১৫ নভেম্বর ২০১৮

বিশ্বনাথে একই পরিবারের ৬ জন অগ্নিদগ্ধ

-

সিলেটের বিশ্বনাথে বসতঘরে অগ্নিকান্ডে একটি অসহায় পরিবারের ৬জন অগ্নিদগ্ধ হয়েছেন। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে উপজেলার অলংকারী ইউনিয়নের রহিমপুর পূর্বপাড়া (রামপুর) গ্রামের ফারুক মিয়ার বসত ঘরে এই ঘটনাটি ঘটে। অগ্নিদগ্ধরা হলেন, ফারুক মিয়া (৫০), তার স্ত্রী চাম্পা বেগম (৪৫), মেয়ে রিফা বেগম ( ১৮), ছেলে এমাদউদ্দিন (১৪), ইমরান আহমদ (১২) ও নিজামউদ্দিন (১০)। ঘাটনার পর তাদেরকে গুরুতর আহত অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে চাম্পা বেগম, রিফা বেগম ও নিজামউদ্দিনের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানা গেছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রতিদিনের ন্যায় মঙ্গলবার ফারুক মিয়া ও তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা নিজ বসতঘরে ঘুমিয়ে পড়েন। রাত আনুমানিক ২টায় অসর্তকাবসত কয়েলের আগুণ থেকে ঘরে আগুণ লেগে যায়। আগুণের ধোয়ায় পরিবারের সদস্য ঘুম থেকে জেগে উঠেন এবং ঘর থেকে বাহির হওয়ার চেষ্টা করলে ঘরের চারিদিকে ছড়িয়ে পড়া আগুণে পরিবারের ৬জন সদস্য দগ্ধ হয়ে পড়েন।
তাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে ঘরের দরজা ভেঙ্গে তাদেরকে উদ্ধার করে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে প্রেরণ করেন। গুরুতর আহত চম্পা বেগম ও তার মেয়ে রিফা বেগমকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা প্রেরণের জন্য চিকিৎসকরা পরামর্শ দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন আহতদের স্বজন বিশ্বনাথ নতুনবাজার বণিক কল্যাণ সমিতির কমিশনার মো. আব্দুল মতিন রণি। তিনি বলেন, এই অসহায় পরিবারের চিকিৎসার জন্য আর্থিক সহযোগীতার খুবই প্রয়োজন। এজন্য আমরা বৃত্তবানদেরকে এগিয়ে আসার আহবান জানাচ্ছি।
একই সাথে রহিমপুর পূর্বপাড়া (রামপুর) গ্রামের বাসিন্দা ও ছহিফা এস.ডি মাদ্রাসার সুপার মাওলানা আব্দুর রউফসহ স্থানীয় অনেকেই বলেন, এঘটনাটি খুবই দুঃখজনক। বর্তমানে এই অসহায় পরিবারের পাশে বিত্তবানরা এগিয়ে আসাটা অতি জরুরী বলে তারা মনে করেন। কোন হৃদয়বান ব্যক্তিরা সহযোগীতা করতে চাইলে নিম্নের নাম্বারে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করা হলো। যোগাযোগের নাম্বার বিকাশসহ (পার্সনাল) ০১৭১১৩৬৬৮৯৩।


আরো সংবাদ