১৭ নভেম্বর ২০১৮

রংপুরে ডাকাতির সময় ২ জনকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

-

রংপুরের পালিচড়ায় মঙ্গলবার গভীর রাতে ডাকাতিকালে দুইজনকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী। ওই দুইজন আন্তঃজেলা ডাকাত সর্দার বলে জানিয়েছে পুলিশ। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদেরকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কোতোয়ালি থানা পুলিশের এসআই মো: দুলাল জানান, গ্রেফতার ডাকারতা হলো রংপুর মহানগরীর ৭ নং ওয়ার্ডের কার্তিক মধ্যপাড়া সাবের আলীর পুত্র সেন্টু মিয়া (২৫) এবং বদরগঞ্জের কাজীপাড়ার আব্দুল জব্বারের পুত্র বাবলু মিয়া(৪৭)। বাবলু নগরীর স্টেশন মন্ডলপাড়ায় বাড়ি ভাড়া নিয়ে বসবাস করতো।

পুলিশের এই কর্মকর্তা আরো জানান, সদরের পালিচড়া গ্রামের আম ব্যবসায়ী বিপুল, বাবলু, আকতার ও মনছের আলী মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১টার দিকে রংপুর মহানগরীর থেকে আম বিক্রি শেষে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে ভুরারঘাট-পালিচড়া সড়কের ছোট ব্রিজ এলাকায় সংঘবদ্ধ একদল ডাকাত তাদের গতিরোধ করে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ডাকাতির চেষ্টা করতে থাকে। এসময় ব্যবসায়ীদের চিত্কারে আশেপাশের শতশত লোক ছুটে আসতে থাকলে ডাকাতরা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এলাকাবাসী তাদের ধাওয়া দিয়ে ওই দুইজনকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে স্থানীয় ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের কাছে নিয়ে যায়। পরে রাত ৩টার দিকে পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিত্সার জন্য পাঠায়।

পুলিশ জানায়, গ্রেফতারকৃতরা আন্তঃজেলা ডাকাতদলের সদস্য। তাদের বিরুদ্ধে ডাকাতিসহ বিভিন্ন মামলা রয়েছে।

এ ব্যাপারে সদ্য পুস্করিনী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সোহেল রানা জানান, পালিচড়ার সন্তোষ ও আলমগীর নামে দুই ব্যক্তির সহায়তায় এ ডাকাতির চেষ্টা চালানো হয়েছে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক দুই ডাকাত স্বীকার করেছেন।


আরো সংবাদ