১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮

বালাগঞ্জে দেবরের হাতে ভাবী খুন

-

সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলার নতুন সুনামপুর গ্রামে দেবরের ছুরিকাঘাতে এক গৃহবধু খুন হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন শিশুসহ আরো দুইজন। এ ঘটনায় রিপন নামের একজনকে পুলিশ আটক করেছে । নিহত ওই গৃহবধু হচ্ছেন শামীমা আক্তার (২২)। তার দেড়বছর বয়সী এক পুত্র সন্তান রয়েছে। শামীমা ওই গ্রামের আমির আলীর স্ত্রী ও উপজেলার গৌরীপুর গ্রামের তুরণ মিয়ার মেয়ে। শুক্রবার দিনগত রাত ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পারিবারিক কলহের জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।
নিহতের বড় ভাই নাজমুল হোসেন জানান, তার বোন শামীমা পিঠা তৈরি করেন। চাচাতো দেবর মিন্টু ও রুহুল আমিন অতিরিক্ত পিঠা খেতে চায়। কিন্তু পর্যাপ্ত না থাকায় তারা ক্ষুব্ধ হয়ে শামীমার বুকে ও হাঁটুতে ছুরিকাঘাত করে। এ সময় তাদের বাধা দিলে শামীমার ছোট বোন নাইমা (১০) ও ভগ্নিপতি বারু মিয়া এগিয়ে এলে তাদেরও ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায় তারা।
তাৎক্ষণিক বাড়ির অন্যান্য লোকজন আহতদের উদ্ধার করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক শামীমাকে মৃত ঘোষণা করেন। আহতরা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
এ ব্যাপারে বালাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জালাল উদ্দিন বলেন, পারিবারিক কলহের জের ধরে স্বামীর চাচাতো ভাইয়ের ছুরিকাঘাতে গৃহবধু শামীমা খুন হয়েছেন। এ ঘটনায় মিন্টুর ভাই রিপনকে আটক করা হয়েছে।


আরো সংবাদ