২৬ জুন ২০১৯

৯৯০ রুপি ভাড়ায় মোদির কেদারনাথের ধ্যানগুহা, সাথে খাবার, ফোন, পরিচারকও

ধ্যানমগ্ন মোদি - সংগৃহীত

মাত্র ৯৯০ রুপি। এক দিন আগেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে উত্তরাখণ্ডের কেদারনাথের একটি গুহায় ধ্যান করতে দেখা গিয়েছিল। সব ধরনের আধুনিক সুযোগসুবিধাসম্পন্ন ওই গুহাটি ভাড়া নিতে দিনপিছু ব্যয় করতে হবে ৯৯০ রুপি।

জানা গেছে, ধ্যান করার জন্য গুহা— এই ধারণাটি জনপ্রিয় করার জন্যই এক বছর আগে কেদারনাথে এই গুহা তৈরি হয়। গাড়োয়াল মণ্ডল বিকাশ নিগমের (জিএমভিএন) কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, মোদির পরামর্শ অনুযায়ী তৈরি করা হয় এই রুদ্র ধ্যান গুহাটি। কেদারনাথ মন্দির থেকে প্রায় এক কিলোমিটার উঁচুতে অবস্থিত এই গুহাটিতে বিদ্যুৎ, খাবার পানি এবং শৌচালয় রয়েছে। ধ্যান করার জন্য গুহাটি তৈরি করা হলেও আপৎকালীন পরিস্থিতিতে ব্যবহারের জন্য একটি টেলিফোনও ওই গুহায় রাখা আছে। পাথরে তৈরি এই গুহাটিতে কাঠের দরজাও রয়েছে। শুধু তাই নয়, নিগমের পক্ষথেকে প্রাতরাশ, দুপুর ও রাতের খাবারের পাশাপাশি গুহাবাসী পর্যটকের পছন্দমতো সময়ে দু’বার চাও দেয়া হয়। সব সময়ের জন্য একজন পরিচারকও থাকেন। কলিং বেল বাজালেই হাজির হন ওই পরিচারক। তবে ধ্যান করার জন্য তৈরি করা ওই গুহাটিতে শুধুমাত্র একজনকেই থাকার অনুমতি দেয়া হয় বলে জিএমভিএন সূত্রে খবর।

জানা গেছে, প্রাথমিকভাবে এই গুহাটির ভাড়া দিনপিছু ৩ হাজার রুপি ধার্য করা হয়েছিল। কিন্তু গত বছর বিশেষ লোকজন না আসায় ভাড়া কমিয়ে ৯৯০ রুপি করা হয়। জিএমভিএন-এর সাধারণ সম্পাদক বিএল রানা বলেন, ‘গত বছর এই গুহাটি যখন খোলা হয়, তখন বেশ ঠান্ডা পড়ে গিয়েছিল। সেই কারণে বিশেষ কোনো পর্যটক আসেননি। পাশাপাশি, আমরা বুঝতে পেরেছিলাম যে ভাড়াও অনেকটাই বেশি।’ আরো জানা গেছে, এর আগে অন্তত তিন দিনের জন্য গুহাটি ভাড়া নিতে হতো। সেই নিয়মেও নিগমের তরফে বদল আনা হয়েছে। এই গুহায় রাত্রিবাসের জন্য বিশেষ শারীরিক পরীক্ষাও করা হয়। শারীরিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে তবেই থাকার অনুমতি মেলে।


আরো সংবাদ