২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

স্ত্রীয়ের গালে দাড়ি, কী করবে স্বামী!

স্ত্রীয়ের গালে দাড়ি, কী করবে স্বামী! - ছবি : সংগৃহীত

অভিযোগ ছিল স্ত্রীয়ের গালে দাড়ি রয়েছে। স্ত্রীয়ের কণ্ঠস্বরও কমনীয় নয়। সুরেলা কণ্ঠস্বরের স্ত্রী পাবেন ভেবেও , পেয়েছেন পুরুষোচিক কণ্ঠস্বরের নারীকে। এ নিয়ে প্রতারিত হয়েছেন বলে ক্ষোভ ছিল ভারতের আহমদাবাদের এক ব্যক্তির মনে। আর তার জের ধরেই প্রতারণার দাবি তুলে ডিভোর্স ফাইল করেন এই ব্যক্তি।

দাবি করা হয়, সেই ব্যক্তি বিয়ের সময়ে জানতেন তা তার হবু স্ত্রীয়ের গালে দাড়ি রয়েছে, বা মহিলার কণ্ঠস্বর পুরুষোচিত। তিনি জানান, প্রথম যখন হবু স্ত্রীকে দেখেন তখন তার মুখ ঘোমটায় ঢাকা ছিল। আর প্রথার বাইরে গিয়ে ঘোমটা তুলে তাই হবু স্ত্রীয়ের মুখ দেখতেও পাননি তিনি। আর জানতে পারেননি এই সমস্ত বিষয়।

তবে , আদালত আমদাবাদের নিবাসী ওই ব্যক্তির সেই দাবি খারিজ করে দেয়। ব্যক্তির অভিযোগের প্রেক্ষাপটে তার স্ত্রী আদালতকে জানিয়েছে, কিছু হরমোনগত সমস্যার জন্য তার গালে এরকম দাড়ি। এটি চিকিৎসার মাধ্যমেও তিনি সারিয়ে তুলতে পারেননি। পাশাপাশি জানান, বাকি সমস্ত মিথ্যা অভিযোগ করে তাকে শ্বশুরবাড়ির থেকে তাড়িয়ে দেয়ার ফন্দি করছেন তার স্বামী। নারীর বক্তব্য শুনে, আদালত এই ডিভোর্সের মামলা খারিজ করে দেয়। ওই নারীর স্বামী আর কোনো রকমের আবেদন করেননি এই মামলা ঘিরে।

আরো পড়ুন :
ভারতে আরেক ধর্ষক ধর্মগুরু! নিখোঁজ আশ্রমের ৬০০ নারী!

দু'বছর আগে শনি ধামে এক মহিলাকে ধর্ষণের অভিযোগ রয়েছে এই ধর্মগুরুর বিরুদ্ধে - ছবি : সংগৃহীত
আশারাম বাপুর পর ভারতজুড়ে হইচই ফেলেছিল ডেরা সচ্চা সওদার প্রধান গুরমিত সিংয়ের কাণ্ডকারখানা। স্বঘোষিত বাবা 'মেসেঞ্জার অফ গড' হয়ে প্রতারণা, ধর্ষণ, যৌন নির্যাতন, খুন এমন নানা কাণ্ডে অভিযুক্ত এবং দোষী প্রমাণিত হওয়ার পর আপাতত ২০ বছরের জন্য কারাবাসে রয়েছেন। এমনই বর্ণময় ও বিতর্কিত স্বঘোষিত 'বাবা'র তালিকায় আরো এক নতুন সংযোজন দাতি মহারাজ।

রাজস্থানের অলওয়াসে দাতি মহারাজের আশ্রম থেকে নিখোঁজ প্রায় ৬০০ জন নারী। দু'বছর আগে শনি ধামে এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগ রয়েছে এই ধর্মগুরুর বিরুদ্ধে। অভিযোগকারিণী দাবি করেছিলেন, মহারাজের আশ্রমে একাধিক নারীর সঙ্গে হামেশাই যৌন নির্যাতনের ঘটনা ঘটছিল। সম্প্রতি এই অভিযোগ দায়েরের পর থেকেই পলাতক দাতি মহারাজ।

রাজস্থান পুলিশ সূত্রে খবর, ওই ধর্মগুরুর আশ্রমে অন্তত ৭০০ জন নারী ছিলেন। তাদের ১০০ জনকে উদ্ধার করা গেলেও বাকিদের খোঁজ মিলছে না। তদন্তকারীদের অনুমান, নিখোঁজদের সঙ্গে অপরাধ জগতের যোগ থাকতে পারে। আশ্রমিকদের অপহরণের সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিচ্ছে না পুলিশ।

দাতি মহারাজকে হাতে পেলেই আশ্রমের কন্যাদের খোঁজ পাওয়া সম্ভব বলে মনে করা হচ্ছে।

 


আরো সংবাদ




Hacklink

ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme