২০ মে ২০১৯

কাপড় খুললেই চেনা যায় মুসলমানদের : বিজেপি নেতার বক্তব্যে সমালোচনার ঝড়

শ্রীধরন পিল্লাই - সংগৃহীত

ভারতের কেরালা রাজ্যের বিজেপি সভাপতি পি এস শ্রীধরন পিল্লাই বলেছেন, কাপড় খুলে পরীক্ষা করেই কেবল মুসলমান চিহ্নিত করা যেতে পারে। তার এই বিতর্কিত মন্তব্যে সেখানে সমালোচনার ঝড় বইছে।

ভারতের গণমাধ্যম দ্য নিউজ মিনিট-এ প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, কেরালার আট্টিনগালে বিজেপির স্থানীয় প্রার্থী শোভা সুরেন্দ্রের নির্বাচনী প্রচারণা চালানোর সময় শ্রীধরন এ কথা বলেন। সরকার বিরোধীরা বালাকোট হামলায় নিহতদের ব্যাপারে বিজেপির দেয়া তথ্যের যে সমালোচনা করেছে, তার জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

বালাকোটে বিমান হামলার ব্যাপারে তিনি বলেন, আমাদের রাহুল গান্ধি, ইয়েচুরি এবং পিনারাইরা আমাদের সেনাদের অপমান করতে চায়। ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের ঘায়েল করে তিনি তার বক্তব্যে আরো বলেন, যদি এটা ইসলাম হয়, তাহলে তাদের আর কোনো চিহ্ন রয়েছে? যদি তাদের কাপড় খুলে ফেলা হয়, তাহলেই কেবল তাদের চেনা যেতে পারে।

তার এ বক্তব্য ভাইরাল হয়ে যাওয়ার পর ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন বিজেপির এই নেতা। কিন্তু তাকে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি এ ধরনের বক্তব্য দেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেন এবং এ বিষয়ে আইনি পদক্ষেপ নেয়ার হুমকি দেন।

উল্লেখ্য, এর আগেও বিজেপি নেতারা এ ধরনের বিতর্কিত বক্তব্য প্রদান করেছেন।

 

আরো পড়ুন : পুরো পাকিস্তান জ্বালিয়ে দেয়া উচিত : বিজেপি নেতা
নয়া দিগন্ত অনলাইন, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:১৪

ভারতের হায়দরাবাদের এক বিজেপি বিধায়ক বলেছেন, ভারতীয় বিমানবাহিনীর উচিত ছিল পুরো পাকিস্তানকে জ্বালিয়ে দেয়া। বিজেপির এমএলএ রাজা সিংয়ের ভাষায়, সন্ত্রাসীদের লালন-পালন এবং ভারতে হামলায় উৎসাহ দেয়ার অভিযোগে এ ব্যবস্থা নেয়া উচিত।

পুলওলামা হামলায় পাকিস্তানকে দায়ী করে গত মঙ্গলবার পাকিস্তানে হামলা চালানোর দাবি করে ভারত। পরে আনুষ্ঠানিক বক্তব্যে তারা জানায়, পাকিস্তানের অভ্যন্তরে প্রবেশ করে তারা বেশ কয়েকটি সশস্ত্র সংগঠনের ঘাঁটি বিধ্বস্ত করেছে। এতে সেখানে থাকা প্রচুর লোকজন নিহত হয়।

পাকিস্তান অবশ্য তাদের এ দাবি উড়িয়ে দিয়ে বলেছে, তারা আকাশসীমা লঙ্ঘন করেছিল। কিন্তু পাকিস্তানি বিমানবাহিনীর তাৎক্ষণিক প্রতিরোধের মুখে তারা পালিয়ে যায়। তবে আকাশসীমা লঙ্ঘনের এ ঘটনায় তারা যথাসময়ে সমুচিত জবাব দেবে।

এদিকে পাকিস্তানে হামলার এ খবর শুনে পুরো ভারত উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়ে। রাজা সিং এ সংবাদ শুনে বলেন, পুলওলামায় সিআরপিএফের গাড়িবহরে সাম্প্রতিক প্রতিশোধ নিতে ভারতের বিমানবাহিনীর নায়কদের উচিত ছিল পাকিস্তানকে আরো ভালোভাবে শিক্ষা দেয়। পুরো শত্রুদেশই জ্বালিয়ে দেয়া উচিত ছিল।

সামাজিক গণমাধ্যমে পাওয়া একটি ভিডিওতে দেখা যায়, রাজা সিং বলছেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সিআরপিএফের জওয়ানদের ওপর হামলার প্রেক্ষিতে যে প্রতিশোধ নেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তা রক্ষা করেছেন। ভারতের বিমানবাহিনী পাকিস্তানে যে হামলা চালিয়েছে তাতে দেশের জনগণ সন্তুষ্ট। ভারতের নিরাপত্তা বাহিনী পাকিস্তানকে যথোপযুক্ত জবাব দিয়েছে।


আরো সংবাদ