২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

কুর্দি ইস্যুতে মুখোমুখি যুক্তরাষ্ট্র-তুরস্ক

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান - ফাইল ছবি

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আঙ্কারাকে সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের পর কুর্দিদের আক্রমণ করা হলে তুরস্কের অর্থনীতি ধ্বংস করে দেয়া হবে। এক টুইটবার্তায় রোববার ডোনাল্ড ট্রাম্প এ বলেন।

ট্রাম্প বলেন, কুর্দিদের আক্রমণ করা হলে তুরস্কের অর্থনীতি ধ্বংস করে দেয়া হবে। যখন ২০ মাইল নিরাপত্তা অঞ্চল তৈরি নিয়ে দাবি উঠেছে, তখনই এমন হুশিয়ারি দিলেন ট্রাম্প। তবে ট্রাম্প নিরাপত্তা অঞ্চলের বিষয়টি এড়িয়ে গেছেন।

এদিকে তুরস্ককে উত্তেজিত না করতে কুর্দিদের প্রতি আহ্বান জানান ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেন, তুরস্ককে উত্তেজিত করা যাবে না।

ট্রাম্প বলেন, সিরিয়া থেকে উগ্রপন্থী আইএস যোদ্ধাদের ধ্বংস করার মার্কিন নীতিতে রাশিয়া, ইরান ও সিরিয়া বড় ধরনের লাভবান হয়েছে। আমরাও লাভবান হয়েছি, আমাদের সেনা দেশে ফিরিয়ে এনে। এরপর তিনি টুইটে লেখেন- ‘শেষ যুদ্ধ বন্ধ করুন’।

এদিকে ডোনাল্ড ট্রাম্পের এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগানের মুখপাত্র ইব্রাহিম কালিন এক টুইটবার্তায় বলেন, সিরিয়ান কুর্দিদের সাথে পিকেকে’কে মিলিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প সমীকরণে বড় ধরনের ভুল করেছেন। এই সংগঠনটি যুক্তরাষ্ট্রের সন্ত্রাসী তালিকায় রয়েছে এবং এর শাখা পিওয়াইডি/ওয়াইপিজে।

ট্রাম্পের উদ্দেশে ইব্রাহিম কালিন বলেন, সন্ত্রাসী আপনার মিত্র ও অংশীদার হতে পারে না। তুরস্ক আশা করছে- মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আমাদের কৌশলগত অংশীদার এবং সন্ত্রাসী প্রচারণার ছায়া হতে পারে না।

এদিকে সিরিয়া সীমান্তে নতুন করে আরও সেনা ও সামরিক সরঞ্জাম বৃদ্ধি করেছে তুরস্ক।


আরো সংবাদ