film izle
esans aroma gebze evden eve nakliyat Ezhel Şarkıları indir Entrumpelung wien Installateur Notdienst Wien webtekno bodrum villa kiralama
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

গোপনীয়তা রক্ষা করতে না পারার দায় আমারই : মিথিলা

গোপনীয়তা রক্ষা করতে না পারার দায় আমারই : মিথিলা - ছবি : সংগৃহীত

দেশীয় শোবিজ অঙ্গনে রাফিয়া রশিদ মিথিলা ছিলেন ভদ্র ইমেজের মানুষ। সঙ্গীত শিল্পী তাহসান খানের সাথে সংসার ভেঙ্গে যাওয়ার পর তাকে নিয়ে অনেক গুঞ্জন উঠলেও ভক্তদের কাছে ওসব পাত্তা পেতো না। কিন্তু গত কয়েকদিন যাবত ইন্টারনেটে মিথিলা ও নির্মাতা ইফতেখার আহমেদ ফাহমির কিছু ব্যাক্তিগত ছবি ভক্তদের থমকে দিয়েছে। কিভাবে এই ছবি ইন্টারনেটে আসলো, ছবিগুলো কি আসল নাকি এডিট করা। এমন নানা প্রশ্ন সামনে চলে আসে।

নিজের ফেসবুকে মিথিলা এ নিয়ে কথা বলেছেন। তিনি বলেন, কী ঘটেছে তার কোনও ব্যাখ্যা দিতে আসিনি। বরং সোশ্যাল মিডিয়ায় আমার কিছু ব্যক্তিগত ছবি নিয়ে যা হয়েছে সেই সম্পর্কে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করতে চাই। এসব ছবির কিছু বাস্তব, কিছু মনগড়া। আমার সুনাম ক্ষুণ্ন করতে কিছু অপরাধী প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে এগুলো অনলাইনে ছেড়ে দিয়েছে।

নির্মাতা ইফতেখার আহমেদ ফাহমির সাথে মিথিলার প্রেম ছিল। ২০১৭-১৮ সালে সেই সম্পর্কে থাকাকালে তোলা কিছু ছবি ফাঁস হয়েছে। এই তথ্য মিথিলা নিজেই জানিয়েছেন।

এই অভিনেত্রী বলেন, ফাহমির ফেসবুক প্রোফাইল হ্যাক হয়েছিল। তখনই অপরাধীরা খারাপ উদ্দেশ্যে ব্যবহারের জন্য এগুলো খুঁজে নিয়েছে। এখানে ডেটিং শব্দটির ওপর জোর দিতে চাই, যার অর্থ আমরা একটি সম্পর্কে ছিলাম। সহজভাবে বললে দুটি মানুষ একে অপরের সঙ্গে জড়ালে ঘনিষ্ঠ মুহূর্ত কাটায়, ছবি তোলে। প্রযুক্তির যুগে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে তারা এগুলো ভাগ করে নেয়। তবে নিজের গোপনীয়তা রক্ষা করতে না পারার দায় আমারই।

মিথিলা বলেন, আমার লজ্জা লাগছে এই ভেবে, দেশের কিছু কুৎসিত লোক আমার ব্যক্তিগত মুহূর্তগুলো সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ইচ্ছেমতো পোস্ট, শেয়ার ও ব্যবহারের সুযোগকে কাজে লাগিয়েছে। আমার খ্যাতি ও ভাবমূর্তিকে অসম্মান করে তারা সাবস্ক্রিপশন বাড়াচ্ছে ও নানান খবর ছড়িয়ে দিচ্ছে। আমাকে কার্যত ধর্ষণ করা হচ্ছে। আমার লজ্জা হয় সেইসব মিডিয়ার জন্য, বিশেষ করে কয়েকটি নিউজ পোর্টাল আমার অনুমতি ছাড়াই আমাকে উদ্ধৃত করে এই খবর প্রকাশ করেছে। অথচ আমি এ নিয়ে কখনোই কথা বলিনি বা কোনো বক্তব্য দেইনি। ঘরে-বাইরে, ভার্চুয়াল জগতসহ সর্বত্র যেকোনও জায়গায় নারীদের যৌন হেনস্তা করা হলে একইভাবে লজ্জিত ও ক্ষিপ্ত হই।

মিথিলা বলেন, আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, আমার সম্মান ও মর্যাদা শুধু আমার আকার আর পোশাকের কিংবা ব্যক্তিগত ছবির মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। জীবনে কঠোর পরিশ্রম, সৃজনশীলতা ও শিক্ষার মাধ্যমে সব অর্জন করেছি। আমার অতীতের ব্যক্তিগত মুহূর্তগুলো চুরি করে কিছু অপরাধীর কুকর্মের কারণে এসব ভেঙে যাওয়ার মতো ঠুনকো নয়।

মিথিলা জানান, নিজেকে শান্ত রাখতে ও ইতিবাচক মনোভাবের ওপর জোর দিতেই গত ২৪ ঘণ্টা ফাঁস হওয়া ছবি নিয়ে মুখ খোলেননি। তার আশা ছিল, এর মাধ্যমে আরও শক্তিশালী হয়ে ফিরে আসতে পারবেন। তবে যেসব ফেসবুক গ্রুপ, পেজ ও অনলাইন পোর্টাল অনুমতি ছাড়া ফাঁস হওয়া ছবিসহ খবর প্রকাশ করেছে তাদের বিরুদ্ধেও আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানিয়েছেন তিনি। তিনি বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহায়তায় যারা আমার মান-সম্মান নিয়ে খেলেছে সেই দুষ্কৃতিকারীদের চিহ্নিত করে ছাড়বো। শপথ করছি, নিজের জন্য এবং হ্যাকার ও সাইবার অপরাধীদের শিকার হওয়া সবার জন্য লড়বো।

দুঃসময়ে পাশে থাকার জন্য পরিবার, বন্ধু ও সহকর্মীদের ধন্যবাদ জানান জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী।


আরো সংবাদ




short haircuts for black women short haircuts for women Ümraniye evden eve nakliyat