২৭ জুন ২০১৯

ভারতে তিতলিতে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি অন্ধ্র প্রদেশে

-

ঘূর্ণিঝড় তিতলির আঘাতে তছনছ হয়ে গেছে ভারতের অন্ধ্র প্রদেশ ও ওড়িষ্যার একাংশ। বৃহস্পতিবার সকালে অন্ধ্রের শ্রীকাকুলামে ১৬৫ কিলোমিটার বেগে আছড়ে পড়ে ঘূর্ণিঝড়। সাথে প্রবল বর্ষণ। এখনো পর্যন্ত সেখানে মৃতের সংখ্যা ৭। বিজয়নগরম জেলায় অবস্থা খুবই শোচনীয়।

এদিকে ওড়িষ্যায় এখনো মৃত্যুর কোনো খবর নেই। তবে পানিতে ডুবে মৃত্যু হয়েছে এক কিশোরের। পাশাপাশি ছয় জন নিখোঁজ বলে জানা যাচ্ছে। শুক্রবার সকালেও ওড়িষ্যা ও অন্ধ্র সীমানায় প্রবল বেগে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যায়। বিশাখাপত্তনম থেকে ১৯৫ কিলোমিটার দূরের শ্রীকাকুলামে ওই ঝড়ের গতি ছিল দেড়শো কিলোমিটারের ওপরে। গতকাল রাতভর ওই গতিতে ঝড় বয়ে চলে।

তিতলির প্রভাবে ওড়িষ্যায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে গঞ্জাম ও গজপতি জেলায়। তবে সমুদ্র উপকূলবর্তী এলাকা থেকে ৩ লাখ মানুষকে সরিয়ে ফেলায় ক্ষয়ক্ষতি অনেকটাই এড়ানো গেছে।

অন্ধ্রের শ্রীকাকুলাম ও বিজয়নগরমের সবচেয়ে বেশি ক্ষতি করে গিয়েছে তিতলি। কয়েক হাজার গাছ উপড়ে মাটিতে পড়েছে। জেলার অধিকাংশ অংশে রাস্তাঘাট শুনশান।

অন্যদিকে, ওডি়ষ্যার পুরী, পারাদ্বীপে সমুদ্র উত্তাল। দক্ষিণ ওড়িষ্যার রায়গাড়া, গজপতি, কান্দামালে প্রবল বর্ষণ হয়। গঞ্জাম শহর জেলার অন্যান্য অংশ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে।

সূত্র : জি নিউজ


আরো সংবাদ

দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে জয়ের আভাস দিচ্ছে পাকিস্তান বিন্দুমাত্র সুযোগ থাকলেও ভারতের বিপক্ষে নামবো : মাহমুদউল্লাহ নির্যাতন বন্ধে সরকারের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ বাবর-হাফিজের ব্যাটে ছুটছে পাকিস্তান ঝুলে গেল আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার নির্বাচন আগামী বছর ফের ভোট ব্যবসায়ী ভ্রমণ কোটার আওতায় এলেন এজেন্টরা ১০ হাজার ডলার ব্যয় করার অনুমোদন দিয়ে বৈদেশিক মুদ্রার নীতিমালা শিথিল দীর্ঘ মেয়াদে ওয়াশ খাতে ব্যয়ের প্রবণতা ক্রমেই কমছে ড. হোসেন জিল্লুর গতিহীন সাক্ষরতার হার বৃদ্ধির প্রকল্প ৫ বছরে অগ্রগতি ৩৬.২৭ শতাংশ; মূল কাজ শুরু করতেই তিন বছর পার সুলতানি আমলের স্মৃতিবিজড়িত বারো দুয়ারি মসজিদ অনন্য স্থাপত্য সৈয়দপুরে দাদা-নাতিসহ বিভিন্ন স্থানে নিহত ১০ বিনামূল্যে বিতরণের জন্য ১৭ কোটি ১৯ লাখ বই ছাপানো হচ্ছে

সকল