২০ জুন ২০১৯

রোডসের পরিকল্পনা

-

টাইগারদের পাঁচ জয়ের পরিকল্পনার মাঝে শ্রীলঙ্কাও ছিল। কিন্তু বেরসিক বৃষ্টি এলোমেলো করে দিল সবকিছু। সেমিফাইনালে ওঠার স্বপ্ন তাই কিছুটা ফিকে হয়ে গেল কঠিন সমীকরণের পাকে। সামনের প্রতিটি ম্যাচই কঠিন এবং গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশের পঞ্চম ম্যাচটি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। ত্রিদেশীয় সিরিজে পরপর তিনবার তাদের হারিয়ে বাংলাদেশ শিরোপা জিতলেও বিশ্বকাপের মঞ্চে গেইল-রাসেলদের নিয়েই ছক কষছেন কোচ স্টিভ রোডস। তন্মধ্যে রাসেলকে নিয়ে একটু বেশিই পরিকল্পনা। কারণ ত্রিদেশীয় সিরিজে গেইল-রাসেল কেউ খেলেননি।
শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পয়েন্ট ভাগাভাগি হওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই মন খারাপ গোটা দলের। পরের ম্যাচে তাই ওয়েস্ট ইন্ডিজকে নিয়ে সতর্ক টিম বাংলাদেশ। প্রতিপক্ষে গেইল, রাসেল, হোপ, হেটমায়ার, লুইস, পুরানসহ বিগ হিটারের ছড়াছড়ি। এদের মধ্যে কাকে নিয়ে রোডস বেশি সতর্ক? জানতে চাইলে রোডস বলেন, ‘আমার মনে হয়, ক্যারিবীয়দের প্রধান অস্ত্র আন্দ্রে রাসেল। সে এখন বিশ্বের সবচেয়ে বিপজ্জনক ব্যাটসম্যান। তার দিনে সে সবকিছু করতে পারে। তার বিপক্ষে বল করা এবং বিধ্বংসী ব্যাটিং আটকে রাখা খুব কঠিন। আমরা রাসেলকে নিয়েই বেশি ভাবছি। তাকে ঠাণ্ডা রাখতে পারলে কাজটা সহজ হবে। শর্ট বল নিয়ে আমি ভীত নই। আমাদের ব্যাটসম্যানেরা ভালোভাবেই শর্ট বল মোকাবেলা করবে। তা ছাড়া আমরা শুধু ওয়েস্ট ইন্ডিজকে নিয়েই ভাবছি না। চিন্তাভাবনা ও পরিকল্পনায় আছে বাকি সব দলও, যাদের সাথে আমাদের খেলা বাকি আছে তাদের সবার কথাই মাথায় রেখেছি আমরা।’
সার্বিক বিষয় নিয়ে রোডস আরো বলেন, ‘আগের তিন খেলা থেকে কিছু না কিছু শিখেছি। রপ্ত করেছি। সবচেয়ে ভালো লেগেছে, আমাদের ব্যাটসম্যানরা শর্ট বলে ঘাবড়ে যায়নি। বেশ আস্থার সাথে প্রতিপক্ষের খাটো লেন্থের বলগুলো মোকাবেলা করেছে। বিশেষ করে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে শর্ট বল বেশ ভালো খেলেছে আমাদের ব্যাটসম্যানরা। ইংল্যান্ডের জফরা আর্চারকেও ভালোভাবেই সামলেছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে আমরা খেলে এলাম মাত্র। আয়ারল্যান্ডে যদিও ওশানে টমাসের মতো পেসার ছিলেন না। তবে তাকে আমরা এ বছরই নিজেদের দেশে খেলে এসেছি। তাই আমরা সতর্ক। মাঠে ঠিকঠাকভাবে প্রয়োগের অপেক্ষা।’


আরো সংবাদ