২৪ জানুয়ারি ২০২০

ক্ষমা চাওয়ার প্রশ্নই আসে না : রাহুল

-

‘রেপ ইন ইন্ডিয়া’ মন্তব্যে যতই বিতর্কের ঝড় উঠুক ক্ষমা চাওয়ার প্রশ্নই উঠে না বলে জানিয়েছেন ভারতীয় কংগ্রেসের নেতা রাহুল গান্ধী। শনিবার ভারত বাঁচাও সমাবেশে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

সমাবেশে তিনি বলেন, ‘গতকাল আমাকে পার্লামেন্টে বলা হয়- আমি একটি সমাবেশে যা বলেছিলাম তার জন্য আমার ক্ষমা চাওয়া উচিত। কিন্তু আমি সত্যি কথাই বলেছিলাম এবং তার জন্যেই আমাকে ক্ষমা চাইতে বলা হয়।’

রাহুল বলেন, ‘আমার নাম রাহুল সাভারকর নয় যে ক্ষমা চাইতে হবে। ভারতীয় অর্থনীতিকে ধ্বংস করার জন্য প্রধানমন্ত্রী ও তার সহযোগীকে ক্ষমা চাইতে হবে।’ প্রধানমন্ত্রী মোদিকে দেশের শত্রু বলেও আখ্যায়িত করেন তিনি।

রাহুল গান্ধী বলেন, ‘সবাই জানে আজ দেশের কী অবস্থা। ধর্মের ভিত্তিতে ভাগাভাগির উদ্দেশ্যে জম্মু-কাশ্মির ও নাগরিকত্ব আইন হল। আসাম, মণিপুর, অরুণাচল প্রদেশ, নাগাল্যান্ড, ত্রিপুরায় গেলেই দেখা যাবে সেখানকার অবস্থা। পুরো অঞ্চলকে উত্তপ্ত করেছে সরকার।’

সমাবেশে নরেন্দ্র মোদি সরকারকে তীব্র আক্রমণ করে বক্তব্য রাখেন সোনিয়া গান্ধী। তিনি বলেন, দেশ বাঁচানোর সময় এসেছে। আমাদের কঠিন সংগ্রাম করতে হবে।

প্রায় চার মাস পর এদিন কোন সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সোনিয়া। ৩৭০ ধারা বিলোপ থেকে নাগরিকত্ব আইন- নিয়ে সরকারের ব্যাপক সমালোচনা করেন সোনিয়া। বলেন, ‘নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন ভারতের আত্মীকে টুকরো টুকরো করবে। ঠিক যেমন ঘটছে আসাম ও উত্তর পূর্বে। সরকার যে নাগরিকত্ব সশোধনী আইন এনেছে তা দেশকে ধ্বংস করে দেবে। তবে, আমি আপনাদের আশ্বস্ত করছি যে, যাদের উপর অন্যায় হবে তাদের পাশে থাকবে কংগ্রেস।’

এছাড়াও সভায় বক্তব্য রাখেন কংগ্রেস সাধারণ সম্পাদকা প্রিয়াঙ্কা গান্ধী।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস


আরো সংবাদ