১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

বিপিএলের লভ্যাংশ দাবি ফ্র্যাঞ্চাইজিদের সাকিবের সাথে মাশরাফিকেও চায় রংপুর

-

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ক্রিকেট- বিপিএলের অর্জিত অর্থ থেকে লভ্যাংশ দাবি করেছে অংশগ্রহণকারী দল খুলনা ও রাজশাহী। তাদের যুক্তি প্রতি বছর অনেক অর্থ খরচ করে দল গড়া হলেও খুব একটা সুবিধা করতে পারে না ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো।
বিপিএলের গভর্নিং কাউন্সিলের সাথে প্রত্যেক ফ্র্যাঞ্চাইজির চুক্তি চার বছরের। ওই চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়েছে গত আসরেই। তাই আসন্ন সপ্তম আসরের আগে নতুন করে চুক্তি নবায়ন করতে হবে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর। সাথে পরবর্তী চার মওসুমের জন্য নতুন বাইলজ তৈরি করবে বিপিএলের গভর্নিং কাউন্সিল। কিন্তু কোনো চুক্তি সম্পন্ন না হওয়ায় আগে বেশ কয়েকটি ফ্র্যাঞ্চাইজি দেশী-বিদেশী ক্রিকেটার দলে ভেড়াচ্ছে। যা নিয়ম বহির্ভূত বলছে বিপিএলের গভর্নিং কাউন্সিল।
তাই ডিসেম্বরে সপ্তম আসর শুরুর আগে দলগুলোর সাথে চুক্তি নবায়ন ও বাইলজের নানা দিক নিয়ে বৈঠকে বসে গভর্নিং কাউন্সিল। যেখানে প্রথম দিনে বৈঠকে অংশ নেয় ঢাকা, খুলনা ও রাজশাহী। দলগুলোর দাবি, লভ্যাংশের ভাগ চাই তাদের। যেমন আইপিএলের ফ্র্যাঞ্চাইজিরা পেয়ে থাকে। ঢাকা ডায়নামাইটসের প্রধান নির্বাহী ওবায়েদ নিজাম বলেন, আইপিএলে দলগুলো নানাভাবে অনেক বেশি সুবিধা পেয়ে থাকেন। খুলনা টাইটান্সের কর্ণধার কাজী এনাম আহমেদ বলেন, বিসিবি তাদের আয়ের দিকে খেয়াল করে আমাদের জন্য বাড়তি লাভের ব্যবস্থা করতে পারে। অনেকের মতে, বিপিএলের বাইলজের ফাঁকফোকর থাকে। পরবর্তী চার মওসুমে সেটা যেন না থাকে তারও শক্ত ভিত্তির দাবি ফ্র্যাঞ্চইজিগুলোর।
এদিকে বিপিএলের গত দুই আসরে রংপুরকে নেতৃত্ব দিয়েছেন মাশরাফি। রিটেইন প্রক্রিয়ায় আগামী আসরেও তাকে ধরে রাখতে চায় রংপুর। আইকন ক্যাটাগরিতে ঢাকা ডায়নামাইটস ছেড়ে এবার রংপুরের সাথে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন সাকিব।
নতুন কাঠামো তৈরির আগেই চুক্তি সেরে ফেলায় কিছুটা বিপাকেই পড়েছে বিসিবির এই কমিটি। প্রাথমিকভাবে তারা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এবার রিটেইন প্রক্রিয়া থাকবে না। সব হবে নতুন করে। শেষ পর্যন্ত রংপুরের দুটি দাবিই যদি মেনে নেয়া হয় তাহলেই কেবল সম্ভব মাশরাফি ও সাকিবকে তাদের দলে রাখা। গতকাল দলটির প্রধান নির্বাহী ইসতিয়াক সাদেক সাংবাদিকদের জানান তাদের মূল দাবি ছিল দুটি। যার একটি, প্লেয়ার্স ড্রাফটের আগেই যেন অন্তত একজন স্থানীয় খেলোয়াড়কে সরাসরি দলে ভেড়ানো যায়। দ্বিতীয়টি খেলোয়াড় রিটেইন পদ্ধতি অর্থাৎ গত আসর থেকে কিছু খেলোয়াড় নিজ নিজ দলে ধরে রাখা। দুটি দাবিই যদি বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল মেনে নেয় তাহলে বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-২০ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান এবং ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাকে দেখা যেতে পারে রংপুরের তাঁবুতে।

 


আরো সংবাদ