film izle
esans aroma Umraniye evden eve nakliyat gebze evden eve nakliyat Entrumpelung wien Installateur Notdienst Wien
১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

বাংলাদেশের মিশন আজ শুরু যুব বিশ্বকাপে প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে

-

আজ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপের ত্রয়োদশ আসর শুরু করবে বাংলাদেশ। গতকাল শুক্রবার ডায়মন্ড ওভালে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা ও আফগানিস্তান ম্যাচ দিয়ে পর্দা উঠে বিশ্ব মঞ্চের। বাংলাদেশ সময় বেলা ২টায় পোচেফস্ট্রুমের জেবি মার্কস ওভালে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ের ম্যাচটি শুরু হবে। খেলাটি সরাসরি সম্প্রচার করবে স্টার স্পোর্টস-৩। চারটি গ্রুপে ১৬ দল নিয়ে বসেছে এবারের আসর। বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে ছাড়াও দু’বারের চ্যাম্পিয়ন পাকিস্তানসহ স্কটল্যান্ড পড়েছে গ্রুপ ‘ডি’ তে।
এক সপ্তাহের ক্যাম্প শেষে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের চ্যালেঞ্জে মুখোমুখি হতে সম্পূর্ণ প্রস্তুত বাংলাদেশের যুবারা। গত যুব বিশ্বকাপের পর থেকে ৩৩টি ওয়ানডে খেলে ১৮টিতে জিতেছে বাংলাদেশ। হেরেছে ৮টিতে, টাই হয়েছে একটি, পরিত্যক্ত হয়েছে ছয়টি ম্যাচ। সাফল্যের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখে, এবার নিজেদের দক্ষতার প্রমাণ করার সময় এসেছে। সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক আকবর আলীও জানিয়েছেন সেটি। নিজেদের লক্ষ্যের কথা বলতে গিয়ে আকবর বলেন, ‘এখানে খেলতে পেরে ভালো লাগছে। আমি মনে করি, বিশ্বকে আমাদের দক্ষতা দেখানোর এটি দারুণ সুযোগ। আমরা ভালো প্রস্তুতি নিয়েছি। এখন মুখিয়ে আছি এই বৈশ্বিক আসরে খেলার জন্য। ছেলেরাও বেশ রোমাঞ্চিত বিশ্বকাপ খেলতে পেরে।’ প্রস্তুতি ম্যাচে সে রকমই আভাস দিয়েছে তার দল। প্রথম ম্যাচে ফেভারিট অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টাই করে নিজেদের শক্তিমত্তার কথা জানিয়ে রাখল টাইগাররা।
মূল ময়দানেও সেটি ধরে রাখতে আশাবাদী যুবা অধিনায়ক। তিনি বলেন, ‘আমাদের স্কোয়াড বেশ ভারসাম্যপূর্ণ, ব্যাটিং, বোলিং ও ফিল্ডিংÑ তিন বিভাগই ভালো অবস্থানে আছে। আমাদের দলের সবাই খুবই প্রতিভাবান। আমরা যদি সামর্থ্য অনুযায়ী খেলতে পারি, তা হলে আমরা টুর্নামেন্টের শেষের দিকে যেতে পারব।’
জিম্বাবুয়ের পর বাংলাদেশ ২১ জানুয়ারি খেলবে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে। ২৪ জানুয়ারি গ্রুপে নিজেদের শেষ ম্যাচে যুবাদের প্রতিপক্ষ পাকিস্তান। আপাতত কেবল জিম্বাবুয়েকে নিয়েই ভাবছেন আকবর। আকবর বলেন, ‘জিম্বাবুয়ে ভালো দল। আমরা ওদের সবশেষ সিরিজটি দেখেছি। ওদের হারাতে হলে আমাদের সেরা খেলাটাই খেলতে হবে।’ এরই মধ্যে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ দিয়ে নিজেদের ঝালিয়ে নিয়েছে বাংলাদেশ দল। ব্যাট হাতে পারভেজ হোসেন, তৌহিদ হৃদয় ও শামিম হোসেন তিনজনের অর্ধশতক এবং বল হাতে হাসান মুরাদ-শাহীন আলমরা জানিয়ে রাখলেন প্রথম শিরোপা জয়ের সন্ধানেই তারা প্রোটিয়ার দেশে গেছেন।
শেষ পাঁচবারের দেখায় সব ক’টিতে জিম্বাবুয়েকে হারিয়েছে বাংলাদেশের যুবারা। সর্বশেষ ২০১৫ সালে বাংলাদেশে আসে জিম্বাবুয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ দল। সে সময় চার ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয় তারা। শেষ দেখায় চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের দেয়া ২৪৩ রানের জবাবে ১১৮ রানে অলআউট হয়ে যায় জিম্বাবুয়ে যুবারা। ম্যাচটি বাংলাদেশ দল জিতে ১১৮ রানে। দুই প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশ একটিতে টাই করেছে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ও অন্যটি ৪ উইকেটে হারে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। অন্য দিকে জিম্বাবুয়ের ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটি বৃষ্টির কারণে হয় পরিত্যক্ত। দ্বিতীয় ম্যাচে শক্তিশালী ভারতের দেয়া ২৯৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করে ২৩ রানে হারে ডিওন মাইরসের দল। জিম্বাবুয়েও কম যাবে না সেটি প্রস্তুতি ম্যাচে তারা জানিয়ে দিয়েছে। তবে বিশ্বমঞ্চে অনেক হিসাব-নিকাশই উল্টে যায়। কোনো দলই ছাড় দিতে খেলতে আসে না। সব দলের লক্ষ্য শিরোপার দিকে। তাই কোনো দলকে পিছিয়ে রাখার সুযোগ নেই। দুই দলের লক্ষ্যই জয় দিয়ে বিশ^কাপ শুরু।

 

 


আরো সংবাদ