২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

রংপুরে র‌্যাবর সাথে ‘গোলাগুলিতে’ ঘুঘু ডাকাত নিহত

-

রংপুরে র‌্যাবের সাথে গোলাগুলিতে মারা গেছে পুলিশের তালিকাভুক্ত ডাকাত সরদার ও মাদক ব্যবসায়ী শওকত ঘুঘু ওরফে ঘুঘু ডাকাত (৩৩)। মৃত ঘুঘু ডাকাত রংপুরের আন্তঃজেলা ডাকাত দল এবং মাদক ব্যবসা ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের নিয়ন্ত্রক ছিল বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

শুক্রবার মধ্যরাতে রংপুর মহানগরীর রাধাকৃষ্ণপুর রহমতপাড়ায় এই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটেছে। এসময় আগ্নেয়াস্ত্র ও মাদকও উদ্ধার হয়।

র‌্যাব-১৩ রংপুর সদর দফতরের মিডিয়া কর্মকর্তা এএসপি খন্দকার গোলাম মোর্তুজা জানান, বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে র‌্যাবের আভিযানিক দল মাদক বেচাকেনার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাদকদ্রব্য উদ্ধারের উদ্দেশ্যে রংপুর মহানগরীর ১২ নং ওয়ার্ডের রাধাকৃষ্ণপুর রহমত পাড়ায় পৌঁছালে টর্চলাইটের আলো এবং মাদক কারবারীদের উপস্থিতি দেখতে পায়। আভিযানিক দলটির দিকে র‌্যাব অগ্রসর হলে তারা র‌্যাবের ওপর গুলিবর্ষণ শুরু করে। র‌্যাব সদস্যরা তাদেরকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিলেও তারা তা না করে এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ করতে থাকে। র‌্যাব সদস্যরাও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলিবর্ষণ শুরু করে। ১০-১২ মিনিট গোলাগুলির এক পর্যায়ে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সেখান থেকে শওকত ঘুঘু নামের এক ব্যক্তিকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসাপাতলে নেয়া হলে চিকিত্সক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শওকত ঘুঘু ওরফে ঘুঘু ডাকাতের বাড়ি নগরীর দেওডোবা ডাঙ্গীরপাড় (পীরজাবাদ) এলাকায়। তার নামে রংপুরের বিভিন্ন থানায় ডাকাতি, খুন, ছিনতাই ও মাদকসহ প্রায় ১৩টির বেশি মামলা আছে। এছাড়াও ঘুঘু রংপুরের ডাকাতি ও মাদক ব্যবসা ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের অন্যতম নিয়ন্ত্রক হিসেবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে তালিকাভুক্ত। এ ঘটনায় র‌্যাবের একজন সদস্য আহত হলে তাকেও প্রয়োজনীয় চিকিত্সা দেয়া হয়। ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশী পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন, তিন রাউন্ড তাজা গুলিসহ ৬ কেজি গাঁজা ও ২৫ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়েছে।


আরো সংবাদ

Hacklink

ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme