১৩ ডিসেম্বর ২০১৯

ভারতের মানচিত্র নিয়ে এবার নেপালেরও আপত্তি

ভারতের মানচিত্র নিয়ে এবার নেপালেরও আপত্তি - ছবি : সংগৃহীত

ভারত নতুন যে মানচিত্র প্রকাশ করেছে, তাতে আপত্তি জানিয়েছে নেপাল। ওই মানচিত্রে বিরোধপূর্ণ কালাপানি এলাকাকে দিল্লির সীমানার ভেতরে দেখানো হয়েছে। কাঠমান্ডু বলেছে, এই এলাকাটি নেপালের তা ‘স্পষ্ট’।
শনিবার ভারত নতুন মানচিত্র প্রকাশ করে। এর আগে দেশটি জম্মু ও কাশ্মির রাজ্যকে কেন্দ্রশাসিত দুটি প্রশাসনিক এলাকায় ভাগ করে।
ভারতের এই মানচিত্র নিয়ে এর আগে পাকিস্তানও প্রবল আপত্তি জানায়। পাকিস্তান কাশ্মির নিজের বলে দাবি করে। আবার লাদাখ নিয়েও চীনের সাথে বিরোধ রয়েছে ভারতের।

মানচিত্রটিতে কালাপানিকে ভারত সীমান্তের ভেতরে নেয়া হয়েছে। এই এলাকাটি নিয়ে নেপাল ও ভারতের মধ্যে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলছে। অর্ধ শতাধিক বছর আগে ওই এলাকায় ভারতীয় সৈন্য মোতায়েনের পর থেকেই আপত্তি করে আসছে নেপাল।

নেপালের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানায়, নেপাল তার আন্তর্জাতিক সীমান্ত রক্ষা করতে দৃঢ়প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।
এতে বলা হয়, বন্ধুপ্রতীম দুই দেশের সাথে সম্পর্কিত যেকোনো সীমান্ত-সংশ্লিষ্ট ইস্যু ঐতিহাসিক দলিলপত্র ও প্রমাণের ভিত্তিতে কূটনৈতিক চ্যানেলের মাধ্যমে মীমাংসা করা উচিত।
এতে আরো বলা হয়, নেপাল সরকার একতরফা কোনো সিদ্ধান্তই গ্রহণ করবে না।

কালি নদীজুড়ে ভারতের সাথে নেপালের পশ্চিম সীমান্ত প্রতিষ্ঠিত হয় ১৮১৬ সালের চুক্তির বলে। তবে নদীটির উৎস কোথায় তা নিয়ে দুই দেশের মতবিরোধ থেকে সীমান্ত বিতর্কের সৃষ্টি হয়।
প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা ওলির পররাষ্ট্রবিষয়ক উপদেষ্টা রাজন ভট্টাচার্য বলেছেন, আলোচনার মাধ্যমে এর সমাধান হওয়া উচিত।
তিনি এএফপিকে বলেন, মানচিত্রটির সত্যতা যাচাই করতে হবে আমাদেরকে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকেও সীমান্ত রেখা পরীক্ষা করা দরকার। তারপর আমরা কূটনৈতিক চ্যানেলের মাধ্যমে আলোচনা শুরু করব।
সূত্র : এএফপি


আরো সংবাদ




hacklink Paykwik Paykasa
Paykwik