২৩ মার্চ ২০১৯

সিলেটে মাদরাসাছাত্রীর ওপর পাশবিক নির্যাতনকারীদের গ্রেফতার ও শাস্তি দাবি

-

সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলার দেওয়ান বাজার ইউনিয়নের শিওরখাল মহিলা মাদরাসার সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীর ওপর পাশবিক নির্যাতনকারী সব অপরাধীকে গ্রেফতার এবং তাদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করেছেন তার মা। গতকাল শনিবার সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ দাবি জানান।

এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মেয়ের বাবা, যিনি স্থানীয় আওয়ামী লীগের একজন নেতা। সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য পাঠ করতে গিয়ে অঝোরে কাঁদেন নির্যাতিতা মেয়েটির বাবা-মা।

লিখিত বক্তব্যে মেয়েটির মা বলেন, ‘আমার অপ্রাপ্তবয়স্কা মেয়েকে গত ২২ নভেম্বর সন্ধ্যায় শিওরখাল গ্রামের নিজ বসতঘরের বারান্দা থেকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে এলাকার চিহ্নিত অপরাধী আব্দুল আহাদ (২৫) ও আজই মিয়া (৩২)সহ আরো অন্তত চারজন মিলে পাশবিক নির্যাতন করে। ঘটনার পর খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে রক্তাক্ত শরীরে অজ্ঞান অবস্থায় আমার মেয়েকে উদ্ধার করা হয়। পরক্ষণে তার জ্ঞান ফিরে এলে তার ওপর নির্যাতনকারী ধর্ষক হিসেবে শিওরখাল গ্রামের আব্দুল করিমের ছেলে আব্দুল আহাদ ও আইয়ুব উল্লার ছেলে আজই মিয়াকে চিনতে পারার কথা উপস্থিত লোকজনের কাছে প্রকাশ করে।

পরবর্তী আমার মেয়েকে রাতেই সংকটাপন্ন অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে জরুরী ভিত্তিতে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসা এবং পরীক্ষা নিরীক্ষা সম্পন্ন হয়। হাসপাতালের রিপোর্টেও আমার মেয়েকে গণধর্ষণের প্রমাণ রয়েছে।

এ ঘটনার পরদিন গত ২৩ নভেম্বর আমার স্বামী বাদি হয়ে বালাগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় ঘটনার সাথে জড়িত এবং এলাকার চিহ্নিত অপরাধী আব্দুল আহাদ ও আজই মিয়ার নাম উল্লে¬খসহ অজ্ঞাত চারজনকে আসামি করা হয়। পরবর্তীতে পুলিশি অভিযানে গত ২৪ নভেম্বর দুই আসামি আব্দুল আহাদ ও আজই মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য ঘটনার প্রায় দুই মাস অতিবাহিত হলেও জড়িত অন্য কোনো আসামি গ্রেফতার হয়নি।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে নির্যাতিতা মেয়েটির বাবা জানান, স্থানীয় কিছু সরকারদলীয় নেতাকর্মীর শেল্টারে পুলিশ অপর আসামিদের গ্রেফতার করছে না। এমনকি বশির নামে এক আসামি এলাকায় আসার খবর পেয়ে পুলিশকে দ্রুত সংবাদ দেয়া হয়। পুলিশ এলেও রহস্যজনক কারণে এ আসামিকে গ্রেফতার না করে চলে যায়।

সংবাদ সম্মেলনে সব অপরাধীদের গ্রেফতার ও তাদের শাস্তি নিশ্চিত করার ব্যাপারে মামলার যথাযথ তদন্ত এবং ন্যায়বিচার পাওয়ার স্বার্থে সকল মহলের আন্তরিক সহযোগিতা চেয়েছেন মেয়েটির মা। বিশেষ করে সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী, সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার, সিলেটের জেলা প্রশাসক, সিলেটের পুলিশ সুপারসহ বাংলাদেশ সংশ্লিষ্ট সকলের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেছেন।


আরো সংবাদ

iptv al Epoksi boya epoksi zemin kaplama Daftar Situs Agen Judi Bola Net Online Terpercaya Resmi

Hacklink

instagram takipçi satın al ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme

instagram takipçi satın al