২১ আগস্ট ২০১৯

প্রসবের সময় বাচ্চার মাথা ছিড়ে ফেলার অভিযোগ

প্রসব করাতে গিয়ে নবজাতকের মাথা ছিড়ে ফেলার অভিযোগ উঠেছে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার গড়েয়া গোপালপুরের এক গ্রাম্য ডাক্তারের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত গ্রাম্য ডাক্তারের নাম ডা. জুয়েল ইসলাম। পরে সোমবার বিকেলে মুমূর্ষু অবস্থায় ওই প্রসূতি নারীকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের গাইনি বিভাগে ভর্তি করা হয়।

এর আগে গত ১৩ জুলাই, শনিবার বাচ্চা প্রসবের সময় স্থানীয় ডাক্তার জুয়েল ইসলামের পরামর্শে তার কাছেই বাচ্চা প্রসবের সিদ্ধান্ত নেন ওই নারী। ডা. জুয়েল ইসলাম স্থানীয় এক দাইকে সঙ্গে নিয়ে বাচ্চা প্রসব করাতে গিয়ে বাচ্চার মাথা ধরে টানাটানি করলে মাথা ছিড়ে যায়। পরে অবস্থা খারাপ হতে থাকলে রোগীকে শহরের একটি বেসরকারি ক্লিনিকে ভর্তি করেন।

রোগীর স্বামী রাজ্জাকুল ইসলাম বলেন, ‘ওই ডাক্তার আমার সন্তানকে হত্যা করেছে। আমার স্ত্রীকেও হত্যার পরিকল্পনা করেছিল।’

এ ব্যাপারে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ও গাইনি কনসালটেন্ট ডা. রেজা বলেন,‘অস্ত্রপচার করে মায়ের পেট থেকে মাথা ছাড়াই বাচ্চার দেহ বের করা হয়েছে। আর কিছুটা দেরি হলে মাকেও বাঁচানো যেত না।’

এই বিষয়ে ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি আসিকুর রহমান জানান, এ ঘটনা শোনার সঙ্গে সঙ্গে ওই ডাক্তারকে আটক করতে পুলিশ তল্লাশি চালিয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।


আরো সংবাদ




mp3 indir bedava internet