১৩ নভেম্বর ২০১৯

আওয়ামী ফ্যাসিবাদের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় তৃণমূল পুনর্গঠনের কাজ চলছে : ডা. জাহিদ 

-

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সিলেট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা অধ্যাপক ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন বলেছেন, তিন বারের সাবেক সফল প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে নিয়ে ষড়যন্ত্র চলছে। ষড়যন্ত্রমুলক মিথ্যা মামলার ফরমায়েসী রায়ে কারান্তরীণ দেশনেত্রী গুরুতর অসুস্থ। কিন্তু সরকার ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে নিয়ে মিথ্যাচার করছে। সরকারের প্রতিহিংসামুলক মনোভাবের কারণে আদালতের মাধ্যমে দেশনেত্রীর মুক্তি সম্ভব নয়। কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে গণতন্ত্রের মা কে মুক্ত করার জন্য সর্বাত্মক প্রস্তুতি নিতে হবে।

মঙ্গলবার সিলেট জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন ডা. জাহিদ। জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কামরুল হুদা জায়গীরদারের সভাপতিত্বে এবং বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও জেলা আহ্বায়ক কমিটির প্রথম সদস্য আবুল কাহের চৌধুরী শামীমের পরিচালনায় নগরীর মেন্দিবাগ সংলগ্ন একটি অভিজাত হোটেলের কনফারেন্স রুমে অনুষ্ঠিত এই সভায় আহ্বায়ক কমিটির সকল নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বিএনপির এই ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, আওয়ামী ফ্যাসিবাদের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় বিএনপির পক্ষ থেকে দলের সকল পর্যায়ে দল পুনর্গঠনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। বিএনপির পাশাপাশি অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠন গুলোকে সক্রিয় করার কাজ চলছে। সিলেট জেলা বিএনপির আসন্ন কাউন্সিলকে সফল ও সার্থক করে তোলার জন্য কেন্দ্রীয় নির্দেশনার আলোকে প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে। তৃণমুল নেতাকর্মীরা দলের প্রাণ তাই বিএনপি তৃণমূল থেকে দল পুনর্গঠনের কাজ শুরু করেছে। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমানের নির্দেশনায় বিএনপিকে অতীতের যে কোন সময়ের তুলনায় শক্তিশালী করে তোলা হচ্ছে। অচিরেই জাতি এর সুফল ভোগ করবে। কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার ঘোষণা আসলে সকল স্তরের নেতাকর্মীদের ময়দানে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।

সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন-বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আলহাজ এম. এ হক, তাহসীনা রুশদীর লুনা ও খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির, বিএনপির কেন্দ্রীয় সিলেট বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. সাখাওয়াত হাসান জীবন, বিএনপির কেন্দ্রীয় সিলেট বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক এমপি দিলদার হোসেন সেলিম ও কলিম উদ্দিন আহমদ মিলন, বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ-ক্ষুদ্র ঋণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাক, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ডা. শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য এডভোকেট হাদিয়া চৌধুরী মুন্নি, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য এডভোকেট আব্দুল গাফফার, আশিক উদ্দিন চৌধুরী, আলী আহমদ, আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী, অধ্যাপিকা সামিয়া বেগম চৌধুরী, এডভোকেট আশিক উদ্দিন, মঈনুল হক চৌধুরী, আব্দুল মান্নান, ফখরুল ইসলাম ফারুক, শাহজামাল নুরুল হুদা, মাহবুবুর রব চৌধুরী ফয়সল, মামুনুর রশীদ মামুন, ইশতিয়াক আহমদ সিদ্দিকী, নাজিম উদ্দিন লস্কর, সিদ্দিকুর রহমান পাপলু, মাজহারুল ইসলাম ডালিম, এডভোকেট হাসান আহমদ পাটোয়ারী রিপন, আব্দুল আহাদ খান জামাল, মাহবুবুল হক চৌধুরী, আবুল কাশেম, শামীম আহমদ ও আহমেদুর রহমান চৌধুরী মিলু প্রমূখ।


আরো সংবাদ

ছেলের নাম রেখে কর্মস্থলে ফিরছিলেন আল আমিন প্রথম বিশ্বযুদ্ধের বীর নরসিংদীর মিয়া চাঁনের স্বীকৃতি চায় পরিবার বিটিআরসি-অপারেটর দ্বন্দ্বে গ্রাহক সেবায় ভোগান্তি বিপুল আর্থিক ক্ষতিতে কোম্পানিগুলো আ’লীগ স্বাধীনতার প্রতিনিধিত্ব করে না : মওদুদ ভেজালবিরোধী অভিযান আরো জোরদার হবে : শিল্প প্রতিমন্ত্রী জাতীয় শ্রমিক লীগের নতুন নেতাদের সংবর্ধনা সিপাহি বিপ্লব না হলে আ’লীগের পুনঃজন্ম হতো না : লেবার পার্টি অনির্বাচিত সরকারের বিদায় হওয়া দরকার : আমীর খসরু কাউন্সিলর মঞ্জু অস্ত্র ও মাদক মামলায় রিমান্ড শেষে কারাগারে ৩ আইন কর্মকর্তার নিয়োগ প্রশ্নে রুল সংসদে রাঙ্গাকে তুলোধোনা বহিষ্কার দাবি

সকল