২১ মে ২০১৯

আগডুম বাগডুম কবিতাবলী

-

লাল সবুজের বাংলাদেশ
আবুল হোসেন আজাদ

স্বাধীনতা লাল সবুজের
পতাকার বাংলাদেশ,
একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে
হানাদার মুক্ত দেশ।

পঁচিশে মার্চ গভীর রাতে
বাঙালি হয় নিধন যাতে
সেই বাহানায় হত্যায় মাতে
পাকরা সবিশেষ।

যার যা ছিল প্রতিরোধে
সবাই এলো ছুটে,
মুক্তিযুদ্ধে শামিল হলো
সব বাধা টুটে।

যুদ্ধ হলো ন’মাস ধরে
শহর ও গ্রাম পথ প্রান্তরে
বন্দী হলো শত্রুসেনা
স্বাধীন হলো দেশ Ñ
স্বাধীনতা লাল সবুজের
পতাকার বাংলাদেশ।

দোলনা
শেখ আব্দুল্লাহ নূর

দোল দোল দোলনা
চলে যাই খুলনা।
খুলনার বাহাদুর
কিনে দিলো চানাচুর।

চানাচুরে ঝাল নাই
সাগরের হাওয়া খাই,
হাওয়া কয় ভাওয়া ব্যাঙ
তোর নাকি চার ঠ্যাঙ?
লাফ দিয়ে চলে যা
ওই দূর চাটগাঁ।

চাটগাঁর বাদশা
ব্যাঙ ভাজা খায়রে,
দোল দোল দোলনায়
খুলনায় যায়রে।

একটি ছড়া
মোহাম্মদ নূর আলম গন্ধী

একটি ছড়া লিখলো খোকা
কী নাম হবে তার?
নির্জনেতে বসে তা-ই
ভাবছে যে বারবার!

বেলি-গোলাপ, জুঁই-চামেলি
সবই ফুলের নাম
নাম কী দিবে? ওই না প্রিয়
ছোট্ট ছড়ার নাম।
ভাবনা শেষে হলো যে ঠিক
নাম হবে তার দেশ
লাল-সবুজের রঙে আঁকা
প্রিয় বাংলাদেশ।

ছাব্বিশে মার্চ
জাকির আজাদ

ছাব্বিশে মার্চ একটি দেশের
স্বাধীন হওয়ার কথন,
শোষক শাসক স্বৈরাচারীর
ধ্বংস এবং পতন।

ছাব্বিশে মার্চ একটি জাতির
গঠন এবং গড়ন,
বিশ্বের নিকট সমাধিকারে
পরিচিতিকরণ।

ছাব্বিশে মার্চ দেশের মাটির
ভালোবাসায় যতন,
যে মাটির কাছে তুচ্ছ সব
হীরা জহরত রতন।

ছাব্বিশে মার্চ স্বাধীন জীবন
স্বপ্ন আশা প্রবল,
শত্রুর সাথে যুদ্ধ লড়তে
বরাবরই সবল।

ফাগুন এলে
সৈয়দ মাশহুদুল হক

ইলিকঝিলিক ফুলের হাসি
সবুজ পাতার বন
ফাগুন এলে রূপের ছটায়
রাঙায় হৃদয়-মন।

মধুর সুরে কোকিল ডাকে
রাখাল বাজায় বাঁশি
দোয়েল শ্যামা ঘুঘুর ডাকে
পরান খুলে হাসি।

গয়না পরা ময়না ডাকে
টিয়া নাড়ে নোলক
বৃক্ষ খুঁটে কাঠঠোকরাও
বাজায় যেন ঢোলক।

বোরো ধানের সবুজ পাতা
হাওয়ায় হেলেদুলে
কৃষাণ মনে স্বপ্ন জাগায়
সুখের নাচন তুলে।

বাঙলার গান
ইদ্রিস সরকার

তোমরা সবাই শোনো এবার
বাংলাদেশের গান
বৃক্ষডালে কোকিল ডাকে
হাসে মনোদ্যান।
সকাল বেলায় পাখির কূজন
দোয়েল শ্যামার সুর
দিকে দিকে শুনি আজান
আহা কি মধুর।
নদী-নালায় ভরা আমার
বাঙলা মায়ের বুক
পাল উড়িয়ে বৈঠা ধরে
মাঝির কতো সুখ।
পুবের হাওয়া পশ্চিমে ওই
ধীরে ধীরে যায়
সেই হাওয়াতে আমার সালাম
পৌঁছে মদিনায়।

ফাগুন রাতে
প্রজীৎ ঘোষ

ফাগুন রাতে আকাশজুড়ে
চাঁদ উঠেছে ওই;
চাঁদের মায়ায় বিভোর হয়ে
আমরা জেগে রই।

চাঁদের বুড়ির গল্প গাঁথা
শোনায় ঠাকুর মা;
চাঁদের বুড়ি সুতো কাটে
জড়ায় দু’টি পা।

কাঁদে না যে চাঁদের বুড়ি
থাকে শুধুই হেসে;
সবাইকে সে আপন করে
অনেক ভালোবাসে।

চাঁদের আলো এত্ত ভালো
লাগেনি তো আগে;
মাঝে মাঝে চাঁদের দেশে
যাবার ইচ্ছে জাগে।


মিলন মেলার ছবি
শাহজাহান মোহাম্মদ

বিজয় এলো শিশির ফোটায়
আজ আমাদের ছুটি
ভোরের আলোয় লজ্জাবতী
মেললো নয়ন জুটি।

প্রজাপতির ডানায় ডানায়
সাতটি রঙের রবি
খুকুর খাতায় দেখা দিলো
মিলন মেলার ছবি।

 


আরো সংবাদ

agario agario - agario