১২ ডিসেম্বর ২০১৯

ড্রাইভিং শিখতে গিয়ে আহত, হাসপাতালে মৃত্যু

নিহত অমরেন্দ্র চন্দ্র চন্দ - নয়া দিগন্ত

গাড়ির ড্রাইভিং শিখতে গিয়ে দুর্ঘটনায় আহত হয়ে ৭দিন হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে মারা গেছেন এক ব্যক্তি। নিহত ব্যক্তির নাম অমরেন্দ্র চন্দ্র চন্দ(৪৪)। তিনি কুলাউড়ার ভাটেরা ইউনিয়ন পরিষদের সচিব হিসেবে কর্মরত ছিলেন। পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডের সাথেও জড়িত বলে জনা গেছে। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টায় সিলেটের একটি বেসরকারী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। নিহত অমরেন্দ্র চন্দ উপজেলার কুলাউড়া সদর ইউনিয়নের করেরগ্রামের মৃত শৈলেস চন্দ্রের ছেলে।

নিহতের পরিবার ও ভাটেরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম চৌধুরী জানান, ১৪ ফেব্রুয়ারী ইউনিয়নের সচিব একটি প্রশিক্ষন গাড়িতে করে ড্রাইভিং শিখছিলেন। ভাটেরা খেলার মাঠে গাড়ি চালানোর সময় মাঠের প্যাভেলিয়নের সাথে সাজোরে ধাক্কা খেয়ে গুরুতর আহত হন তিনি। সাথে সাথে তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু পরদিন থেকে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইসিসিইউতে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। সেখানে অবস্থার আরো অবনতি হয় এবং বৃহস্পতিবার সকালে তার মৃত্যু হয়।

নিহত অমরেন্দ্র চন্দ্র বিভিন্ন ইউনিয়নে বিগত ২১ বছর সচিব পদে চাকরির পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত ছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও ৩ মেয়ে রেখে গেছেন।

ভাটেরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম চৌধুরী ও কুলাউড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোঃ শাহজাহান জানান, কোনো ধরনের অভিযোগ না থাকায় স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায়ই তার অন্ত্যষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে।


আরো সংবাদ




hacklink Paykwik Paykasa
Paykwik