২২ জুলাই ২০১৮

তুরস্কের নতুন মন্ত্রিসভায় এরদোগানের চমক

তুরস্কের নতুন মন্ত্রিসভায় এরদোগানের চমক - সংগৃহীত

তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান নতুন প্রেসিডেন্সি ব্যবস্থায় ১৬ সদস্যের নতুন মন্ত্রিসভার নাম ঘোষণা করে বলেছেন, নতুন এই প্রশাসন ব্যবস্থাটি নির্বাহী শাখাকে আরো দক্ষ করে তুলবে।

নিবার্হী প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেয়ার পর সোমবার সন্ধ্যায় তিনি নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদের নাম ঘোষণা করেন।

এরদোগান তার ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসাবে ফুয়াত ওকাতায়’র নাম ঘোষণা করেন। পূর্ববর্তী সরকারে তিনি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর দুর্যোগ এবং জরুরি ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের প্রধান।


এদিকে, পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভাসোগলু এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলিমান সোয়োলুকে তাদের আগের পদেই বহাল রাখা হয়েছে।

নতুন মন্ত্রিসভার সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন হচ্ছে-সাবেক জ্বালানি মন্ত্রী বেরাত আলবায়েরাক পেয়েছেন ট্রেজারি এবং অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব এবং সেনা প্রধান (প্রধান স্টাফ জেনারেল) হুলুসি আকার নতুন মন্ত্রিসভায় প্রতিরক্ষা মন্ত্রী হিসাবে সরকারে যোগদান করেছেন।

নতুন ব্যবস্থায় প্রথম প্রেসিডেন্সিয়াল ডিক্রির মাধ্যমে মন্ত্রিপরিষদে সদস্যের সংখ্যা ২৫ থেকে কমিয়ে ১৬ করা হয়েছে। তাদের মধ্যে সাতটি মন্ত্রণালয় এই ১৬টি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

নতুন সরকারের অধীনে প্রথম মন্ত্রিসভার বৈঠক শুক্রবার অনুষ্ঠিত হবে।

নতুন ব্যবস্থায় ৬৪ বছর বযসী এরদোগান রাষ্ট্রীয় নির্বাহী শাখাকে নেতৃত্ব দিবেন এবং পার্লামেন্টের অনুমোদন ছাড়াই ভাইস প্রেসিডেন্ট, মন্ত্রী, উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তা এবং ঊর্ধ্বতন বিচারপতিদের নিয়োগ কিংবা বরখাস্ত করার অধিকারী হবেন।

এছাড়াও, পার্লামেন্ট ভেঙে দেওয়ার ক্ষমতা সহ কার্যনির্বাহী আদেশ জারি করা এবং জরুরি অবস্থা আরোপ করার ক্ষমতা পাবেন প্রেসিডেন্ট। নতুন ব্যবস্থায় প্রধানমন্ত্রী পদের বিলুপ্তি ঘটেছে।

তুরস্কের নতুন মন্ত্রিসভায় অন্য দলের সদস্যদের নেয়া হবে : এরদোগান

ডেইলি নিউজ, ০৮ জুলাই ২০১৮

তুরস্কের নতুন নির্বাহী প্রেসিডেন্ট পদ্ধতির প্রথম মন্ত্রিসভায় ক্ষমতাসীন জাস্টিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টি (একেপি) সদস্য ছাড়াও অন্য পার্টির সদস্যদের সমন্বয়ে গঠিত হবে বলে জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান। কাল সোমবার প্রথম প্রেসিডেন্সিয়াল আদেশ জারি করার মাধ্যমে সরকার গঠন করা হবে বলে তিনি জানিয়েছন।

শুক্রবার আঙ্কারায় প্রাদেশিক প্রধানদের সভায় এরদোগান বলেন, ‘আমাদের সংগঠনসমূহ, পৌরসভা ও প্রাদেশিক সংগঠনসমূহ এবং মন্ত্রিরা আগের মতোই একই হবে না। নতুন মন্ত্রিসভায় আমরা একে পার্টির সদস্যদের বাইরে অন্য দলের সদস্যদেরও অন্তর্ভুক্ত করব।’ ৯ জুলাই তার শপথ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তুর্কি রাজনীতিতে একটি নতুন যুগের সূচনা করবে উল্লেখ করে এরদোগান জানান, মন্ত্রিসভা গঠনের জন্য একই দিনে তিনি তার প্রথম নির্বাহী আদেশ জারি করবেন।

এরদোগান বলেন, ‘মন্ত্রিসভায় একে পার্টির সদস্য ভিন্ন অন্যদের অন্তর্ভুক্তি বস্তুনিষ্ঠতা নিশ্চিত করবে এবং এতে মন্ত্রীরা স্বজনপ্রীতি ছাড়াই স্বাধীনভাবে তাদের কাজ করতে পারবেন।’

 


আরো সংবাদ