১৮ অক্টোবর ২০১৯

এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ইস্যুতে ভারতের দাবি প্রত্যাখ্যান যুক্তরাষ্ট্রের

পাকিস্তানের অত্যাধুনিক এফ-১৬ যুদ্ধবিমান - ফাইল ছবি

নয়াদিল্লীর অভিযোগ, ভারতের বিরুদ্ধে আকাশযুদ্ধে অত্যাধুনিক এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ব্যবহার করেছে পাকিস্তান। আর তাই আকাশযুদ্ধে পাকিস্তানের সাথে পেরে ওঠেনি ভারত। পাকিস্তানি বিমানবাহিনীর হামলায় দুটি মিগ যুদ্ধবিমান হারিয়েছে ভারত। নিহত হয়েছে দুইজন ভারতীয় পাইলটও। একজন জীবিত ধরা পড়ে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর কাছে। আর তাই যুদ্ধে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ব্যবহারের অভিযোগে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কাছে অভিযোগ করে ভারত।

কিন্তু নয়াদিল্লীর দাবির প্রেক্ষিতে ইসলামাবাদের বিরুদ্ধে কোনো ধরণের পদক্ষেপ নেয়ার বিষয়টি প্রত্যাখ্যান করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। দেশটির পররাষ্ট্র দফতর বলছে, পাকিস্তান ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার দ্বিপক্ষীয় চুক্তি ও ইস্যুগুলোর ব্যাপারে কোনো প্রকাশ্য মন্তব্য করবে না ওয়াশিংটন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতরের ডেপুটি মুখপাত্র রবার্ট পাল্লাদিনো বলেন,‘এই বিষয়ে (ভারতের সাথে যুদ্ধে পাকিস্তানের এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ব্যবহার) প্রকাশিত রিপোর্টগুলো আমরা দেখেছি এবং এই ইস্যুটি আমরা গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছি। আমি নিশ্চিতভাবে কিছু বলতে পারছি না, তবে আমাদের নীতি হলো মার্কিন প্রতিরক্ষা প্রযুক্তিসহ দ্বিপক্ষীয় চুক্তি ও ইস্যুগুলোর ব্যাপারে আমরা প্রকাশে কোনো মন্তব্য করবে না ওয়াশিংটন।’

মঙ্গলবার সাংবাদিকদের সাথে ব্রিফিংকালে পাল্লাদিনো আরো বলেন, এই ধরণের ইস্যুগুলোতে ওয়াশিংটন অন্য দেশগুলোর সাথে কি আলোচনা করছে তাও প্রকাশ করবে না মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের ডেপুটি মুখপাত্র বলেন,‘আমরা এই বিষয়ে পর্যবেক্ষণ করছি এবং তা অব্যাহত থাকবে। এর বেশি আমি আর কিছু বলতে পারবো না।’

অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমান এফ-১৬ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হাতে তৈরি এবং দ্বিপাক্ষিক চুক্তির আওতায় ইসলামাবাদের নিকট এই যুদ্ধবিমান হস্তান্তর করে ওয়াশিংটন। তবে চুক্তির শর্তের মধ্যে রয়েছে, পাকিস্তান এই যুদ্ধবিমান কেবল সন্ত্রাসবিরোধী কার্যক্রমে ব্যবহার করবে এবং কোনো দেশের সাথে যুদ্ধে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ব্যবহার করা যাবে না।

এদিকে পাকিস্তানে হামলা করতে এসে পাকিস্তানি বিমানবাহিনীর পাল্টা হামলায় দুইটি ভারতীয় যুদ্ধবিমান ভূপাতিত হয়। এ ঘটনায় দুই ভারতীয় পাইলট নিহত হয় এবং একজনকে জীবিত আটক করে পাকিস্তান। এরপর আভ্যন্তরীণ ব্যাপক সমালোচনার মুখে ভারত দাবি করে যে, আকাশযুদ্ধে পাকিস্তান এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ব্যবহার করেছে। অবশ্য আকাশযুদ্ধে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ব্যবহার করা হয়নি বলে জানা পাকিস্তান। এই ইস্যুতে ওয়াশিংটনের সাথে চুক্তি ভঙ্গ হয়েছে দাবি করে পাকিস্তানের পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কাছে অভিযোগ করে ভারত। অবশ্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এ বিষয়ে এখনো কোনো মন্তব্য করেনি।

এদিকে বুধবার নিউ ইয়র্ক টাইমসের সাংবাদিক ও দক্ষিণ এশিয়াবিষয়ক করেস্পনডেন্ট মারিয়া আবি-হাবিব বলেন, পাকিস্তান যদি আত্মরক্ষার স্বার্থে ভারতের সাথে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ব্যবহার করেও থাকে, তবে নয়াদিল্লীর জোরাজুরির পরও এটি এফ-১৬ বিক্রির নীতিমালা ভঙ্গ করবে না।

মারিয়া আবি-হাবিব ব্যাখ্যা করে বলেন যে, পাকিস্তানের হাতে থাকা মার্কিন নির্মিত এফ-১৬ যুদ্ধবিমানগুলো যদি ভারতের বিপক্ষে যুদ্ধে ইসলামাবাদ ব্যবহার করেও থাকে, তারপরও কিভাবে এই যুদ্ধবিমানের ক্রয়চুক্তি লঙ্ঘিত হয়নি। তিনি বলেন,‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বলছে যে, ভারতীয় মিগ যুদ্ধবিমান গুলি করে ভূপাতিত করতে যদি পাকিস্তান এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ব্যবহার করেও থাকে, তারপরও পাকিস্তান-মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র চুক্তির লঙ্ঘন হবে না।’

তিনি আরো বলেন,‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র মনে করছে যে, ভারত দ্বিতীয়বারের মতো পাকিস্তানের আকাশসীমায় প্রবেশ করার পর পাকিস্তান যদি আত্মরক্ষার স্বার্থে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ব্যবহার করে থাকে, তাহলে চুক্তির শর্ত ভঙ্গ হয়নি। কিন্তু পাকিস্তান যদি ভারতে প্রথমে হামলা করতো এবং সেই হামলায় এফ-১৬ ব্যবহার করা হলে চুক্তির শর্ত লঙ্ঘন করা হতো।’

এদিকে নিজেদের দুটি যুদ্ধবিমান হারানোর পরে ভারতীয় বিমানবাহিনী পাল্টা দাবি করে যে, তারাও পাকিস্তানের একটি এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করেছে। যদিও এর পক্ষে কোনো প্রমাণ দিতে পারেনি নয়াদিল্লী।

আবি-হাবিব আরো বলেন, পাকিস্তানি এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করার বিষয়ে ভারতের দাবি বিশ্বাস করার মতো কোনো কারণ এখনো পায়নি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। সূত্র : দ্য ডন।


আরো সংবাদ




astropay bozdurmak istiyorum
portugal golden visa