film izle
esans aroma Umraniye evden eve nakliyat gebze evden eve nakliyat Ezhel Şarkıları indirEzhel mp3 indir, Ezhel albüm şarkı indir mobilhttps://guncelmp3indir.com Entrumpelung wien Installateur Notdienst Wien webtekno bodrum villa kiralama
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ধর্ষকদের পিটিয়ে মারো : জয়া বচ্চনের বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা

-

ধর্ষণকারীদের ‘জনসমক্ষে পিটিয়ে মারা উচিত’ বলে মনে করেন ভারতের সমাজবাদী পার্টির (এসপি) এমপি জয়া বচ্চন। তেলঙ্গানায় পশু চিকিৎসককে গণধর্ষণ ও খুনের ঘটনা নিয়ে আলোচনার সময় রাজ্যসভায় দাঁড়িয়ে সোমবার অকপটে গণপিটুনির পক্ষে যুক্তি দেন তিনি। ফলে প্রশ্ন উঠেছে, আইনসভার একজন সদস্য কী ভাবে আমজনতাকে আইন হাতে তুলে নেয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন? সমালোচকদের মতে, গণপিটুনি নিয়ে জয়ার বক্তব্য সেকেলে এবং হাস্যকর।

তেলঙ্গানায় গণধর্ষণ করে পুড়িয়ে মারার ঘটনায় উত্তাল গোটা ভারত।সোমবার তার আঁচ পড়েছে পার্লামেন্টেও। কেউ চেয়েছেন মৃত্যুদণ্ড, কেউ বলেছেন লিঙ্গচ্ছেদ করা হোক অপরাধীদের। আর জয়ার দাবি, ‘‘আপনারা যদি নিরাপত্তা দিতে না-পারেন, তা হলে মানুষের হাতে বিচারের ভার ছেড়ে দিন। এই ধরনের লোকজনকে প্রকাশ্যে পিটিয়ে মারা উচিত।’’

জয়াকে অবশ্য এ দিন সমর্থন করেছেন লোকসভার তৃণমূল এমপি মিমি চক্রবর্তী। সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘‘তার সঙ্গে আমি একমত। আমি মনে করি না, ধর্ষকদের নিরাপত্তা দিয়ে আদালতে নিয়ে যাওয়া এবং বিচারের জন্য অপেক্ষা করা উচিত। অবিলম্বে সাজা দিতে হবে।’’ মিমির বক্তব্যে ক্ষুব্ধ তৃণমূল নেতৃত্বের বক্তব্য, মিমি যা বলেছেন, তা তার ব্যক্তিগত মত। তৃণমূল চায় ধর্ষকদের দ্রুত শাস্তি হোক, কিন্তু তা বিচারব্যবস্থার মাধ্যমে।

গত কয়েক বছরে কখনো গোমাংস খাওয়া, কখনও চোর বা শিশুচোর সন্দেহে, কখনও বা ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান না-দেয়ায় গণপিটুনির ঘটনা নিয়ে তোলপাড় হয়েছে ভারত। অধিকাংশ সময় অভিযোগের আঙুল উঠেছে গৈরিক শিবিরের বিরুদ্ধে। এ নিয়ে উদ্বেগ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে খোলা চিঠিও দিয়েছেন বিশিষ্টজনেদের একাংশ। সমালোচকদের মতে, এই রকম আবহে ‘পিটিয়ে মারা’র মতো মন্তব্য করা জয়ার উচিত হয়নি। তার মনে রাখা উচিত, সভ্য সমাজে রাস্তায় বিচারসভা বসানোর অবকাশ নেই।

সমালোচকদের বক্তব্য, জয়া সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষের মত নিয়ে কঠোর আইন প্রণয়নে সরকারকে পরামর্শ দিতে পারতেন। মহিলাদের নিরাপত্তা বাড়াতে কী ব্যবস্থা নেয়া উচিত, পুলিশের কী করা উচিত তা-ও বলতে পারতেন। কিন্তু তা না-করে তিনি প্রতিহিংসার পথই দেখালেন, তা-ও আবার পার্লামেন্টে দাঁড়িয়ে।
সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা


আরো সংবাদ

নাজমুল হুদার স্ত্রী ও দুই মেয়ের আগাম জামিন বহাল খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে ঢাবি ক্যাম্পাসে ছাত্রদলের বিক্ষোভ প্রবাসীদের জন্য দুদকের নতুন হটলাইন শিল্পকলায় পিঠা উৎসব শুরু ভয়কে জয় করতে না পারায় প্রতিবাদ গড়ে উঠছে না : আমীর খসরু ঢাকার ১১ ওয়ার্ডে এ বছরও এডিস মশার ঝুঁকিপূর্ণ উপস্থিতির আশঙ্কা পাঁচদফা দাবিতে সরকারি হাসপাতাল গুলোতে আন্দোলনের হুমকি সামাজিক ন্যায়বিচার নিশ্চিত করা সরকারের দায়িত্ব : গওহর রিজভী আইডিআরএর সার্কুলার বীমা সেক্টরে চরম নৈরাজ্য সৃষ্টি করবে সাইনবোর্ডে বাংলা ভাষা নিশ্চিতকরণে উত্তরায় ডিএনসিসির অভিযান ডিজিটালে রূপান্তর হচ্ছে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের ৪ সেবা

সকল




short haircuts for black women short haircuts for women