১৬ অক্টোবর ২০১৮

তুরস্ককে সর্বাধুনিক 'এফ-৩৫' যুদ্ধবিমান দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

তুরস্ককে সর্বাধুনিক 'এফ-৩৫' যুদ্ধবিমান দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র - সংগৃহীত

আরো দুটির বেশি সর্বাধুনিক 'এফ-৩৫' যুদ্ধবিমান পাচ্ছে তুরস্ক। আগামী বছর যুক্তরাষ্ট্র এ বিমান সরবরাহ করবে বলে জানিয়েছেন এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান প্রকল্পের প্রধান। 

প্রকল্পের প্রধান ভাইস অ্যাডমিরাল ম্যাট উইনটার যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ায় সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, তুরস্কের জন্য এফ-৩৫ তৈরি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আগামী বছরের মার্চ মাসের মধ্যে দুটির বেশি বিমান সরবরাহ করা সম্ভব হবে।

মোট ১০০টি এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান কেনার চুক্তি করেছিল তুরস্ক। তবে সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্কের মধ্যে উত্তেজনার ফলে এ বিমান সরবরাহ করা নাও হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ বিষয়ে উইনটার বলেন, চুক্তি অনুযায়ী বিমান সরবরাহ করা হবে। এক্ষেত্রে কোনো পরিবর্তনের সুযোগ নেই।

বর্তমান সময়ের সবচেয়ে কার্যকরি যুদ্ধ বিমানের মধ্যে প্রথমেই নাম আসে এফ-৩৫ এর। এর গতি শব্দের গতির চেয়ে বেশি। এটি রাডারকে ফাঁকি দিতে সক্ষম। উচ্চ প্রযুক্তির ক্যামেরার মাধ্যমে পাইলট ককপিটে থেকেই বিমানের নিচে ভূমি পর্যন্ত সবকিছুর ছবি ৩৬০ ডিগ্রি কোণে দেখতে পারবেন।

তুরস্ক এফ-৩৫ লাইটনিং ২ কার্যক্রমের অন্যতম অংশীদার। তুরস্কের প্রতিরক্ষা শিল্প ৫ম প্রজন্মের এফ-৩৫ উৎপাদনের ক্ষেত্রে সক্রিয় ভূমিকা রেখেছে। তুরস্ক ১৯৯৯ সাল থেকে নয়টি দেশের একটি সংস্থা যারা এফ-৩৫ যৌথ স্ট্রাইক ফাইটার প্রকল্পের একটি অংশীদার। এফ-৩৫ উন্নত দক্ষতা এবং প্রযুক্তির সাথে বৈশ্বিক নিরাপত্তার উন্নতির জন্য একটি নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করবে।

তুরস্ক ২০২০ সালের মধ্যে ৬টি এফ-৩৫ বিমান পেতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে। এই ৬টি বিমানের মধ্যে ৪টি যুক্তরাষ্ট্রে ২০২০ সাল পর্যন্ত অবস্থান করবে এবং অপর ২টি তুরস্কের পূর্বাঞ্চলীয় মালাতায়া বিমান ঘাঁটিতে রাখা হবে। তুরস্ক ২০২৪ সালের মধ্যে প্রথম ৩০টি বিমানের ২৪টি পাবে। দেশটি প্রাথমিকভাবে ১০টি এফ-৩৫ বিমানের অর্ডার দিয়েছে।


আরো সংবাদ