প্রো-অ্যাকটিভের স্বত্ব বিক্রি করে দেন। মনোযোগ বাড়ান ত্বকের যতেœ। আর তারপর থেকেই শুরু হতে থাকে ভালো বা কাক্সিক্ষত ফল আসা। বলা যেতে পারে তাদের এ পণ্য বাজারে প্রায় নতুন। এ সংক্রান্ত বিষয়ে তারা বলেন, আমাদের এ উদ্যোগ মানুষকে বা ব্যবহারকারীকে জীবন বদলে দেয়া ত্বক দেয়ার ইচ্ছাশক্তি থেকেই, যা আমাদের অনেক আগের চিন্তাভাবনা।
ব্রণ সম্বন্ধে ফিল্ডস বলেন, কিশোর-যুবতী বয়সে আমার মুখেও ব্রণ হয়েছিল, এমনকি ভারি বয়সেও ব্রণ হচ্ছে। আর রোডান বলেন, কিশোরী বয়সে আমার মুখে যখন ব্রণ দেখা দিত তখন আমি খুবই দুশ্চিন্তায় পড়ে যেতাম। দুশ্চিন্তা করতাম এ জন্য যে, এ ব্রণ কবে এবং কিভাবে দূর হবে তা ভেবে।
কোম্পানির ২৫ শতাংশ পার্টনারশিপের জন্য ১০০ কোটি ডলার দিয়েছে ইক্যুইটি ফার্ম টিপিজি ক্যাপিটাল (বেসরকারি)। তবে তাদের ব্যবসা রাতারাতি বড় হয়ে যায়নি। প্রথম দিকে তারা পণ্য বিক্রির চেষ্টা চালান ডিপার্টমেন্টাল স্টোরগুলোতে। নানাদিক ভেবে তারা ২০০২ সালে তাদের কোম্পানিটি বিক্রি করে দিলেও তারা তা আবার কিনে নেন ২০০৭ সালে। তারা মনে করেন, বিক্রয় প্রতিনিধিদের ভূমিকা এ ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ জন্য তাদের সাথে রোডান ও ফিল্ডস ব্যবসায়িক দিকগুলো এমনভাবে উপস্থাপন করেন, যাতে করে পুরুষের পাশাপাশি নারীরাও উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য মনোবল পায়। অর্থাৎ পুরুষের পাশাপাশি নারীরাও স্বাবলম্বী হতে চায়। তবে একথাও ঠিক যে, খুব অল্প সংখ্যক বিক্রয় প্রতিনিধি কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে পৌঁছতে পারেন বা স্বাবলম্বী হতে পারেন।
বলা হয়েছে, বছরে এক হাজার ডলারের কম আয় করে ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ বিক্রয় প্রতিনিধি। কোনো আয় হয়নি প্রায় ৪৪ শতাংশ বিক্রয় প্রতিনিধির। আর সর্বোচ্চ ২৫ হাজার ডলার আয় করে প্রায় ২২ শতাংশ প্রতিনিধি। বিপরীতে ৩০ হাজার ডলারের অধিক আয় করেন (বছরে) মাত্র এক শতাংশ শীর্ষ বেতনভোগী বিক্রয় প্রতিনিধি। বলা হয়েছে, নানা উদ্দেশ্য নিয়ে কাজে শামিল হতে চান সমাজের নানা স্তর থেকে আসা বিক্রয় প্রতিনিধি বা সেলস এজেন্টরা। অনেকে কাজের স্বাধীনতা ভোগ করতে চান দফতরে না এসেই। তাদের উদ্দেশে তারা বলেন, মাঠপর্যায়ে যেমন মন দিয়ে কাজ করতে হয়, তেমনি যথাযথ যোগাযোগ রাখতে হয় কোম্পানি দফতরের সাথে। কোম্পানির ভালো চেয়ে মন দিয়ে কাজ করলে এমনিতেই সফলতা আসে। যারা ভালো কর্মী বা বিক্রয় প্রতিনিধি তারা কাজের আগেই শ্রমঘণ্টা ঠিক করে নেন।
দিন যতই যাচ্ছে ততই বাড়ছে রোডান+ফিল্ডসের বিক্রয় প্রতিনিধির সংখ্যা। কোম্পানির বিক্রয় প্রতিনিধি প্রায় এক হাজার ৩৫০ জন ছিল ২০০৮ সালের দিকে। কয়েক বছরের মধ্যে তা বহুগুণ বৃদ্ধি পেয়ে হয় প্রায় দেড় লাখ। ৯ বছর আগে রাজস্ব এসেছিল প্রায় আড়াই কোটি ডলার। ২০১৫ সালে তা বেড়ে হয় প্রায় ৬৩ কোটি। এর দুই বছর পর তা দ্বিগুণেরও বেশি বেড়ে হয় প্রায় দেড় শ’ কোটি ডলার। তাদের দুইজনের সাথে সুর মিলিয়ে কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ডিয়ানে ডিয়েতজ বলেন, যে বাজারে প্রতিযোগী কম সেখানেই ব্যবসায়িক সম্ভাবনা বেশি। আর এ সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে পারলেই কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে পৌঁছানো সহজ হয়। তারা আরো পণ্য বাজারে ছাড়বেন বিভিন্ন বয়সীদের জন্য। এ প্রসঙ্গে ক্যাটি রোডান ও ক্যাথি ফিল্ডস বলেন, ব্যবসায় সফলতা নির্ভর করে পণ্যের গুণগত মান বিচারে। এর পেছনে থাকতে হয় ভালো লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য। তারা দুইজনে প্রায় তিন লাখ বিক্রয় প্রতিনিধি নিয়োগ দেন অস্ট্রেলিয়া, কানাডা ও যুক্তরাষ্ট্রে। বলা যেতে পারে, কোম্পানিটির অগ্রযাত্রা তাদের হাত ধরেই।
ক্যাটি রোডানের জন্ম ১৯৫৫/১৯৫৬ সালে। অর্থাৎ তার বয়স এখন প্রায় ৬৩/৬৪ বছর। থাকেন ক্যালিফোর্নিয়ার সান ফ্রানসিসকোতে। তার সম্পদের পরিমাণ প্রায় এক দশমিক ৫ বিলিয়ন ডলার। আর ক্যাথি এ ফিল্ডের জন্ম ১৯৫৮ সালে ক্যালিফোর্নিয়ার সান ফ্রানসিসকোতে।


আরো সংবাদ

জামালপুরের ডিসির নারী কেলেঙ্কারির ভিডিও ভাইরাল, ডিসির অস্বীকার (২৮৪৮১)কাশ্মিরে ব্যাপক বিক্ষোভ, সংঘর্ষ (১৫২৬৫)কিশোরীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন নোবেল (১৪৮৭৭)কাশ্মির প্রশ্নে ট্রাম্পের অবস্থান নিয়ে ধাঁধায় ভারত! (১৪৩৫০)৭০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ ভারতের অর্থনীতি (১২৩৭৩)নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৮ : দুঘর্টনার নেপথ্যে মোটর সাইকেল! (১১৪৭৩)নিজের দেশেই বিদেশী ঘোষিত হলেন বিএসএফ অফিসার মিজান (১১০৪৫)সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় ৪ বাংলাদেশী নিহত (১০৫১৬)কাশ্মির সীমান্তে পাক বাহিনীর গুলিতে ভারতীয় সেনা নিহত (৯৫০৯)চুয়াডাঙ্গায় মধ্যরাতে কিশোরীকে অপহরণচেষ্টা, মামাকে হত্যা, গণপিটুনিতে ঘাতক নিহত (৯৩৯৫)



mp3 indir bedava internet