film izle
esans aroma Umraniye evden eve nakliyat gebze evden eve nakliyat Entrumpelung wien Installateur Notdienst Wien
১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

মহিলা হকি দলের দ্বিতীয় টেস্ট আজ

-

তিন বছর ধরে ধীরে ধীরে একটি মহিলা হকি দল গঠনের লক্ষ্যে কাজ করছেন তারিকুজ্জামান নান্নু। সেই দলটিই আজ স্বপ্ন দেখছে আগামী ৯-১৫ সেপ্টেম্বর সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিতব্য ওমেন্স জুনিয়র (অ-২১) এএইচএফ কাপে খেলার। আর সেটিকে সামনে রেখে নিজেদের প্রমাণ করতে স্পোর্টস অথরিটি অব ইন্ডিয়া (সাই) অ্যাকাডেমি দলের বিপক্ষে আজ বিকেল ৪টায় মওলানা ভাসানী স্টেডিয়ামে দ্বিতীয়বারের মতো আন্তর্জাতিক ফ্রেন্ডলি ম্যাচে মাঠে নামছে নবগঠিত বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা হকি দল। এর আগে গত বছর বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ভারতের কলকাতা অ্যাথলেটিক ক্লাবের সাথে তিন ম্যাচের সিরিজ খেলেছিল বাংলাদেশের নবীন মহিলা হকি দলটি।
সাই অ্যাকাডেমি দলটি বাংলদেশের তুলনায় অনেক শক্তিশালী। এই অ্যাকাডেমির একটি অংশ কোরিয়ায় খেলতে গেছে। একটা অংশ এসেছে ঢাকায়। ভারতীয় কোচ এ কে বানসাল বর্তমানে বাংলাদেশের উপদেষ্টা কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। মাত্র চার দিনের অবজারভেশনে তিনি বলেন, ‘সাই অ্যাকাডেমি দলটি সত্যিকার অর্থেই অভিজ্ঞ। এখান থেকে বছরে অনেক প্লেয়ার বের হয়। তারপরও বলছি যে, বাংলাদেশের এই দলটির কিছু করে দেখানোর ক্ষমতা রয়েছে। এখানে আসার আগে যা ধারণা ছিল সেটির সম্পূর্ণ বিপরীতই পেয়েছি। আনকোরা ভেবেছিলাম। এখন দেখি যথেষ্ট ম্যাচিউরড। স্কিলফুল এই প্লেয়ারদের অল্পসময়েই উন্নতি আসবে বলে আমার বিশ্বাস। তবে ভারতের বিপক্ষে তাদের কাছে রেজাল্ট আশা করা ঠিক নয়। যেটুকু অর্জন করতে হবে তা হলো অভিজ্ঞতা। আর এটিকেই কাজে লাগাতে হবে সিঙ্গাপুরে হতে যাওয়া এএইচএফ কাপে।’
সাই অ্যাকাডেমি মহিলা দলটি গতকালই ঢাকায় এসেছে। মওলানা ভাসানীতে আজ প্রথম ম্যাচে তাদেরকে মোকাবেলা করবে বাংলাদেশ। আগামীকাল কোনো খেলা নেই। ২২ আগস্ট বিকেল ৪টায় দ্বিতীয় ম্যাচে এবং ২৩ আগস্ট সন্ধ্যা ৭টায় তৃতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হবে উভয়দল। এরপর ২৫ আগস্ট বিকেল ৪টায় চতুর্থ ম্যাচ, ২৬ আগস্ট পঞ্চম ম্যাচ সন্ধ্যা ৭টায় এবং ২৮ আগস্ট বিকেল ৪টায় ষষ্ঠ ম্যাচ খেলবে তারা। ফ্লাড লাইটে দু’টি ম্যাচ খেলার কারণ হিসেবে বাহফে সিনিয়র সহসভাপতি আবদুর রশিদ সিকদার বলেন, ‘মহিলা দলটি কখনো ফ্লাড লাইটে খেলেনি। সিঙ্গাপুরে এএইচএফ কাপে যদি ফ্লাড লাইটে খেলা হয় তখন যেন এই অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে পারে। আমরা মহিলাদেরকে ট্রেইনড করেই আন্তর্জাতিক আসরে পাঠাতে চাই।’
দলের খেলোয়াড় সাদিয়া ছাড়াও আরো কয়েকজন জানান, ‘আমরা অবশ্যই জেতার জন্যই খেলবো। অন্তত তিনটি ম্যাচ জিততে চাই। কোচরা আমাদের সেভাবেই প্রস্তুত করেছেন। ভারতীয় দলটি হয়তো শক্তিশালী, আমরাও কিন্তু কম নই। হতে পারে এটি আমাদের প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ তাই বলে হারার আগে হারব না। লড়াই করে যাবো। তারাও যাতে আমাদের শক্তি বুঝতে পারে।’

 


আরো সংবাদ