১৭ অক্টোবর ২০১৯

কম্পিউটেক্সের চমক

কম্পিউটেক্সে জেনবুক প্রো সিরিজের ল্যাপটপ ব্যবহার করছেন এক গ্রাহক -

বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম ও এশিয়ার সবচেয়ে বড় প্রযুক্তিপণ্যের প্রদর্শনী ‘কম্পিউটেক্স ২০১৯’ গত ২৮ মে শুরু হয়েছে। তাইওয়ানের রাজধানী তাইপেতে এ প্রদর্শনীর আজ শেষ দিন। বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতারা প্রতিবারের মতো তাদের সর্বশেষ ও সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ডিভাইস নিয়ে হাজির হয়েছে।
ফাইভজি ল্যাপটপ
লেনোভো ও কোয়ালকম মিলে তাইপেতে শুরু হওয়া কম্পিউটেক্স প্রদর্শনীতে পঞ্চম প্রজন্মের নেটওয়ার্ক প্রযুক্তি ফাইভজি সমর্থিত ল্যাপটপ উন্মোচন করেছে। এটি বিশ্বের প্রথম ফাইভজি সমর্থিত ল্যাপটপ ডিভাইস। ‘প্রজেক্ট লিমিটলেস’ কোড নামে ডিভাইসটি উন্নয়ন করেছে কোয়ালকম ও লেনোভো মিলে। ডিভাইসটির ভোক্তা সংস্করণের বাণিজ্যিক সরবরাহ কবে শুরু হবে, সে বিষয়ে কোনো তথ্য দেয়া হয়নি। গত বছর স্ন্যাপড্রাগন ৮সিএক্স প্লাটফর্ম চালু করেছিল কোয়ালকম। প্রজেক্ট লিমিটলেস ল্যাপটপটি এ প্লাটফর্মভিত্তিক হবে। কোয়ালকমের এ প্লাটফর্ম উন্নয়নই করা হয়েছে ফাইভজি সমর্থিত ল্যাপটপ ডিভাইসের জন্য।
ডেল
কম্পিউটেক্সে টু-ইন-ওয়ান ল্যাপটপের নতুন সংস্করণ উন্মোচন করেছে ডেল। ডিভাইসটি ফোল্ড করে ট্যাবলেট হিসেবে ব্যবহারের সুবিধা মিলবে। ডেলের এ ডিভাইসে দশম প্রজন্মের ইন্টেল কোর প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। ডিভাইসটিতে ১৬ বাই ১০ রেশিওর ১৩ ইঞ্চি ডিসপ্লে রয়েছে। প্রদর্শনীতে ডিভাইসটির দাম এবং কবে থেকে সরবরাহ শুরু হবে, সে বিষয়ে কোনো তথ্য প্রকাশ করা হয়নি।
ইন্টেল
বৈশ্বিক সেমিকন্ডাক্টর খাতে কয়েক বছর ধরে খারাপ সময় পার করছে ইন্টেল। কম্পিউটেক্সে প্রতিষ্ঠানটির জ্যেষ্ঠ ভাইস প্রেসিডেন্ট গ্রেগ ব্রায়ান্ট মূল ধারার কম্পিউটিং ডিভাইসের জন্য বেশ কয়েকটি প্রসেসর প্রদর্শন করেন। এ প্রসেসরগুলো ১০ ন্যানোমিটার প্রযুক্তিতে তৈরি করা হয়েছে। ২০১৪ সাল থেকে ১৪ ন্যানোমিটার প্রযুক্তিতে প্রসেসর তৈরি করে আসছে ইন্টেল। চার বছর পর প্রসেসর তৈরির প্রযুক্তিতে পরিবর্তন এনেছে প্রতিষ্ঠানটি।
এনভিডিয়া
কম্পিউটেক্সের চলতি আসরে বৃহৎ, শক্তিশালী ও আরো উন্নত কম্পিউটারের জন্য গ্রাফিকস চিপের হালনাগাদ সংস্করণ উন্মোচন করেছে এনভিডিয়া। এ চিপ তৈরিতে টার্নিং ডিজাইন ব্যবহার করেছে প্রতিষ্ঠানটি। ফলে চিপের আকার কিছুটা বড় হলেও তা পোর্টেবল ল্যাপটপে ব্যবহার করা যাবে বলে জানানো হয়েছে। চলতি বছরের দ্বিতীয়ার্ধ থেকে এনভিডিয়ার নতুন চিপ চালিত কম্পিউটার বাজারে সরবরাহ শুরু হবে।
জেনবুক
কম্পিউটেক্সে জেনবুক সিরিজের একগুচ্ছ নতুন ল্যাপটপ উন্মোচন করেছে আসুস। ডিভাইসগুলো হলো জেনবুক ১৩, জেনবুক ১৪, জেসবুক ১৫ ও জেনবুক ৩০। গত বছর আগস্টে বাজারে ছাড়া জেনবুক সিরিজের ল্যাপটপের আদলে নতুন ল্যাপটপগুলোর ডিজাইন করা হয়েছে। তবে নতুন সংস্করণগুলোয় স্ক্রিনপ্যাড ২.০ নামে হালনাগাদ ডিসপ্লে এমবেডেড টাচপ্যাড ব্যবহার করা হয়েছে। তবে প্রদর্শনীতে নতুন ডিভাইসগুলোর দাম এবং সরবরাহ কবে শুরু হবে, সে বিষয়ে কোনো তথ্য প্রকাশ করা হয়নি।
গত বছর কম্পিউটেক্সে স্ক্রিনপ্যাডসহ জেনবুক প্রো উন্মোচন করেছিল আসুস। চলতি বছর ডিভাইসটির হালনাগাদ সংস্করণ জেনবুক প্রো ডুয়ো উন্মোচন করেছে প্রতিষ্ঠানটি। এতে স্ক্রিনপ্যাড প্লাস নামে সেকেন্ডারি প্যানেল ব্যবহার করা হয়েছে। ডিভাইসটিতে নবম প্রজন্মের ইন্টেল কোর-আই৯ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। ৩২ গিগাবাইট র্যামের ডিভাইসটিতে গেমিং গ্রেডের এনভিডিয়া জিফোর্স আরটিএক্স ২০৬০ গ্রাফিকস চিপসেট ব্যবহার করা হয়েছে।
ভিভোবুক
কম্পিউটেক্সে ভিভোবুক সিরিজের একগুচ্ছ নতুন ল্যাপটপ উন্মোচন করেছে আসুস। ভিভোবুক এস১৪ ল্যাপটপটিতে ১৯২০ঢ১০৮০ পিক্সেল রেজুল্যুশনের ১৪ ইঞ্চি ফুল এইচডি ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে। অষ্টম প্রজন্মের ইন্টেল কোর-আই৭ প্রসেসরচালিত ডিভাইসটিতে ১৬ গিগাবাইট র্যাম ব্যবহার করা হয়েছে। তথ্য সংরক্ষণের জন ডিভাইসটিতে আছে এক টেরাবাইট সলিড স্টেট ড্রাইভ (এসএসডি)। কম্পিউটেক্সে ভিভোবুক এস১৪ ল্যাপটপের দুটি সংস্করণ উন্মোচন করেছে আসুস। ডিভাইসগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বড় পার্থক্য হলো ব্যাটারি সক্ষমতায়। ডিভাইস দুটির দাম এবং সরবরাহ শুরু হবে কবে থেকে তা প্রকাশ করা হয়নি।
আসুসের ভিভোবুক সিরিজের ভিভোবুক এস১৫ ল্যাপটপে ১৯২০-১০৮০ পিক্সেল রেজুল্যুশনের ১৫ দশমিক ছয় ইঞ্চি এলইডি-ব্যাকলিট ফুল এইচডি ডিসপ্লে রয়েছে। এর আসপেক্ট রেশিও ১৬:৯ এবং স্ক্রিন-টু-বডি রেশিও ৮৮ শতাংশ। অষ্টম প্রজন্মের ইন্টেল কোর-আই৭ প্রসেসরচালিত ১৬ গিগাবাইট র্যাম ব্যবহার করা হয়েছে। বিভিন্ন তথ্য সংরক্ষণের জন্য ডিভাইসটিতে আছে এক টেরাবাইট সলিড স্টেট ড্রাইভ (এসএসডি)। ডিভাইসটির ক্রেতাদের জন্য দুই গিগাবাইট গ্রাফিকস মেমোরিসহ ইন্টিগ্রেটেড ইন্টেল ইউএইচডি ৬২০ কিংবা এনভিডিয়া জিফোর্স এমএক্স২৫০ গ্রাফিকস কার্ড বেছে নেয়ার সুযোগ রয়েছে।
এএমডি জিপিইউ
কম্পিউটেক্সে উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন এএমডির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) লিসা সু। কম্পিউটেক্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সূচনা বক্তব্যে নিজেদের আসন্ন ডাটা সেন্টার, গ্রাফিকস ও ডেস্কটপ কম্পিউটারের বিভিন্ন পণ্যের ওপর আলোকপাত করেন তিনি। কম্পিউটেক্সের উদ্বোধনী দিনেই গেমিং কম্পিউটারের জন্য রেডিওন আরএক্স৫০০০ নেভী গ্রাফিকস প্রসেসর ইউনিট (জিপিইউ) উন্মোচন করেছে এএমডি। এই জিপিইউ তৈরিতে তৃতীয় প্রজন্মের রেজিন সিপিইউ-ভিত্তিক জিন২ আর্কিটেকচার ব্যবহার করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

 


আরো সংবাদ

ট্রাম্পের 'অতুলনীয় জ্ঞানের' সিদ্ধান্তে বদলে গেল সিরিয়া যুদ্ধের চিত্র (৩২১৮৮)ভারতের সাথে তোষামোদির সম্পর্ক চাচ্ছে না বিএনপি (১৮৪৫৫)মেডিকেলে চান্স পেলো রাজমিস্ত্রির মেয়ে জাকিয়া সুলতানা (১৪৯৪৬)তুরস্ককে নিজ ভূখণ্ডের জন্য লড়াই করতে দিন : ট্রাম্প (১৪৭০৩)আবরারকে টর্চার সেলে ডেকে নিয়েছিল নাজমুস সাদাত : নির্যাতনের ভয়ঙ্কর বর্ণনা (১৩৮১৫)পাকিস্তানকে পানি দেব না : মোদি (১১২৭৪)১১৭ দেশের মধ্যে ১০২ : ক্ষুধা সূচকে বাংলাদেশ-পাকিস্তানের চেয়ে পিছিয়ে ভারত (৮৯৭০)তুহিনকে বাবার কোলে পরিবারের সদস্যরা হত্যা করেছে : পুলিশ (৮৮৮৫)বাঁচার লড়াই করছে ভারতে জীবন্ত কবর দেয়া মেয়ে শিশুটি (৮৬৮৭)এক ভাই মেডিকেলে আরেক ভাই ঢাবিতে (৮৫২৩)



astropay bozdurmak istiyorum
portugal golden visa