১৭ আগস্ট ২০১৯

ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় ধর্ষক মিন্টু রায় গ্রেফতার

ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় ধর্ষক মিন্টু রায় গ্রেফতার - ছবি : নয়া দিগন্ত

রংপুরে পিতাকে শ্রমিক হিসেবে নিয়ে কাজে লাগিয়ে বাড়িতে গিয়ে পঞ্চম শ্রেণী পড়ুয়া কন্যাকে ধর্ষণের ঘটনার ধর্ষক মিন্টু রায়কে (৩২) ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতয়ালী থানা পুলিশ লালমনিরহাটের কালিগঞ্জের চন্দ্রপুর সীমান্ত থেকে শুক্রবার রাতে গ্রেফতার করেছে। অন্যদিকে শনিবার আদালতে মিন্টু রায় ধর্ষনের কথা স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছে।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারি পুলিশ কমিশনার (হেডকোয়ার্টার্স এন্ড মিডিয়া) মোঃ আলতাফ হোসেন জানান, মামলা হওয়ার পর আমরা সন্দিগ্ধ তিনজনকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ করতে থাকি। প্রধান অভিযুক্ত ধর্ষক মন্টু বর্মন ভারতে পালিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। শুক্রবার রাতে ধর্ষক মন্টু বর্মনকে লালমনিরহাটের চন্দ্রপুর শিয়াল ডাকারহাট থেকে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় গ্রেফতার করা হয়। শনিবার সকালে অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের বিচারক আরিফা ইয়াসমিন মুক্তার আদালতে হাজির করা হয় মিন্টু রায়কে। মিন্টু রায় ধর্ষনের কথা স্বীকার করে আদালতের কাছে জবানবন্দি দেন।

কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ রেজাউলি ইসলাম জানান, নগরীর ৪নং ওয়ার্ডের ধাপকামারপাড়ার দিনমজুর শাহজাহান মিয়াকে একই এলাকার ঝড়ু রায়ের পুত্র দুই সন্তানের জনক মিন্টু রায় গত ১৫ এপ্রিল দুপুরে জমিতে ঘাস কর্তনের জন্য শ্রমিক হিসেবে নেয়। শাহাজাহান জমিতে ঘাস কর্তন করতে থাকলে মিন্টু রায় শাহজাহানের বাড়িতে আসে এবং তার রুমে ঢুকে টিভি দেখারত অবস্থায় থাকা তার ৫ম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়েকে ধর্ষণ করে। এসময় শিশুটি চিৎকার করলে প্রতিবেশী আকতারা বানু ছুটে আসলে ধর্ষক মিন্টু রায় তড়িঘড়ি করে পালিয়ে যায়। এসময় শিশুটির মা জায়েদা বেগম অন্যের বাড়িতে কাজ করতে গিয়েছিলেন। পরে ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রংপুর সিটি করপোরেশনের আওয়ামী কাউন্সিলর পরিষদের সাধারণ সম্পাদক, জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক হারাধন রায় হারা মীমাংসার দায়িত্ব নিয়ে কালক্ষেপণ করতে থাকে।

গত বুধবার রাতে মা জায়েদা বেগম মিন্টু রায়, ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হারাধন হারা, ধর্ষকের শ্যালক সম্ভূ রায়, টেংকু রায় ও মেহেদুল ইসলামকে আসামি করে মামলা করেছেন। ধর্ষণের ঘটনা ভিন্নখাতে প্রবাহিত করে ধর্ষককে সহযোগিতার অভিযোগে ধর্ষকের শ্যালক সম্ভূ রায়, টেংকু রায় ও মেহেদুল ইসলামকে বৃহস্পতিবার আটক করা হলেও গ্রেফতার দেখানো হয় মেহেদুল ইসলামকে।


আরো সংবাদ




bedava internet