২০ আগস্ট ২০১৯

হুমকি, উত্তেজনা, ফোনালাপ অতঃপর সমঝোতা

-

কুর্দি ইস্যুতে দুই দেশের সম্পর্ক অনেক দিন ধরেই শীতল। যুক্তরাষ্ট্র কুর্দিদের পৃষ্ঠপোষকতা করে, আর তুরস্ক কুর্দি ‘সন্ত্রাসীদের’র দমনে মরিয়া। এরই মধ্যে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প হুমকি দিয়েছিলেন সিরীয় কুর্দিদের ওপর তুর্কি হামলা হলে তিনি তুরস্কের অর্থনীতি ধ্বংস করে দেবেন। যদিও একদিন যেতে না যেতেই সমঝোতা হয়ে গেল দুই রাষ্ট্রনেতার মধ্যে।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান বলেছেন, তার দেশ উত্তর সিরিয়ায় একটি নিরাপত্তা অঞ্চল গড়ে তুলবে, যেমনটা বলেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান। মঙ্গলবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাথে টেলিফোন আলাপের পর এমনটাই বলেছেন তিনি।

এরদোগান বলেছেন, সিরিয়া ইস্যুতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সাথে তার খুবই ‘ইতিবাচক আলাপ’ হয়েছে। যেখানে সিরিয়ার তুর্কি সীমান্ত অঞ্চলে ৩২ কিলোমিটারের একটি নিরাপত্তা অঞ্চল গড়ে তোলার ব্যপারে সম্মত হয়েছেন দুই নেতা।

সিরিয়া নিয়ে দুই দেশের সাম্প্রতিক উত্তেজনার মধ্যেই এই সমঝোতার খবরটি এলো। একদিন আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছিলেন, সিরিয়ার কুর্দিদের ওপর হামলা হলে তিনি তুরস্কের অর্থনীতি ধ্বংস করে দেবেন।

এরপরই দুই নেতার টেলিফোন আলাপের খবরটি প্রকাশ করলো তুরস্ক। প্রেসিডেন্ট এরদোগান এই ফোনালাপকে ‘একটি ঐতিহাসিক বোঝাপড়া’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। তবে তিনি এ ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু বলেননি।

সিরিয়া থেকে যুক্তরাষ্ট্র তাদের সৈন্যদের ফিরিয়ে নেয়ার ঘোষণা দেয়ার পরই উত্তেজনার শুরু। ওই অঞ্চলটি কারা নিয়ন্ত্রণ করবে এবং সেখানে অবস্থানরত কুর্দি যোদ্ধাদের ভবিষ্যত কী হবে তাই নিয়ে ছিলো উত্তেজনা। তুরস্ক যে কোন মূল্যে তার স্বার্বভৌমত্বের জন্য হুমকি হয়ে ওঠা কুর্দি সশস্ত্র গোষ্ঠিকে দমন করতে মরিয়া। অন্য দিকে কুর্দিদের পৃষ্ঠপোষকতা করে যুক্তরাষ্ট্র। তবে দুই নেতার ফোনালাপের পর যে বিষয়টি নিয়ে উত্তেজনা কমে আসবে তা অনেকটাই নিশ্চিত।

ন্যাটো সদস্য দুটি দেশের মধ্যে কুর্দিদের ‘ওয়াইপিজি’ সশস্ত্র গোষ্ঠি নিয়ে বিরোধ দীর্ঘদিনের। তুরস্ক ওয়াইপিজিকে ‘সন্ত্রাসী’ সংগঠন হিসেবে আখ্যা দিয়েছে। গত বছরের শুরুতে সিরিয়ার আফরিনে তারা অভিযানও চালিয়েছে ওয়াইপিজি যোদ্ধাদের বিরুদ্ধে। আঙ্কারা মনে করে ওয়াইজিপি কুর্দিদের সশস্ত্র সংগঠন পিকেকের একটি শাখা। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্র আইএসবিরোধী যুদ্ধে ওয়াইপিজিকে মিত্র হিসেবে গ্রহণ করেছে।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই তুরস্ক ওয়াইপিজির বিরুদ্ধে সিরীয় ভূখণ্ডে অভিযান চালানোর পরিকল্পনা করছে। এ নিয়ে দুই দেশের মধ্যে নতুন করে উত্তেজনা দেখা দেয়।


আরো সংবাদ

bedava internet