১২ ডিসেম্বর ২০১৯

হিম হিম আইসক্রিম

-

 

আইসক্রিম খেতে পছন্দ করেন না, এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দায়। যেহেতু শীতকাল আসছে, সামনের কয়েক মাস হয়তো আইসক্রিম থেকে দূরেই থাকতে হবে। তাই শীত আসার আগেই চলুন নিজ হাতে আইসক্রিম তৈরি করে খেয়ে নেয়া যাক। আজ থাকছে আইসক্রিম তৈরির সহজ কয়েকটি রেসিপি। রেসিপি দিয়েছেন তাসলিমা সুলতানা

চকোলেট আইসক্রিম

উপকরণ : ঘন তরল দুধ ১ কাপ, কনডেন্সড মিল্ক ৪ টেবিল চামচ, ভ্যানিলা এসেন্স ১ চা চামচ, কোকো পাউডার ৩ টেবিল চামচ।
প্রণালী : ভ্যানিলা এসেন্সের সাথে কোকো পাউডার ভালোভাবে মিশিয়ে নিতে হবে। একটি সিরামিকের বাটি ১ ঘণ্টা ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করতে হবে। তার পর এতে তরল দুধ দিয়ে হ্যান্ডবিটার মেশিনে বিট করতে করতে যখন ফোম বা ক্রিমের মতো হবে তখন কনডেন্সড মিল্ক দিয়ে আলতো করে চামচ দিয়ে নেড়ে মিক্স করতে হবে। সরাসরি চিনি দিতে যাবেন না। এতে ভ্যানিলা আইক্রিমের ঘনত্ব থাকবে না, তাই চিনির বদলে কনডেন্সড মিল্ক দেয়া ভালো। এতে ভ্যানিলা এসেন্স ও কোকো পাউডারের মিশ্রণ দিয়ে আবার বিট করতে হবে। ভালোভাবে মিশে গেলে এয়ারটাইট একটি বক্সে ঢেলে ঢাকনা লাগিয়ে ডিপ ফ্রিজে রাখুন। ২ ঘণ্টা পর বের করে কাঁটাচামচ দিয়ে ভালোভাবে নেড়েচেড়ে আবার প্রয় ৪ ঘণ্টা ফ্রিজে রেখে দিন। মাঝে একবার নেড়ে দিতে হয়। কারণ নেড়ে না দিলে আইসক্রিম জমে বরফের মতো শক্ত হয়ে যাবে। ৪ ঘণ্টা পর বের করে পরিবেশন করুন চকলেট আইসক্রিম। ইচ্ছে হলে চকোলেট সিরাপ বা চকো চিপ্স দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করতে পারেন।

ম্যাঙ্গো আইসক্রিম

উপকরণ : আম ২ কাপ, কনডেন্সড মিল্ক আধা কাপ, ঘন দই আধা কাপ, ঘন ক্রিম আধা কাপ।
প্রণালী : সব উপকরণ একসাথে ব্লেন্ড করে নিন। একটি পাত্রে ঢেলে ডিপ ফ্রিজে রাখুন। ১ ঘণ্টা পর বের করে কাঁটাচামচ দিয়ে ভালোভাবে নেড়ে ফ্রিজে রাখুন। ৩ ঘণ্টা পর নামিয়ে পরিবেশন করুন ম্যাঙ্গো আইসক্রিম।


ভ্যানিলা আইসক্রিম

উপকরণ : ঘন তরল দুধ ১ কাপ, কনডেন্সড মিল্ক ৪ টেবিল চামচ, ভ্যানিলা এসেন্স ১ চা চামচ।
প্রণালী : একটি সিরামিকের বাটি ১ ঘণ্টা ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করতে হবে। তার পর এতে তরল দুধ দিয়ে হ্যান্ডবিটার মেশিনে বিট করতে করতে যখন ফোম বা ক্রিমের মতো হবে তখন কনডেন্সড মিল্ক দিয়ে আলতো করে চামচ দিয়ে নেড়ে মিক্স করতে হবে। সরাসরি চিনি দিতে যাবেন না, এতে ভ্যানিলা আইক্রিমের ঘনত্ব থাকবে না। তাই চিনির বদলে কনডেন্সড মিল্ক দেয়া ভালো। এতে ভ্যানিলা এসেন্স দিয়ে আবার বিট করতে করতে যখন শক্ত শক্ত হবে তখন এয়ারটাইট একটি বক্সে ঢেলে ঢাকনা লাগিয়ে ডিপ ফ্রিজে রাখুন। ২ ঘণ্টা পর বের করে কাঁটাচামচ দিয়ে ভালোভাবে নেড়েচেড়ে আবার প্রায় ৪ ঘণ্টা ফ্রিজে রেখে দিন। মাঝে একবার নেড়ে দিতে হয়। কারণ নেড়ে না দিলে আইসক্রিম জমে বরফের মতো শক্ত হয়ে যাবে। ৪ ঘণ্টা পর বের করে পরিবেশন করুন ভ্যানিলা আইসক্রিম।

কলার আইসক্রিম

উপকরণ : ৪টি পাকা কলা, ৪ চামচ কনডেন্সড মিল্ক, কোকো পাউডার ৩ টেবিল চামচ, ৪ চা চামচ মধু, কাজু ও পেস্তাবাদাম কুচি ২ টেবিল চামচ।
প্রণালী : প্রথমে কলাগুলো খোসা ছাড়িয়ে গোল গোল চাকতির মতো কেটে নিন। এবার একটি এয়ারটাইট বক্সে কলার টুকরোগুলো রেখে বক্সটি ফ্রিজে রেখে দিন কমপক্ষে ২ ঘণ্টা। সবচেয়ে ভালো হয় যদি সারা রাত ফ্রিজে রাখা হয়। এবার কলার টুকরোগুলো ফ্রিজ থেকে বের করে ব্লেন্ড করুন। অনেকক্ষণ ব্লেন্ড করতে হবে। ক্রিমি হয়ে এলে বাদাম কুচি, কনডেন্সড মিল্ক ও কোকো পাউডার দিয়ে দিন। ব্লেন্ড করতে থাকুন যতক্ষণ না মাখনের মতো ক্রিমি হচ্ছে। এবার একটি বাটিতে ঢালুন কলার ক্রিম। ফ্রিজে রাখুন কয়েক ঘণ্টা। ঠাণ্ডা হয়ে গেলে পরিবেশন করুন কলার আইসক্রিম। ইচ্ছে করলে কোকো পাউডার ছাড়াও তৈরি করতে পারেন এই কলার আইসক্রিম।


আরো সংবাদ




hacklink Paykwik Paykasa
Paykwik