২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯

তৃতীয় সন্তান ভোটাধিকার পাবে না, রামদেবের ফর্মূলা

রামদেব - ছবি : সংগৃহীত

ভারতের জনসংখ্যা একশো কোটি ছাড়িয়েছে অনেক আগেই। আগামী পঞ্চাশ বছরে সেটি দেড়শ কোটি ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। জনসংখ্যার চাপ সামলাতে ভারত সরকার বিভিন্ন পন্থা-পরিকল্পনা গ্রহণ করছে। জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার কমাতেও নেয়া হচ্ছে নানা পরিকল্পনা।

তবে এবার ভারত সরকারকে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের অভিনব পদ্ধতি বাতলে দিলেন দেশটির যোগগুরু ‘বাবা’ রামদেব। তিনি মনে করেন দেড়শ কোটি ছাড়িয়ে গেলে সেই জনসংখ্যা বোঝা হয়ে যাবে। তাই জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে। রামদেব চান কোন দম্পতি যাতে দুইটির বেশি সন্তান গ্রহণ না করে। এজন্য প্রচার প্রচারণায় কাজ হবে না,তাই কঠোর হতে হবে সরকারকে। রামদেব বলেন, এমন আইন করতে হবে যে, কোন দম্পতির তৃতীয় সন্তান হিসেবে যে জন্ম নেবে সে ভোটাধিকার পাবে না এবং নির্বাচনে প্রার্থীও হতে পারবে না। আর তাহলেই মানুষ দুইটির বেশি সন্তান নেবে না।

এই যোগগুরু এরপরই বলেছেন, তৃতীয় সন্তানের জন্য সরকারি সুযোগ সুবিধাও বাতিল করতে হবে।

ভারতীয় বার্তাসংস্থা এশিয়ান নিউজ ইন্টারন্যাশনাল(এএনআই) জানিয়েছে রামদেব বলেছেন, আমাদের জনসংখ্যা আগামী ৫০ বছরে কিছুতেই দেড়শ কোটি ছাড়িয়ে যাওয়া উচিত হবে না। এর চেয়ে বেশি জনসংখ্যা সামাল দিতে আমরা প্রস্তুত নই। জনসংখ্যা রোধ করা সম্ভব হবে যদি এমন আইন করা যায় যে, তৃতীয় সন্তান ভোটাধিকার পাবে না, নির্বাচনে দাড়াতে পারবে না এবং সরকারি কোন সুযোগ সুবিধাও পাবে না।

এক সংবাদ সম্মেলনে রামদেব এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, এই আইন করা হলে মানুষ দুইটির বেশি সন্তান জন্ম দেবে না। তাতে তারা যে ধর্মেরই হোক।

রামদেব সারা ভারতের গরু জবাই নিষিদ্ধ করারও দাবি জানান। তিনি বলেন, গরু জবাই পুরোপুরি নিষিদ্ধ করা হলে গরু ব্যবসায়ী ও ‘গো-রক্ষকদের’ মধ্যে সংঘর্ষ বন্ধ হবে। যারা গোশত খেতে চাইবে তারা গরু ছাড়া অন্য পশুরু গোশত খাবে। এসময় ভারতকে ঋষিদের দেশ উল্লেখ করে মদ নিষিদ্ধেরও আহ্বান জানান তিনি। সূত্র: জি নিউজ


আরো সংবাদ