২৬ জুন ২০১৯

রেকর্ড গড়ে জকোভিচের শিরোপা জয়

শিরোপায় চুমু খাচ্ছেন নোভাক জকোভিচ - সংগৃহিত

রেকর্ড সপ্তমবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেন টেনিসে পুরুষ এককের শিরোপা জিতলেন শীর্ষ বাছাই সার্বিয়ার নোভাক জকোভিচ। বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে আজকের ফাইনালে জকোভিচ সরাসরি সেটে হারিয়েছেন দ্বিতীয় বাছাই স্পেনের রাফায়েল নাদালকে। রড লাভার অ্যারিনায় দুই ঘণ্টা চার মিনিট সময় ব্যয় করে জকোভিচ ৬-৩, ৬-২ ও ৬-৩ গেমে নাদালকে হারিয়ে শিরোপার স্বাদ নেন। ফলে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে সবচেয়ে বেশি শিরোপা জয়ের রেকর্ডটি দখলে নিয়ে নেন ১৫টি গ্র্যান্ড স্ল্যামের মালিক জকোভিচ।

গত বছরের শুরুটা বাজেই ছিল জকোভিচের। বছরের প্রথম দু’গ্র্যান্ড স্ল্যামের শিরোপায় চুমু দিতে পারেননি তিনি। কিন্তু বছরের শেষ দু’গ্র্যান্ড স্ল্যামে চমক দেখান জকোভিচ। উইম্বলডন ও ইউএস ওপেনের শিরোপা ঘরে তুলেন। গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার লক্ষ্যে এবারের অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে খেলতে নামেন জকোভিচ।

টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই অদম্য ছিলেন জকোভিচ। দুর্দান্ত পারফরমেন্স প্রদর্শন করে ফাইনালে উঠেন তিনি। সেখানে নাদালকে পেয়ে যেন নড়েচড়ে বসেন তিনি। কারণ শিরোপার অন্যতম দাবীদার নাদালও। কিন্তু ফাইনালের মঞ্চে একেবারেই নিষ্প্রভ ছিলেন নাদালকে। পক্ষান্তরে আলোর মত জ্বলছিলেন জকোভিচ।
প্রথম সেট থেকেই নাদালকে চাপে ফেলে দেন জকোভিচ। ওই চাপ পুরো ম্যাচ জুড়েই অব্যাহত রাখেন তিনি। ফলে অসহায় আত্মসমর্পন করতে হয় নাদালকে। সরাসরি সেটে হেরে বসেন নাদাল। ফলে শিরোপা উঠে জকোভিচের হাতে।

শিরোপা জিতে উচ্ছ্বসিত জকোভিচ, ‘আমি গত ১২ মাসের যাত্রাটা ভাবার চেষ্টা করছিলাম। ঠিক ১২ মাস আগে আমার অস্ত্রোপচার হয়েছিল। কনুই’র ইনজুরিতে পড়ে পারফরমেন্সে ভাটা পড়ে। ফলে র‌্যাঙ্কিংয়ের বিশের এর নিচে নেমে যেতে হয় আমাকে। তবে আজ আমি এখানে দাঁড়ানো শিরোপা তুলে ধরার জন্য। শেষ তিন গ্র্যান্ড স্ল্যামের সব ক’টিই জিততে পেরেছি। এটি চমৎকার ব্যাপার, আমি নির্বাক।’

এর আগে ২০১২ সালে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল জকোভিচ ও নাদাল। রেকর্ড পাঁচ ঘণ্টা ৫৩ মিনিট লড়াই করেন তারা। শেষ পর্যন্ত জয়ের হাসি হাসেন জকোভিচই। আজও শেষ হাসি হেসেছেন তিনি।

এই জয়টি জকোভিচেরই প্রাপ্য ছিল বলে মনে করেন নাদাল, ‘আজ রাতটি আমার সেরা দিন ছিল না। তবে আজ রাতে আমার চেয়ে কেউ একজন ভালো খেলেছে। গত বছর কঠিন সময় পার করেছি। আমি এখানে প্রথম রাউন্ড পর্যন্ত খেলতেও সক্ষম ছিলাম না। যদিও এই রাতটি আমার ছিল না। তবে এই ম্যাচটি আমার জন্য অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। কারণ আমি ইনজুরি থেকে ফিরে ফাইনাল খেলেছি।’

জকোভিচের শিরোপার পথ:
প্রথম রাউন্ড : জকোভিচ ৬-৩, ৬-২ ও ৬-২ মিচেল ক্রুগার (যুক্তরাষ্ট্র)।
দ্বিতীয় রাউন্ড : জকোভিচ ৬-৩, ৭-৫ ও ৬-৪ জো-উইলফ্রেড ত-সঙ্গা (ফ্রান্স)।
তৃতীয় রাউন্ড : জকোভিচ ৬-৩, ৬-৪, ৪-৬, ৬-০ ডেনিস শাপোভালোভ (কানাডা)।
চতুর্থ রাউন্ড : জকোভিচ ৬-৪, ৬-৭ (৫/৭), ৬-২, ৬-৩ ডানিল মেদভিদেভ (রাশিয়া)।
কোয়ার্টার ফাইনাল : জকোভিচ ৬-১, ৪-১ (অবসর) কেই নিশিকোরি (জাপান)।
সেমিফাইনাল : জকোভিচ ৬-০, ৬-২, ৬-২ লুকাস পৌলি (ফ্রান্স)।
ফাইনাল : জকোভিচ ৬-৩, ৬-২ ও ৬-৩ রাফায়েল নাদাল (স্পেন)।

গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয় করা শীর্ষ পাঁচ পুরুষ খেলোয়াড় :
রজার ফেদেরার (সুইজারল্যান্ড) : ২০টি।
রাফায়েল নাদাল (স্পেন) : ১৭টি।
নোভাক জকোভিচ (সার্বিয়া) : ১৫টি।
পিট সাম্প্রাস (যুক্তরাষ্ট্র) : ১৪টি।
রয় এমারসন (অস্ট্রেলিয়া) : ১২টি।


আরো সংবাদ