২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

নাটক এখন টিভি ছেড়ে ইউটিউবে : কতটা লাভজনক

নাটক এখন টিভি ছেড়ে ইউটিউবে : কতটা লাভজনক - ছবি : সংগৃহীত

ঢাকার উত্তরা এলাকায় ঈদ উপলক্ষে প্রচারের জন্য একটি নাটকের কিছু দৃশ্যের শুটিং চলছিল। শুটিংয়ে অংশ নেয়ার ফাঁকে সেখানে কথা হচ্ছিল অভিনেত্রী মমর সাথে। তিনি বলছিলেনই নাটকটি নির্মাণ করা হচ্ছে ইউটিউব চ্যানেলে মুক্তির উদ্দেশ্যে।

অভিনেত্রী মম অভিনীত আলতা বানু সিনেমাটিও প্রেক্ষাগৃহের পর এবার ঈদে মুক্তি পাচ্ছে ইউটিউব চ্যানেলে।

"বিজ্ঞাপনের বিরতি না থাকায় ইউটিউবের মতো সামাজিক মাধ্যমে নাটক বা সিনেমা দর্শকদের স্বস্তি দিচ্ছে" বলছেন জাকিয়া বারী মম। ফলে 'বড় ছেলে' কিংবা 'বেস্ট ফ্রেন্ড' সহ অসংখ্য নাটক লাখ লাখ বার দেখছেন দর্শকরা।

শুধু নাটক বা গানই নয়, গোটা সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে ইউটিউবে। একটা সময় যেখানে নতুন সিনেমার বিজ্ঞাপন করা হতো নানা কায়দায়, এখন সেখানে সিনেমার ট্রেইলারও ছাড়া হচ্ছে ইউটিউবে।

বাংলাদেশে 'বক্স অফিস' এখন ইউটিউব?

পরিচালক বা নাটক নির্মাতারা অনেকে এই প্ল্যাটফর্মকে মনে করছেন 'বক্স অফিস' হিসেবে।

নাটক নির্মাতা শিহাব শাহীন বলছিলেন প্রায় দুই দশক ধরে তিনি টেলিভিশনের জন্য নাটক নির্মাণ করছেন। এখন সেখানে যোগ হয়েছে সামাজিক মাধ্যমের দর্শক। তাই ইউটিউবকে তিনি বলছেন 'নাটকের বক্স' অফিস।

নির্মাতা শিহাব শাহীন বলেন, তার নির্মিত নাটক ৫০/৬০ লাখ বারও দেখা হয়েছে ইউটিউবে। তবে "তাতে নির্মাতাদের বা শিল্পীদের আত্মতুষ্টি ছাড়া কোনো লাভ হচ্ছে না" বলে তিনি উল্লেখ করেন।

বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আইয়েএর ইউটিউব চ্যানেলে বেশ কয়েকটি সিনেমার ট্রেইলার ছাড়া হয়েছে। কমলার রকেট কিংবা কালের পুতুল সিনেমার ট্রেলার এভাবেই ইউটিউবে ছাড়ার পর বহু মানুষ সেগুলো দেখেছেন।

কালের পুতুল সিনেমাটি ঈদের দিন মুক্তি পাবে ইউটিউব চ্যানেলে। এই সিনেমার পরিচালক আকা রেজা গালিব বলেন "প্রেক্ষাগৃহে যায় না দর্শক। তাই নির্মাতা হিসেবে ইউটিউবই এখন দর্শকের কাছে পৌঁছানোর ক্ষেত্র হয়ে গেছে"।

চ্যানেল আই কর্তৃপক্ষ জানাচ্ছে, তাদের ইউটিউব সাবস্ক্রাইবার জুনের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত আট লাখের বেশি ছিল। প্রতিদিনই যুক্ত হচ্ছে নতুন নতুন সাবস্ক্রাইবার। ঈদ উল ফিতরে চারটি সিনেমা, এছাড়া নাটক টেলিফিল্ম মুক্তি পাচ্ছে এই ইউটিউব চ্যানেলে।

অন্যান্য টেলিভিশন চ্যানেলগুলোও পিছিয়ে নেই। আরটিভি, মাছরাঙ্গা টিভি বৈশাখী টিভি এনটিভি ইউটিউবে চ্যানেল খুলেছে এবং সেখানে তাদের নাটক ও অন্যান্য কন্টেন্ট তুলে দিচ্ছে।

কতটা লাভজনক জানতে চাইলে কয়েকটি চ্যানেলের দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা নাম প্রকাশ না করে জানান, ইউটিউব ও গুগল থেকে মানুষ ভালো রোজগার করছে।

এনটিভি অনলাইনের ত্রিশটা ইউটিউব চ্যানেল আছে যেগুলোতে ভিন্ন ভিন্ন কন্টেন্ট দেয়া হয় এবং সাবস্ক্রাইবার ২৪ লাখের ওপরে। এই বিভাগের প্রধান ফখরুদ্দিন জুয়েল বিবিসিকে বলেন, মানুষ যেভাবে ইন্টারনেটে ‌সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝুঁকছে সে কারণেই তারাও এই দিকে বিনিয়োগ করছেন।

তিনি জানান, ভিউয়ার প্রতি কত আয় তা নির্ভর করে কোথা থেকে কোন সময় দেখা হচ্ছে তার ওপর। বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান ইউটিউবের দর্শকেরা বেশি দেখেন, জানান এনটিভি অনলাইনের প্রধান ফখরুদ্দিন জুয়েল।

তিনি জানান, জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি মার্চে রেভিন্যু মন্দা যায়, আবার ডিসেম্বরে ক্রিসমাসের আগে রেভিন্যু বেড়ে যায়।

নিউজ পোর্টালেও এখন ইউটিউব চ্যানেল খোলা হচ্ছে। তবে ইউটিউব চ্যানেলগুলোতে দর্শকরা মূলত বিনোদনমূলক কিংবা হালকা মেজাজের কন্টেন্ট দেখতে চায়, বলেছেন সংশ্লিষ্টরা। আর এই ক্ষেত্রটি লাভজনক হয়ে ওঠায় এখন বিনোদন জগতের অনেকেই সেদিকে ঝুঁকছেন।

 


আরো সংবাদ