১৭ অক্টোবর ২০১৯

দীপুর সুইসাইড নোট ও অভিনেতা অপূর্বর বক্তব্য

দীপুর সুইসাইড নোট ও অভিনেতা অপূর্বর বক্তব্য - সংগৃহীত

বুধবার দিবাগত রাতে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্বর ছোট ভাই জাহেদুল ফারুক দীপু । বৃহস্পতিবার তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর লাশ দেয়া হয় পরিবারের কাছে। একই দিন মাগরিবের নামাজের পর মিরপুর বুদ্ধিজীবী কবরস্থান মসজিদে দীপুর জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর সেই কবরস্থানেই দাফন করা হয়।

মৃত্যুর আগে একটি চিরকুট রেখে গেছেন দীপু। এতে লেখা ছিল, ‘আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী না। অংশ, আমি তোমাকে খুব ভালোবাসি।’

ছোট ভাইয়ের মৃত্যু সম্পর্কে জিয়াউল ফারুক অপূর্ব বলেছেন,‘বুধবার রাতে দীপু ফেসবুক লাইভে এসেছিল। কিছুই বলেনি। ক্যামেরার সামনে চুপ করে দাঁড়িয়েছিল। এরপর ক্যামেরা বন্ধ করে দেয়। মনে হচ্ছে, এরপরই ঘটনাটা ঘটেছে।’

রাজধানীর মুহাম্মদপুরের শেখেরটেক এলাকার ৬ নম্বর সড়কের একটি ভাড়া বাসায় স্ত্রী ডলি আর সাড়ে চার বছর বয়সী ছেলে অংশকে নিয়ে থাকতেন দীপু। তিনি আইটি প্রতিষ্ঠান টমেটো ওয়েবে চাকরি করতেন; পাশাপাশি গান গাইতেন, নাটক ও টেলিছবির আবহ সংগীত করতেন। শেখেরটেকের ওই বাসায় নিজের একটি স্টুডিও ছিল দীপুর। সেখানেই তিনি গানের চর্চা এবং নাটক ও টেলিছবির আবহ সংগীতের কাজও করতেন।

অপূর্ব বলেন,‘দীপুর সাথে এবার রমজান মাসে একবার দেখা হয়েছিল। আমার বাসায় একসাথে ইফতার করেছিলাম। ঈদের দিন কিংবা ঈদের পরে ও আমাদের সাথে দেখা করতে আসেনি। শুনেছি, বুধবার রাতে ও অনেকগুলো ঘুমের ওষুধ খেয়েছিল। এরপর নিজের স্টুডিওতে গিয়ে ঢোকে।’

অপূর্ব বলেন, ‘দীপু সাত বছর আগে বিয়ে করেছে। তখন থেকেই ও আলাদা থাকছে। ওর স্ত্রী এখন সাড়ে তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা। দীপুর মৃত্যু আমাদের পরিবারের জন্য বিরাট ধাক্কা।’ চার ভাই আর এক বোনের মধ্যে দীপু সবার ছোট।

দীপু অনেকদিন ধরেই সঙ্গীতের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন, কিছুদিন আগেও দ্বীপের ‘ভালবাসি তোমায়’ গানটি প্রকাশিত হয়েছিল। গানটি থেকে ভাল সাড়াও পেয়েছিলেন। গানের পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন নাটক ও টেলিছবির আবহ সংগীত করতেন। অপূর্ব অভিনীত ফার্স্ট লাভ, ড্রিম গার্ল সহ আরও নাটকের আবহ সংগীত করেছেন তিনি।


আরো সংবাদ




astropay bozdurmak istiyorum
portugal golden visa