২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

দাবানলে ২ লাখ ৯০ হাজার একর জমি ভস্মিভূত, ১৫০০ স্থাপনা পুড়ে ছাই

দাবানলে ২ লাখ ৯০ হাজার একর জমি ভস্মিভূত, ১৫০০ স্থাপনা পুড়ে ছাই - সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় ছড়িয়ে পড়া দাবানল শিগগিরই নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছে স্থানীয় বন ও আগুন নিয়ন্ত্রণ বিভাগ। ঝড়ো বাতাস, অনাবৃষ্টি, আর তীব্র দাবদাহে বিধ্বংসী রূপ নিয়েছে ভয়াবহ এই দাবানল। কয়েকদিন ধরে টানা আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে বিস্তীর্ণ বনাঞ্চলসহ বহু ঘরবাড়ি।

ক্যালিফোর্নিয়ার ইতিহাসের ভয়াবহ এ দাবানলে এ পর্যন্ত ২ লাখ ৯০ হাজার একরের বেশি ভূমি পুড়ে গেছে। প্রাণ হারিয়েছে অন্তত সাতজন। গেলো কয়েকদিনের চেষ্টায় মাত্র এক তৃতীয়াংশ দাবানল নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছে দমকলকর্মীরা। তাদের প্রত্যাশা ছিলো এ মাসের মাঝামাঝিতে দাবানল নিয়ন্ত্রণে আনার। কিন্তু অনাবৃষ্টি, তাপমাত্রা বৃদ্ধি এবং ঝড়ো বাতাসের কারণে সে লক্ষ্য অর্জন সম্ভব হচ্ছে না।

আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আনতে আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত লাগতে পারে বলে জানিয়েছে অগ্নিনির্বাপন কর্তৃপক্ষ। দাবানলে এ পর্যন্ত দেড় হাজারের বেশি স্থাপনা পুড়ে গেছে। সরিয়ে নেয়া হয়েছে কয়েক হাজার বাসিন্দাকে। আগুন নিয়ন্ত্রণে ১৪ হাজার দমকলকর্মী কাজ করছে। তাদের সহায়তায় ক্যালিফোর্নিয়ায় পৌঁছেছেন অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের একদল অভিজ্ঞ দমকলকর্মী।

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার বিশাল এলাকাজুড়ে দাবানল শুধু ছড়িয়েই পড়েনি। পৃথকভাবে সৃষ্ট দুটি দাবানল এখন একসাথে মিলিত হয়েছে। ‘মেনডোসিনো কমপ্লেক্স ফায়ার’ নামে এ দাবানলকে ‘ইতিহাসের বৃহত্তম দাবানল’ বলে আখ্যায়িত করেছেন কর্মকর্তারা। দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে পড়া আগুনে পুড়ছে জমি ও ছাই হচ্ছে বনভূমি। দগ্ধ এলাকার আয়তন লস এঞ্জেলেসের প্রায় সমান। 


আরো সংবাদ