২০ মে ২০১৯

বিজ্ঞান পঞ্চম অধ্যায় : পদার্থ ও শক্তি

-

সুপ্রিয় প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীর শিক্ষার্থী বন্ধুরা, শুভেচ্ছা নিয়ো। আজ তোমাদের বিজ্ঞান বিষয়ের ‘পঞ্চম অধ্যায় : পদার্থ ও শক্তি’ থেকে আরো ৫টি যোগ্যতাভিত্তিক প্রশ্ন ও উত্তর নিয়ে আলোচনা করা হলো।
প্রশ্ন : তাপ প্রয়োগে পদার্থের পাঁচটি পরিবর্তন ঘটে, সে সম্পর্কে লিখ?
উত্তর : কোনো পদার্থের ওপর তাপ প্রয়োগ করলে পদার্থের নি¤œলিখিত পরিবর্তন ঘটে :
১.তাপ প্রয়োগে পদার্থের অবস্থার পরিবর্তন হয়।
২. বস্তুকে তাপ দিলে, তাপ গ্রহণ করে বস্তুটি উত্তপ্ত হয়।
৩. বস্তুকে অধিক তাপ দিলে আলোক বিকিরণ করে।
৪. তাপ দিলে পদার্থের আয়তন বৃদ্ধি পায়।
৫. তাপ প্রয়োগে পদার্থের অভ্যন্তরীণ শক্তিরও পরিবর্তন হয়।
প্রশ্ন : সৌরবিদ্যুৎ কী? আমাদের দেশের জন্য সৌরবিদ্যুৎ প্রয়োজন কেন?
উত্তর : সূর্যের আলোর সাহায্যে যে বিদ্যুৎ উৎপন্ন করা হয় তাকে সৌরবিদ্যুৎ বলা হয়। জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণে এবং জীবনযাত্রার মান বৃদ্ধি পাওয়ায় আমাদের দেশে দিন দিন বিদ্যুতের চাহিদা বাড়ছে। দিন দিন বিদ্যুৎ উৎপাদনও বাড়ছে। কিন্তু বিদ্যুতের উৎপাদন বিদ্যুতের চাহিদার সাথে তাল মেলাতে পারছে না। ফলে সব সময়ই বিদ্যুতের কিছু ঘাটতি থেকেই যাচ্ছে। এ ঘাটতি মেটানোর জন্যই আমাদের সৌরবিদ্যুতের প্রয়োজন।
প্রশ্ন : সৌরশক্তিকে নবায়নযোগ্য শক্তি বলা হয় কেন?
উত্তর : পৃথিবীর সব শক্তির মূল উৎস সূর্য। সূর্য থেকে যে শক্তি পাওয়া যায় তাকে সৌরশক্তি বলে। সূর্য থেকে প্রতিনিয়ত যে পরিমাণ শক্তি পৃথিবীতে এসে পৌঁছায় তা সূর্যের উৎপন্ন শক্তির দুই শত কোটি ভাগের এক ভাগ মাত্র। এই সৌরশক্তির অফুরন্ত ভাণ্ডার আমাদের প্রতিদিনের নানারকম কাজের চাহিদা মেটায়। বর্তমানে সৌরশক্তিকে ব্যবহার করে বাষ্প উৎপাদনের মাধ্যমে টারবাইন ও জেনারেটরের সাহায্যে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হয়। এ ছাড়া রান্নার কাজে সৌরচুল্লি ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এই সৌরশক্তি বারবার ব্যবহার করা যাবে। কখনোই শেষ হবে না। তাই সৌর শক্তিকে নবায়নযোগ্য শক্তি বলা হয়।
প্রশ্ন : লোডশেডিং কী? বিদ্যুৎশক্তির অপচয় রোধে তোমার করণীয় কী?
উত্তর : বিদ্যুতের ঘাটতি কমানোর জন্য পরিকল্পনা করে বিভিন্ন জায়গায় কখনো কখনো নির্দিষ্ট সময়ের জন্য বিদ্যুৎপ্রবাহ বন্ধ রাখা হয়। একে লোডশেডিং বলে।
বিদ্যুৎশক্তি অপচয় রোধে নি¤œলিখিত ব্যবস্থাগুলো গ্রহণ করা যায় :
১. অকারণে ঘরের বাতি জ্বালিয়ে রাখা যাবে না।
২. প্রয়োজন শেষ হলে সুইস বন্ধ করে বিদ্যুৎপ্রবাহ বন্ধ করে দিতে হবে।
৩. বিনা প্রয়োজনে বৈদ্যুতিক পাখা ও অন্যান্য বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি চালিয়ে রাখা যাবে না। অর্থাৎ সব রকমের বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি ব্যবহারে সচেতন হওয়ার মাধ্যমে বিদ্যুৎশক্তির অপচয় রোধ করা সম্ভব।
প্রশ্ন : বায়ুকে পদার্থ বলার পাঁচটি কারণ লিখ।
উত্তর : বায়ু একটি পদার্থ। কারণÑ
১. বায়ুর ওজন আছে।
২. বায়ুর আয়তন আছে।
৩. বায়ু স্থান দখল করে।
৪. বায়ু বল প্রয়োগে বাধার সৃষ্টি করে।
৫. তাপ প্রয়োগে বায়ুর অবস্থার পরিবর্তন হয়।


আরো সংবাদ