২৫ মে ২০১৯

বড়াই

-

কিছু কিছু সাধারণ ঘটনা ঘটলেও আনন্দে চোখে পানি চলে আসে। এই মুহূর্তে অতি সাধারণ একটি ঘটনায় আমার চোখে পানি চলে এসেছে। ছোট মামা আমেরিকা থেকে আমার জন্য একখানা আইফোন পাঠিয়েছেন। এমন একটি দামি জিনিস মামার কাছে কখনো চাওয়ার ছিল না। ওইদিন ফোন কলে জাস্ট বললেন, ‘তোর কি লাগবে ভাগ্নে?’
হেসে বললাম, ‘তোমার যা ইচ্ছে, তা পাঠিয়ে দিও।’
সেই যা ইচ্ছে তা পাঠানো জিনিসটা যে আস্ত একখানা আইফোন হবে, কে ভেবেছে! আইফোন পেয়ে মামাকে মনে মনে ধন্যবাদ জানালাম। নতুন ঝকঝকে আইফোনটি হাতে নিয়ে প্রথমে মনে পড়ল জাকিরকে। জাকির আমার ফেসবুক ফ্রেন্ড। বাড়ি খুলনায়। এই ছেলের ভয়াবহ কিসিমের একটি রোগ আছে, বড়াই রোগ। নিত্যনতুন পোশাক, জুতার ছবি আর অভিজাত সব রেস্টুরেন্টে গিয়ে দামি খাবারের সামনে বসে ছবি তুলে ফেসবুকে আপলোড করাটা তার নিত্যদিনের রোগ। এই রোগের আসল ব্যাকটেরিয়া হচ্ছে বড়াই। ফেসবুকে এ ধরনের পোস্ট হচ্ছে মূলত বড়াই দেখানো।
জাকির নামে এই ছেলের আরো একটি বড়াই ফেসবুকে লক্ষ করি। তা হলো মোবাইল বড়াই। কয়েক মাস পরপর সে নতুন মোবাইল কিনে ফেসবুকে সবাইকে দেখায় আর ক্যাপশনেও লিখে দেয় মোবাইলের দাম কত আর কোন কোম্পানির। ওর এসব বড়াই দেখে আমি অনেক দিন থেকে বিরক্ত।
যেহেতু আজ থেকে আমি একটি আইফোনের মালিক, তাই প্রথমে ভাবলাম জাকিরের মতো আমিও ফেসবুকবাসীর মধ্যে আমার এই গুড নিউজ ছড়িয়ে দেবো। সন্ধ্যার আগেই উক্ত কাজটি সমাধা করলাম। ফেসবুকে পোস্ট করেই দিলাম আমার আইফোনের ছবি আর ক্যাপশনে লিখলাম এই সাত রাজার ধন কে কোন দেশ থেকে পাঠিয়েছেন।
এমন ঘটনা পোস্ট করার পরপরই অজস্র লাইক-কমেন্টের বন্যা। নেগেটিভ কিছু কমেন্টও এসেছে। তার মধ্যে প্রিয় বন্ধু শুভ লিখেছে, ‘আইফোন আমাদেরকে দেখিয়ে বড়াই দেখাস?’
মাইন্ড করার মতো শুভর কমেন্ট, কিন্তু আমি মাইন্ড করিনি। হোক এটা আমার বড়াই দেখানো। জাকির ছেলেটা কম দামের মোবাইল কিনে ফেসবুকে বড়াই দেখাতে পারে, আমি কেন আইফোনের মতো দামি জিনিসের মালিক হয়েও বড়াই দেখাতে পারব না!

২.
সন্ধ্যার আগে আব্বা হাতে টাকা ধরিয়ে দিয়ে বললেন, ‘বাজারে যা। আমার হাঁপানির ওষুধ লাগবে।’
বাধ্য ছেলে হয়ে আব্বার জন্য ওষুধ কিনতে বাজারে রওনা দিলাম। আমার পকেটে ছোট মামার পাঠানো আইফোন।
ফিরে আসার পথেই বিপদ। সন্ধ্যার আবছায়ায় মুখোশধারী কারা যেন আমার সম্মুখে দাঁড়ায়। হাতে অস্ত্র।
‘তোমরা কারা?’
‘আমরা কারা সেটা জানতে হবে না। আইফোন দে।’
‘মানে? কিসের আইফোন?’
‘ভং ধরিস না। ফেসবুকে কি ছেড়েছিস? আমরা কী ফেসবুক চালাই না! সব দেখেছি। মামা আইফোন পাঠাইছে যে, সেটা বের কর।’
‘না না। ওটা দেয়া যাবে না।’
মুখোশধারী একজন ঠাস করে চড় মারল আমার গালে। বাকিরা মিলে ধস্তাধস্তি করে আমার পকেট থেকে কেড়ে নিলো স্বপ্নের আইফোন। সবাই একে একে দৌড়ে পালাল।
বাসায় এসে এ ঘটনা কাউকেই জানাইনি। এটা হচ্ছে বড়াইয়ের খেসারত। ফেসবুকে এই ব্যাপারটা জানিয়ে বড়াই না দেখালে আজ এই বিপদ আসত না।
আয়নার দিকে তাকালাম। যে হারামজাদা আমাকে ঠাস করে চড় মেরেছে, সে চড়ের লাল দাগ আমার গালে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে। চড়ও খেলাম, আইফোনও হারালাম।


আরো সংবাদ

বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক আরো শক্তিশালী হবে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী মধ্যপ্রাচ্যে আরো সেনা পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র যে কারণে কমে গেল মমতার আসন প্রথম ব্রিটিশ মুসলিম প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন সাজিদ জাভিদ! ফুলতলা উপজেলা সমিতির ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত ছাত্র জমিয়ত বাংলাদেশের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত সমাজে জ্ঞানের গুরুত্ব কমে গেছে : সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী শেখ হাসিনা স্বপ্ন দেখেন এবং তা বাস্তবায়ন করেন : পানিসম্পদ উপমন্ত্রী ৭টি অবকাশকালীন বেঞ্চ গঠন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি জিনাত আরা ভ্যাকেশন জজ অধ্যাপক হারুন সভাপতি ডা: সালাম মহাসচিব দেশে যে কবরের শান্তি বিরাজ করছে : বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি

সকল




Instagram Web Viewer
agario agario - agario
hd film izle pvc zemin kaplama hd film izle Instagram Web Viewer instagram takipçi satın al Bursa evden eve taşımacılık gebze evden eve nakliyat Canlı Radyo Dinle Yatırımlık arsa Tesettürspor Ankara evden eve nakliyat İstanbul ilaçlama İstanbul böcek ilaçlama paykasa