২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

নারীর গর্ভে দামি বিড়াল!

আদুরে পারসিয়ান বিড়াল - ছবি : সংগৃহীত

তাইওয়ানের বিমান বন্দরে সাদা ব্যাগ হাতে এক গর্ভবতী নারীকে দেখা যায়। এরপর তিনি প্রবেশ করলেন ওয়াশরুমে। এ পর্যন্ত ঠিক আছে। কিন্তু সেখান থেকে আসার পর তাকে আগের চেয়ে বেশি মোটা দেখা যাচ্ছিল। বিষয়টি ধরা পড়ে বিমানবন্দরের নিরাপত্তকর্মীদের। সন্দেহ করার পর তারা ওই নারীকে চ্যালেঞ্জ করে বসেন। তারপর তাকে চেক করে যা পাওয়া গেল, তার জন্য প্রস্তুত ছিলেন না কেউই।


পরীক্ষার পর দেখা গেছে, গর্ভবতী ওই নারীর গর্ভটাই ভুয়া। গর্ভের ভান করে তিনি দুটি দামি বিড়াল পাচারের চেষ্টা করছিলেন। বিড়ালগুলো পারসিয়ান প্রজাতির।


তাইওয়ানের সংবাদমাধ্যম ‘অ্যাপল ডেলি’-র এক প্রতিবেদনে এ ঘটনা জানা গেছে। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, স্থানীয় বিখ্যাত ক্যাট ব্রিডার চ্যাং চিন-ই গত ৫ ফেব্রুয়ারি পুলিশে অভিযোগ করেছিলেন, তার দু’টি দামি পারসিয়ান বিড়াল চুরি গিয়েছে। এদের প্রত্যেকটির দাম ৩৩০০ মার্কিন ডলার বা বাংলাদেশি টাকায় সাড়ে সাতাশ লক্ষ টাকা।


ওই বিড়াল ব্যবসায়ী জানান, হংকং থেকে আগত এক নারী বিড়াল দু’টি কেনার জন্য তার কাছে কয়েকবার যাতায়াত করেছিলেন। তার সন্দেহ, এই নারীই চুরি করেছেন বিড়াল দুটিকে। তার বাড়ির বাইরের সিসিটিভি ফুটেজেও ওই নারীকে দেখা যায়। পুলিশ ফেসবুক ঘেঁটে সেই নারীকে খুঁজে বার করে। পরে তদন্তে দেখা যায়, বিমানবন্দরে ধরা পড়া ওই নারীই তিনি।


বিমানবন্দরে এ অভিনব কাণ্ডের পর ওই নারী আপাতত তাইওয়ান পুলিশের হেফাজতে রয়েছেন।

আরো পড়ুন : প্রভুভক্ত কুকুর উদ্ধার করলো মনিবের চুরি যাওয়া গরু

হোসেনপুর (কিশোরগঞ্জ) সংবাদদাতা, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:৩২

এক প্রভুভক্ত কুকুর সনাক্ত করলো মনিবের চুরি হয়ে যাওয়া প্রায় লাখ টাকা দামের গরুর চামড়া ও মাংস। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলার সিদলা ইউনিয়নের চর-বিশ্বনাথপুর গ্রামে।

জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার চর-বিশ্বনাথপুর গ্রামের কৃষক মোঃ মধু মিয়ার একটি গরু গোয়াল ঘর থেকে চুরি হয়ে যায়। শুক্রবার সকালে মধু মিয়া গোয়াল ঘরে গিয়ে দেখে তার গরুটির সাথে পোষা কুকুরটিও নেই। অনেক খোঁজাখুজির পরও গরু ও পোষা কুকুরের সন্ধান না পেয়ে হতাশ হয়ে বাড়ির আঙ্গিনায় বসে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন কৃষক মধু মিয়া।

এমন সময় হঠাৎ তার পোষা কুকুরটি একটি রক্তমাখা গরুর কান মুখে নিয়ে তার দিকে ছুঁটে আসে। বিষয়টি বাড়ির লোকজনেরও দৃষ্টি আকর্ষণ করে। এ সময় কুকুরটি তার মনিব মধু মিয়ার পড়নের লুঙ্গিতে কামড় দিয়ে সামনে যাওয়ার ইঙ্গিত করে। তখন মধু মিয়া বাড়ির লোকজন সাথে নিয়ে কুকুরের পিছনে পিছনে যেতে থাকেন।

৩ কিলোমিটার যাওয়ার পর এক সময় কুকুরটি নতুন বাজারে অবস্থিত একটি (কসাইয়ের) মাংসের দোকানে এসে মাংস, চামড়া ও দড়ি তছনছ করতে থাকে। তখন উপস্থিত লোকজনের সন্দেহ হলে তারা গরুর চামড়া ও দড়ি দেখে মধু মিয়ার চুরি যাওয়া গরুর বলে সনাক্ত করেন।

খবর পেয়ে হোসেনপুর পৌর মেয়র আব্দুল কাইয়ুম খোকন ও সিদলা ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ সিরাজ উদ্দিন ঘটনাস্থল থেকে মধু মিয়ার চুরিকৃত ওই গরুর চামড়া ও দড়ি উদ্ধার করে ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজের জিম্মায় রাখেন এবং সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দেন।

এদিকে প্রভুভক্ত কুকুরের এমন নাটকীয় কায়দায় চুরি যাওয়া গরুর সন্ধান দেয়ার বিষয়টি এলাকায় দারুণ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে। ওই কুকুরটিকে এক নজর দেখতে মধু মিয়ার বাড়িতে ভিড় করছেন উৎসুক জনতা।


আরো সংবাদ