২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

বৃষ্টির দিনে পরিচর্যা

রূপ কথা
-


বর্ষার স্যাঁতসেঁতে মওসুমে হাত ও পায়ের বিশেষ যতœ নেয়া প্রয়োজন। না হলে নানা রকম সংক্রমণ দেখা নিতে পারে। হাত ও পায়ের ত্বক হারাতে পারে স্বাভাবিক ঔজ্জ্বল্য।
বর্ষায় হাত ও পায়ের সৌন্দর্যের প্রথম কথা হলো পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা। প্রথমেই বলা হয়েছে বর্ষাকালে ত্বকে নানা ধরনের সংক্রমণ দেখা দেয়ার আশঙ্কা থাকে। বাইরে থেকে ফিরে হালকা গরম পানির সাথে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিন। এ ছাড়া হ্যান্ডওয়াশ দিয়েও হাত ধুয়ে নিতে পারেন। বিশেষ করে ঘুমাতে যাওয়ার আগে অবশ্যই হাত ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। হাত ধোয়ার পর ভালো কোনো ময়েশ্চারাইজিং অথবা হ্যান্ড ক্রিম ম্যাসাজ করে নিতে হবে।
হাত ও পায়ের নখ বেশি বড় রাখবেন না এবং ট্রিম করার সময় খেয়াল রাখুন যেন নখের কোনো ক্ষতি না হয়। কারণ এর থেকে নানা ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। দুই সপ্তাহ পরপর অবশ্যই মেনিকিউর ও পেডিকিউর করবেন। স্পাও করাতে পারেন। এতে হাত ও পায়ের ত্বক রিল্যাক্স হওয়ার সুযোগ পাবে।
বর্ষাকালে নখ সহজেই ভঙ্গুর হয়ে পড়ে। তাই নখের যতেœ প্রতিদিন এক টুকরো তুলায় অল্প পেট্রোলিয়াম জেলি বা নারকেল তেল নিয়ে নখের ওপর ম্যাসাজ করুন। এতে নখ শক্ত হবে, সহজে ভেঙে পড়বে না।
ত্বকে আর্দ্রতা বজায় রাখতে হাত ও পায়ে প্রতিদিন রাতে আমন্ড অয়েল বা অলিভ অয়েল দিয়ে ম্যাসাজ করুন। হাত ও পায়ের ত্বক থাকবে সতেজ ও সুন্দর। এই সাথে হাত ও পা সংক্রমণের হাত থেকেও রক্ষা করবে।
পায়ের যতœ : বর্ষাকালে পায়ের যতœ নেয়াটাও খুব জরুরি। ভেজা স্যাঁতসেঁতে অবস্থায় বর্ষা ঋতুতে পায়ের আঙুলের ফাঁকে ছত্রাক সংক্রমণ হয় বেশি। যাদের পা বেশি ঘামে তারা নিমপাতা দিয়ে ফুটানো গরম পানিতে লেমন গ্রাস তেল ও জিরোনিয়াম তেল চার ফোঁটা করে মেশান। যতক্ষণ পানি গরম থাকে পা ডুবিয়ে রাখুন। তারপর শুকনো করে মুছে নিন। এ ছাড়া পায়ের নিয়মিত যতেœ সপ্তাহে একবার এক গামলা গরম পানিতে ল্যাভেন্ডার তেল, পাইন তেল, চন্দন তেল চার ফোঁটা করে মেশান। কয়েকটি গোলাপ ফুলের পাপড়ি দিন। যতক্ষণ পানি গরম থাকে পা ডুরিয়ে রাখুন। তারপর শুকনো কাপড় দিয়ে পা মুছে নিন। হাঁপানি সমস্যা থাকলে ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া কোনো তেল ব্যবহার করবেন না। নিয়মিত মাসে দু’বার পেডিকিউর করে নিন। পায়ের কালচে ছোপ দূর করতে আধা কাপ মসুর ডাল বাটা, আধা কাপ আমন্ড গুঁড়ো, দুধ ও দুই চা চামচ গ্লিসারিন দিয়ে মিশ্রণ বানান। পায়ের পাতায় লাগান। শুকিয়ে গেলে ভালো করে ঘষে তুলে ফেলুন। হালকা গরম পানিতে পা ধুয়ে ফেলুন।

 


আরো সংবাদ