২০ মে ২০১৯

বিজেপির নির্বাচনী প্রচারণায় হামলা, বর্তমান বিধায়কসহ নিহত ৫

মাওবাদী বিদ্রোহীদের হামলায় বিধ্বস্ত বিজেপি বিধায়ক ভীমা মাণ্ডভির গাড়ি। (ইনসেটে) নিহত বিধায়ক ভীমা মাণ্ডভি - সংগৃহীত

লোকসভা নির্বাচনের ঠিক দুদিন আগে ভারতের ছত্তিশগড় রাজ্যে মাওবাদীদের হামলায় বিজেপির সংসদ সদস্য (বিধায়ক) ভীমা মাণ্ডভিসহ পাঁচজন নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজ্যের দন্তেওয়াড়া নামক স্থানে এই ঘটনা ঘটে। নিহত বিধায়ক ওই এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে গিয়েছিলেন। নির্বাচনী প্রচারণা চালানোর একপর্যায়ে মাওবাদী বিদ্রোহীরা তার গাড়িবহরে হামলা চালালে বিধায়ক ভীমা মাণ্ডভিসহ পাঁচজন নিহত হয়।

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, হামলার পর নিরাপত্তা বাহিনীর সাথে সশস্ত্র মাওবাদী হামলাকারীদের বন্দুকযুদ্ধ হয়। হামলায় নিহত বিধায়ক ছাড়া বাকি চারজন তার নিরাপত্তা নিরাপত্তাকর্মী বলে জানা গেছে।

এদিকে পুলিশের বরাত দিয়ে এনডিটিভি জানিয়েছে, মঙ্গলবার দন্তেওয়াড়ায় ক্ষমতাসীন বিজেপিদলীয় বিধায়ক ভীমা মাণ্ডভি ভোটের প্রচারের কাজে যান। সে সময় অত্যাধুনিক বিস্ফোরক ও অস্ত্রের মাধ্যমে মাওবাদীরা বিদ্রোহীরা তার গাড়িতে হামলা চালালে ঘটনাস্থলেই পাঁচজন নিহত হন।

স্থানীয় প্রশাসন মাওবাদী ওই হামলায় বিজেপি বিধায়ক ভীমা মাণ্ডভির নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছেন। ঘটনাস্থলের ছবি দেখে বিশেষজ্ঞরা অনুমান করছেন যে, আইইডি বিস্ফোরণের মাধ্যমে এই হামলা চালানো হয়েছে।

হামলার ঘটনার পরে নিরাপত্তা কর্মীদের অস্ত্র লুট করে পালিয়ে যায় মাওবাদী বিদ্রোহীরা। অন্য একটি সূত্র বলছে, মাওবাদীদের সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ বন্দুকযুদ্ধও হয়েছে নিরাপত্তারক্ষীদের। এদিকে হামলার জেরে সমস্ত নির্বাচনী প্রচার স্থগিত রেখেছেন মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল। পুলিশ প্রশাসনের শীর্ষকর্মকর্তাদের সঙ্গে নিজের সরকারি বাসভবনে সন্ধ্যায় বৈঠকও করেন মুখ্যমন্ত্রী।

এদিকে পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার বিকেলে দন্তেওয়াড়ার কিরণ্ডুল এলাকায় একটি নির্বাচনী প্রচার কর্মসূচিতে যোগ দিয়েছিলেন বিধায়ক ভীমা মাণ্ডভি। প্রচার কাজ শেষ করে ফিরছিলেন নকুলনার এলাকায়। ফেরার পথে একটি শর্টকার্ট রাস্তা বেঁছে নেয় তার গাড়ি। সেই রাস্তাতেই নকুলনার থেকে চার কিলোমিটার আগে শ্যামগিরির কাছে হামলা চালায় মাওবাদীরা।

পুলিশ সূত্র আরো বলছে, নকুলনারের কাছে বিধায়কের গাড়ি আসতেই তীব্র বিস্ফোরণ ঘটে। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় বিধায়ক-সহ পাঁচ নিরাপত্তা কর্মীর। নিরাপত্তা কর্মীরা ছত্তীশগড় পুলিশে কর্মরত বলে প্রাথমিক ভাবে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, মাওবাদী অধ্যুষিত এলাকায় নির্বাচনী প্রচারে যাওয়ার জন্য নেতাদের সাধারণত দেয়া হয় সাঁজোয়া গাড়ি বা আর্মার্ড  ভেহিকল। ছোটখাটো আঘাত বা বিস্ফোরণে সেই গাড়িগুলির কোনো ক্ষতি হয় না। কিন্তু বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে সেই গাড়িও কার্যত ছিন্নবিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। রাস্তা থেকে ছিটকে পড়ে বিধায়কের গাড়িটি। বিস্ফোরণস্থলে দেখা গিয়েছে, রাস্তার বেশ কিছুটা অংশ জুড়ে তৈরি হয়েছে বড়সড় গর্ত।

তা থেকেই গোয়েন্দাদের অনুমান, আইইডি বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। অন্তত ২০ কেজি বিস্ফোরক ব্যবহার করেছে মাওবাদীরা। ছত্তীশগড়ের ডিআইজি (অ্যান্টি নকশাল অপারেশনস) পি সুন্দর রাজ সংবাদ মাধ্যমে নিশ্চিত করেছেন যে, মাওবাদী বিদ্রোহীদের হামলায় বিজেপি বিধায়ক ভীমা মাণ্ডভির মৃত্যু হয়েছে।

বেশ কিছুদিন ধরেই ভোট বয়কটের ডাক দিয়ে ওইএলাকায় পোস্টার ছড়িয়েছিল মাওবাদীরা। একই সঙ্গে হুমকি দেয়া হয়েছিল, কোনো নেতা নির্বাচনী প্রচারে এলে তাকে হত্যা করা হবে। কিন্তু সে সব উপেক্ষা করেই প্রচারে গিয়েছিলেন বিজেপি বিধায়ক। কিন্তু যে ভোটের জন্য প্রচারে গিয়েছিলেন, সেই লোকসভা ভোটের আগেই বিদ্রোহীদের হামলায় নিহত হলেন ভীমা মাণ্ডভি।

উল্লেখ্য, কংগ্রেস প্রার্থী দেবতি কারমাকে হারিয়ে গত বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির প্রার্থী হিসেবে তিনি ছত্তিশগড় প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন।

তাছাড়া আগামী ১১ এপ্রিল বৃহস্পতিবার ছত্তিশগড়ে একমাত্র যে কেন্দ্রটিতে ভোটগ্রহণের কথা রয়েছে সেটি মাওবাদী অধ্যুষিত এলাকা হিসেবে পরিচিত।


আরো সংবাদ