১৪ নভেম্বর ২০১৮

অ্যারিজোনার কেএফসি দোকান থেকে মেক্সিকোর এক শোবার ঘর পর্যন্ত 'মাদক সুড়ঙ্গ'

সন্দেহ করা হচ্ছে মেক্সিকো থেকে এই সুড়ঙ্গপথে অবৈধ মাদক পাচার করা হয় আমেরিকায় -

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনায় এক পুরনো কেএফসি দোকান থেকে মেক্সিকো পর্যন্ত মাদক পাচারের একটা গোপন সুড়ঙ্গ খুঁজে পেয়েছে আমেরিকান কর্তৃপক্ষ।

অ্যারিজোনার সান লুই এলাকার পুরনো ওই রেস্তোঁরা ভবনের মাটির নিচের একটি ঘর থেকে ৬০০ ফুট দীর্ঘ সুড়ঙ্গটি নিয়ে যাওয়া হয়েছে সীমান্তের তলদেশ দিয়ে মেক্সিকোয়।

কর্তৃপক্ষ সুড়ঙ্গটি খুঁজে পেয়েছে গত সপ্তাহে এবং দক্ষিণ অ্যারিজোনার ওই ভবনের মালিককে গ্রেফতার করেছে। কেএফসির দোকানটি উঠে গেছে আগেই।

ভবনের মালিক সন্দেহভাজন আইভান লোপেজকে পুলিশ গাড়ি থামিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের পর সুড়ঙ্গটি সম্পর্কে পুলিশের কাছে গোপন তথ্য আসে।

সুড়ঙ্গটি ব্যবসা বন্ধ হয়ে যাওয়া কেএফসির দোকান থেকে মেক্সিকোর একটি বাড়ি পর্যন্ত নেওয়া হয়েছে।
রাস্তায় লোপেজের গাড়ি থামিয়ে পুলিশ যখন তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছিল তখন পুলিশের কুকুর লোপেজের গাড়িতে রাখা দুই বাক্স ভর্তি অবৈধ মাদকের দিকে পুলিশকে টেনে নিয়ে যায়। ওই দুই বাক্সের মাদকের বাজার দর ১০ লাখ মার্কিন ডলার।

তদন্তকারীরা বলছেন বাক্স দুটিতে ছিল ১১৮ কিলোগ্রাম মেটাঅ্যাম্ফিটামিন, ৬ গ্রাম কোকেন, ৩ কেজি ফেন্টানিল মাদক এবং ২১ কেজি হেরোইন।

গোয়েন্দারা লোপেজের বাসা এবং তার বন্ধ হয়ে যাওয়া কেএফসির দোকানে পুলিশ যখন মাদকের খোঁজে তল্লাশি চালায় তখন তারা বন্ধ হয়ে যাওয়া রেস্তোঁরার রান্নাঘরের ভেতর ওই সুড়ঙ্গের মুখ খুঁজে পায়।

এই সুড়ঙ্গপথ ২২ ফুট গভীর, ৫ ফুট উঁচু এবং ৩ ফুট চওড়া। আমেরিকান কর্মকর্তারা বলছেন এই সুড়ঙ্গের অন্য মুখটির গোপন দরোজাটি রয়েছে মেক্সিকোর এক বাসায় একটি ঘরের খাটের নিচে।

ধারণা করা হচ্ছে, অবৈধ মাদকের চালান এই সুড়ঙ্গ থেকে দড়ি দিয়ে টেনে তোলা হতো।

তবে এটাই প্রথম এধরনের সুড়ঙ্গ নয়। দুই বছর আগে ক্যালিফোর্নিয়ায় সান ডিয়েগো কর্তৃপক্ষ ২,৬০০ ফুট লম্বা একটি সুড়ঙ্গ খুঁজে পেয়েছিল।

কর্তৃপক্ষ বলছে সেটাই ছিল এ যাবৎ খুঁজে পাওয়া অন্যতম সবচেয়ে দীর্ঘ মাদক পাচার সুড়ঙ্গ - যার মধ্যে দিয়ে 'নজিরবিহীন পরিমাণ' কোকেন ও মারিওয়ানা পাচার করা হয়।

শুধুমাত্র জুলাই মাসেই আমেরিকার সীমান্ত টহল কর্তৃপক্ষ দেশের বিভিন্ন সীমান্ত চৌকিতে ১৫ কেজি হেরোইন, ২৪ পাউন্ড কোকেন, ৩২৭ কেজি মেটাঅ্যাম্ফিটামিন এবং ১৯০০ কেজি মারিওয়ানা জব্দ করেছে।


আরো সংবাদ